সিরিয়ায় আবারো বিমান হামলা শুরু অস্ট্রেলিয়ার

সিরিয়ায় আইএসবিরোধী বিমান হামলা পুনরায় শুরু করার কথা জানিয়েছে অস্ট্রেলিয়া। মার্কিন নেতৃত্বাধীন জোটের বিমানকে সম্ভাব্য লক্ষ্যবস্তু মনে করা হতে পারে, রাশিয়ার এমন হুঁশিয়ারির পর গত মঙ্গলবার অস্ট্রেলিয়া বিমান অভিযান স্থগিত করেছিল। মার্কিন সামরিক বাহিনী সিরিয়ার একটি যুদ্ধবিমান ভূপাতিত করার পর ওই সতর্কতা দেয়া হয়।

বৃহস্পতিবার বিমান অভিযানের ওপর থেকে স্থগিতাদেশ প্রত্যাহার করে অস্ট্রেলীয় প্রতিরক্ষা বাহিনী বলেছে, এটা ছিল অভিযানগত ঝুঁকি যাচাইয়ের একটি পূর্বসতর্কতা। কথিত ইসলামিক স্টেটের (আইএস) বিরুদ্ধে মার্কিন নেতৃত্বাধীন জোট বাহিনীর লড়াইয়ের অংশ হিসেবে অস্ট্রেলিয়া ইরাক ও সিরিয়ায় ৭৮০ জন সামরিক সদস্য মোতায়েন করেছে। অস্ট্রেলীয় প্রতিরক্ষা দপ্তর জানিয়েছে, ২০১৫ সালের সেপ্টেম্বরে মার্কিন নেতৃত্বাধীন জোটে যোগ দিলেও অস্ট্রেলিয়া এ বছরের মার্চ এবং মে মাসের মধ্যে কোনো অভিযান পরিচালনা করেনি।

প্রসঙ্গত, সিরীয় বিমান ভূপাতিত করার ঘটনা নিয়ে সম্প্রতি যুক্তরাষ্ট্র ও রাশিয়ার মধ্যে উত্তেজনা দেখা দেয়। এর ফলশ্রুতিতে ওয়াশিংটনের সাথে সরাসরি সামরিক যোগাযোগও স্থগিত করে মস্কো। সিরিয়ার আকাশে সংঘাত এড়ানোর লক্ষ্যে ওই সামরিক যোগাযোগ স্থাপন করা হয়েছিল। এদিকে শীর্ষ এক মার্কিন জেনারেল বলেছেন, ২০১৫ সালে স্থাপিত সরাসরি সামরিক যোগাযোগ পুন:প্রতিষ্ঠায় তার দেশ কাজ করে যাবে। তবে রাশিয়া বলেছে, যুক্তরাষ্ট্র এ যোগাযোগ কাজে লাগাতে ব্যর্থ হয়েছে। বিবিসি।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

error: Content is protected !!