রাষ্ট্রপতির সঙ্গে সুইস রাষ্ট্রদূতের বিদায়ী সাক্ষাৎ

নিজস্ব প্রতিবেদক : বাংলাদেশে নিযুক্ত সুইজারল্যান্ডের রাষ্ট্রদূত ক্রিস্টিয়ান মার্টিন ফোটস সোমবার বিকালে বঙ্গভবনে রাষ্ট্রপতি আব্দুল হামিদের সঙ্গে বিদায়ী সাক্ষাৎ করেছেন।রাষ্ট্রপতির প্রেস সচিব মোহাম্মদ জয়নাল আবেদীন বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের জানান, বৈঠকে রাষ্ট্রদূত ঢাকায় তাঁর দায়িত্ব পালনকালে তাকে সহযোগিতা করার জন্য রাষ্ট্রপতির প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।বৈঠকে রাষ্ট্রপতি বলেন, বন্ধুপ্রতীম দু’দেশের মধ্যকার বিরাজমান দ্বিপক্ষীয় ও বাণিজ্যিক সম্পর্ক অত্যন্ত চমৎকার এবং বর্তমানে এই সম্পর্ক নতুন মাত্রায় পৌঁছেছে। হামিদ বলেন, ১৯৭২ সালে ১৪ মার্চ স্বাধীন বাংলাদেশ হিসাবে স্বীকৃতিদানকারী ইউরোপীয় দেশসমূহের মধ্যে সুইজারল্যান্ড একটি। এজন্য তিনি সুইস সরকার ও সেদেশের জনগণের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানান।আবদুল হামিদ দুই দেশের মধ্যে কূটনৈতিক সম্পর্ক স্থাপনের পর থেকে বাংলাদেশের আর্থ-সামাজিক উন্নয়নে সুইজারল্যান্ডের সহযোগিতার কথা উল্লেখ করেন।রাষ্ট্রপতি হামিদ কাঙ্ক্ষিত অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি অর্জন নিশ্চিত করতে ব্যক্তিগত বেসরকারি এবং বেসরকারি-সরকারি অংশীদারিত্বের ভিত্তিতে দেশে একশ’টি বিশেষ অর্থনৈতিক জোন স্থাপনে সরকারি পরিকল্পনার কথা উল্লেখ করে বলেন, সুইজারল্যান্ড এই সেক্টরে বিনিয়োগ করতে পারে।তিনি বলেন, বাংলাদেশ থেকে ওষুধের পাশাপাশি পাট, পাটজাত পণ্য, সিরামিক, তৈরি পোশাক এবং জুতা ও হিমায়িত খাদ্যের মতো চামড়াজাত পণ্য আমদানি করার মধ্য দিয়ে দু’দেশের মধ্যকার বাণিজ্যের পরিমাণ বৃদ্ধি করা যেতে পারে।সুইস রাষ্ট্রদূত ভবিষ্যতে বাংলাদেশের একজন শুভেচ্ছা দূত হিসেবে কাজ করবেন বলে হামিদ আশা প্রকাশ করেন।বিদায়ী রাষ্ট্রদূত বাংলাদেশের বর্তমান আর্থসামাজিক উন্নয়নের প্রশংসা করেন এবং এখানে তার অবস্থানকালে সব ধরনের সহযোগিতা পাওয়ায় সন্তোষ প্রকাশ করে বলেন, বাংলাদেশের জনগণ খুবই অতিথিপরায়ন, তিনি সুযোগ পেলেই বাংলাদেশ সফরে আসবেন। বাংলাদেশ ভবিষ্যতে আরও উন্নতি করবে বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন।বৈঠকে বঙ্গভবনের সংশ্লিষ্ট সচিব ও উচ্চপদস্থ কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

error: Content is protected !!