মুন্সীগঞ্জে ডাকাতি হওয়া চাল উদ্ধার

মুন্সিগঞ্জ সংবাদদাতা  : ঢাকার সাভার থেকে ৩৫০ বস্তা চুরি হওয়া চাল মুন্সীগঞ্জ ও ঢাকা গোয়েন্দা পুলিশের যৌথ অভিযানে ১১৮ বস্তা চাল উদ্ধার করা হয়েছে। গোপন সংবাদে শহরের বড় বাজার থেকে এসব চাল উদ্ধার করা হয়। ২৮ সেপ্টেম্বর সাভার থেকে চুরি হওয়া চাল ১৮ অক্টোবর গতকাল বুধবার সকালে উদ্ধারের সময় চারজনকে আটক করেছে গোয়েন্দা পুলিশ। আটককৃতরা হলো- শাহ আলম ট্রেডার্সের মো. শাহ-আলম, জাকির স্টোরের মো. জাকির, বিপ্লব স্টোরের আহসান মেম্বার ও সামি স্টোরের মো. সামি।

ঢাকা জেলা গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি) একটি ট্রিম ঢাকা সাভার এলাকায় গত ২৮ সেপ্টেম্বর ট্রাক ডাকাতি লুট হয় ৩৫০ বস্তা চাউল। পরে জাফর হোসেন নামের ব্যাক্তির দায়েরকৃত মামলায় নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লা থেকে গ্রেফতাকৃত আসামী মাসুদের দেওয়া তথ্যের আলোকে মুন্সীগঞ্জ শহরস্ত বাজারে অভিযান চালিয়ে কয়েকটি দোকান থেকে মামলায় উল্লেখিত মোজাম্মেল কোম্পানী স্টীকার লাগানো ১১৮ বস্তা চাউল উদ্ধার করা হয়। অভিযানে ঢাকা জেলা ডিবি পুলিশের ট্রিম পরিচলক ইন্সপেক্টর আবুল বাশারের নেতৃত্বে মুন্সীগঞ্জ সদর থানা পুলিশের সহায়তায় এই অভিযান চালানো হয়।

ঢাকা গোয়েন্দা বিভাগের উপ-পরিদর্শক মো. বাশার জানান, চুরি হওয়া ৩৫০ বস্তা চালের বস্তার সন্ধানে আমরা গোপনভাবে অভিযান চালিয়ে থাকি। এই ঘটনায় মাসুদ (৩২), ফরহাদ (২৮), একলাসকে (৩৫), আহসান উল্লাহ মেম্বারকে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। তাদের থেকে আমরা তথ্য পেয়ে নারায়ণগঞ্জে অভিযান চালাই। ফতুল্লার শিবু মার্কেট হাজীগঞ্জ এলাকা থেকে ৫৬ বস্তা চাল উদ্ধার করা হয়। মুন্সীগঞ্জ শহরের বড় বাজারে অভিযানে ১১৮ বস্তা চাল উদ্ধার করা হয়েছে। আটকদের সদর থানায় নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।

মুন্সীগঞ্জ বাজারের জাকির ষ্টোর, সামির ষ্টোর, বিপ্লব ষ্টোর, শাহআলম ষ্টোর। তাদের গোডাউন থেকে অভিযান চালিয়ে মোট ১১৮ বস্তা চাউল উদ্ধার করা হয় এবং তদন্তের স্বার্থে ঢাকা ডিবি পুলিশের ইন্সপেক্টর আবুল বাশার বলেন ঢাকা সাভার থানায় ঢাকাতি ও লুট হওয়া চাউল উদ্ধারের লক্ষ্যে আমাদের এই অভিযান। লুট হওয়া চাউল উদ্ধার না হওয়া পর্যন্ত আমাদের এই অভিযান অব্যাহত থাকবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

error: Content is protected !!