রণতরীতে মিলেছে সাত নিখোঁজ সেনার লাশ

জাপানে মার্কিন নৌবাহিনীর একটি রণতরীর সঙ্গে কন্টেইনার জাহাজের ধাক্কায় নিখোঁজ সাত সেনা সদস্যের মৃতদেহের খোঁজ মিলেছে। আজ রবিবার মার্কিন রণতরীর ক্ষতিগ্রস্ত অংশ থেকে সাত সেনা সদস্যের মৃতদেহ উদ্ধার করে জাপানের উদ্ধারকারী দল।

শনিবার এই সংঘর্ষের পর থেকেই নিখোঁজ সাত মার্কিন নৌ-সদস্যের খোঁজে অনুসন্ধান শুরু হয়। মার্কিন নৌবাহিনী জানায়, রবিবার সকালে ক্ষতিগ্রস্ত জাহাজটির ভেতর থেকে সাত নাবিকের মরদেহ উদ্ধার করে উদ্ধারকর্মীরা। তাদের শনাক্তের জন্য জাপানের হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

দুটি জাহাজের ধাক্কা লাগার ফলে মার্কিন রণতরীটিরর এক পাশে ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। এর কমান্ডিং অফিসার ব্রাইস বেনসন সহ তিনজন আহত অবস্থায় হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। জাহাজ থেকে তাদেরকে হেলিকপ্টারে করে হাসপাতালে নেয়া হয়।

মার্কিন নৌবাহিনীর জাহাজটির নাম ইউএএস ফিটজেরাল্ড এবং এটি ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপের ক্ষমতাসম্পন্ন ৫০৫ ফিট দীর্ঘ একটি ডেস্ট্রয়ার। বলা হচ্ছে, ধাক্কা লাগার ২৫ মিনিট আগে কনটেইনার জাহাজটি আকস্মিকভাবে দিক পরিবর্তন করেছিল, যার কারণ এখনো জানা যায় নি। মার্কিন ডেস্ট্রয়ারটি কোথায় যাচ্ছিল তাও জানা যায় নি।

তবে সেটি এখন ইয়োকোসুকা বন্দরে ফিরে এসেছে। এটি অতি উন্নত রাডার ব্যবস্থা সম্পন্ন একটি সর্বাধুনিক জাহাজ হলেও কি করে শান্ত সমুদ্রে এতবড় একটি কন্টেইনার জাহাজের সাথে ধাক্কা লাগলো সেটি নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে। অন্যদিকে ৩০ হাজার টন ওজনের ফিলিপিনো কন্টেইনার জাহাজটিও টোকিও বন্দরে ফিরে গেছে। এতে ২০ জন ক্রু ছিল ।

যে স্থানে সংঘর্ষ হয়েছে সেটি জাহাজ চলাচলের জন্য খুবই ব্যস্ততম এলাকা বলে পরিচিত। মার্কিন রণতরীর নাবিকরা কেন এই সংঘর্ষ এড়াতে ব্যর্থ হলো সেই নিয়ে বিভিন্ন প্রশ্ন দেখা দিয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

error: Content is protected !!