সৌদি যুবরাজকে ইসরায়েল সফরে আহ্বান

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী বেঞ্জামিন নেতানিয়াহুকে সৌদি সফরে আমন্ত্রণ জানানোর জন্য রাজা সালমান বিন আবদুল আজিজের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন ইসরায়েলের গোয়েন্দা ও পরিবহনমন্ত্রী ইজরায়েল কাৎজ।
তিনি বলেছেন, নেতানিয়াহুর সফরের মাধ্যমে সৌদি আরবের সঙ্গে ইসরাইলের পূর্ণাঙ্গ কূটনৈতিক সম্পর্ক প্রতিষ্ঠা করা সম্ভব হবে।একইসঙ্গে ইসরায়েলি মন্ত্রী যুবরাজ মুহাম্মাদ বিন সালমানকে ইসরায়েল সফরে পাঠানোর জন্য সৌদি রাজার প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন।
আজ বৃহস্পতিবার হার্জলিয়াতে বার্ষিক সম্মেলনে কাৎজ বলেন, ইরানের বিরুদ্ধে ইসরায়েল ও সৌদি আরবের অভিন্ন স্বার্থ রয়েছে। এজন্য যুবরাজের‍ তেল আবিব সফর করা দরকার। হার্জলিয়া সম্মেলনে ইসরায়েলের নেতারা তাদের জাতীয় কৌশলগত পদক্ষেপগুলো তুলে ধরেন।
কাৎজ বলেন, ‘প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের সফরের সময় আমরা দেখেছি আপনারা কত চমৎকারভাবে আপ্যায়ন করতে পারেন। আপনি আপনার নতুন উত্তরাধিকারী যুবরাজ মুহাম্মাদ বিন সালমানকেও পাঠাতে পারেন। তিনি একজন গতিশীল ব্যক্তিত্ব। তিনি একজন উদ্যোগী মানুষ এবং তিনি নতুন কিছু করতে চান।’
ইসরায়েলের এ মন্ত্রী আরো বলেন, ‘তারা জানেন কে এই ইরান। তারা জানেন, ইরানকে নিয়ে আমাদের তথ্য আদান-প্রদান করতে হবে। ফলে আপনি যুবরাজকে বৈঠকের জন্য ইসরায়েলে পাঠাতে পারেন এবং আমি ওয়াদা করছি যে, আমরা তাকে সঠিকভাবে স্বাগত জানাব।’
ওই অনুষ্ঠানে ইসরায়েলের প্রতিরক্ষামন্ত্রী এভিগদোর লিবারম্যান আরব দেশগুলোর সঙ্গে পূর্ণাঙ্গ কূটনৈতিক ও অর্থনৈতিক সম্পর্ক প্রতিষ্ঠার আহ্বান জানান।
তিনি বলেন, ‘ফিলিস্তিনের সঙ্গে শান্তি চুক্তির আগে মধ্যপন্থি সুন্নি আরব দেশগুলোর সঙ্গে শান্তি চুক্তি হতে হবে। আঞ্চলিক চুক্তিই হচ্ছে সুড়ঙ্গের শেষ সীমান্তে আলোর রেখা।’
তিনি বলেন, ‘গবেষণায় আমি দেখেছি পারস্য উপসাগরীয় দেশগুলোর সঙ্গে পূর্ণাঙ্গ অর্থনৈতিক সম্পর্ক প্রতিষ্ঠা করলে ইসরায়েল বার্ষিক সাড়ে চার হাজার কোটি ডলার বাড়তি রাজস্ব আয় করবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

error: Content is protected !!