মাছ চুরির দায় কুমিল্লায় ভ্যানচালক হত্যার অভিযোগ

কুমিল্লা প্রতিনিধি : মাছ চুরির দায় দিয়ে এক ভ্যানচালককে পিটিয়ে ও বৈদ্যুতিক শক দিয়ে হত্যা করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। বুধবার কুমিল্লা জেলার নাঙ্গলকোট উপজেলার বাঙ্গড্ডা গ্রামের দক্ষিণ পাড়ায় এ ঘটনা ঘটে।
জানাগেছে, বাঙ্গড্ডা দিঘীর পশ্চিম পাশে একরামের মৎস্য খামার থেকে মাছ চুরির অভিযোগে মঙ্গলবার রাত সাড়ে ১১টার দিকে ওই মৎস্য খামারের মালিক হাজী একরাম, তার ছেলে শাহপরান ও তাদের সাঙ্গপাঙ্গরা মিলে একই গ্রামের মনিরুজ্জামানের ছেলে মো. রিপন ওরফে ভেন্ডারকে (২০) ধরে খামারের ভিতরে আটকে রেখে এলোপাতাড়ী পিটিয়ে ও বৈদ্যুতিক শক দিয়ে হত্যা করে। এরপর তার মরদেহটি ওই খামারের ষ্টোর রুমে তালাবদ্ধ করে রাখে। খবর পেয়ে রিপনের স্বজনরা তাকে আনতে গেলে হাজী একরাম ও তার ছেলে শাহপরানসহ অন্যান্যরা তাদের হুমকি দমকি দিয়ে তাড়িয়ে দেয়। তখন তার স্বজনদের জানানো হয় মাছ চুরির ঘটনার বিচার সকালে হবে এবং এরপর তাকে ছেড়ে দেয়া হবে। এ ঘটনার পর হাজী একরাম, তার ছেলে শাহপরান ও তাদের সাঙ্গপাঙ্গসহ ওই খামারের সব কর্মচারীরা পালিয়ে যায়। একপর্যায়ে এলাকাবাসী ও রিপনের স্বজনরা মিলে বুধবার সকালে রিপনকে উদ্ধার করতে গিয়ে ওই খামারের ষ্টোর রুমের তালা ভেঙ্গে ভিতরে প্রবেশ করে রিপনের মরদেহ দেখতে পায়। এসময় গ্রামবাসী স্থানীয় চেয়ারম্যান শাহাজাহান মজুমদার ও নাঙ্গলকোট থানায় খবর দেয়। বুধবার দুপুরে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে নিহত রিপনের সুরতহাল প্রতিবেদন করে লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে। এ প্রতিবেদন লেখার আগ মূহুর্ত পর্যন্ত লাশ ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হয়নি।
এ বিষয়ে জানতে চাইলে নাঙ্গলকোট থানার পরিদর্শক (তদন্ত) আশ্রাফুল ইসলাম বলেন, পুলিশ খবর পেয়ে নিহত রিপনের লাশ উদ্ধার করে থানায় রাখা হয়েছে। মরদেহটি ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানোর প্রক্রিয়া চলছে। এ ঘটনায় নিহতের পরিবারের পক্ষে নাঙ্গলকোট থানায় হত্যা মামলা দায়েরের পক্রিয়াও চলছে বলে জানান তিনি।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

error: Content is protected !!