ভাতের পাতে শুঁটকি

ডেস্ক রিপোর্ট : মাছে-ভাতে বাঙালি। শুঁটকিও আমাদের কম প্রিয় নয়। শুকানো মাছের এই উপকরণের আলাদা কদর আছে। বৈশাখের খাবার তালিকায় রাখতে পারেন শুঁটকি। করতে পারেন ভুনা। মানসুরা হোসেনের সহায়তায় এমন দুটি খাবারের প্রস্তুত প্রণালি জানিয়েছেন উদরাজী রান্নাঘরের প্রতিষ্ঠাতা রান্নাপ্রেমী সাহাদাত উদরাজী।

লইট্টা শুঁটকি ভুনা

উপকরণ

লইট্টা শুঁটকি: ২৫০ গ্রাম

রসুন ফালি: ১৫ কোষ

পেঁয়াজ কুচি: চারটি থেকে কুচি করতে হবে

রসুন: দুই টেবিল চামচ (বাটা)

হলুদ গুঁড়া: ১ চা চামচ

মরিচ গুঁড়া: ১ চা চামচ

কাঁচামরিচ: ৫-৬টি

লবণ: স্বাদমতো

সয়াবিন তেল: আধা কাপ

বোম্বাই মরিচ: ঝাল বুঝে

প্রণালি

লইট্টা টুকরো করে গরম পানিতে ধুয়ে নিন। এবার এগুলো পরে ছেঁচে নিন। অথবা আস্ত টুকরোও রাখতে পারেন। প্রথমে কড়াইতে তেল গরম করে সামান্য লবণ দিয়ে শুঁটকি ভাজুন। ভাজা ভাজা হলে রসুনের কোষ দিয়ে দিন। যোগ করুন বাটা রসুন। সব নেড়ে মিশিয়ে দিন। ভাজতে থাকুন। এবার পেঁয়াজ কুচি ও কাঁচামরিচ দিয়ে দিন। আবার নেড়েচেড়ে ভাজুন। এরপর হলুদ, মরিচ গুঁড়া যোগ করুন। এগুলো খুন্তি দিয়ে মিশিয়ে দিন। ভাজতে থাকুন। ভাজা ভাজা হলে সামান্য পানি দিন। আগুন কিছুটা বাড়িয়ে দিতে পারেন। এবার ঢাকনা দিয়ে আঁচে রাখতে পারেন। মাঝেমধ্যে নেড়ে দিন। এভাবে পানি শুকিয়ে এলে পরিবেশনের জন্য তৈরি হয়ে যাবে লইট্টা শুঁটকি ভুনা। তবে নামানোর আগে লবণ দেখে নিন। এছাড়া ছিটিয়ে দিতে পারেন ধনে পাতা।

ঝাল ঝাল ছুরি শুঁটকি ভুনা

উপকরণ

ছুরি শুঁটকি: ২৫০ গ্রাম

রসুন ফালি: ১৫ কোষ

পেঁয়াজ কুচি: মাঝারি চারটির কুচি

রসুন বাটা: দুই টেবিল চামচ

হলুদ গুঁড়া: ১ চা চামচ

মরিচ গুঁড়া: ১ চা চামচ

কাঁচামরিচ: পাঁচটি

লবণ: স্বাদমতো

সয়াবিন তেল: আধা কাপ

বোম্বাই মরিচ: ঝাল বুঝে

প্রণালি

ছুরি শুঁটকি টুকরো টুকরো করে নিন। শুঁটকি ধুয়ে কুসুম গরম পানিতে কিছু সময় ভিজিয়ে রাখতে হয়। পরে তুলে ছেঁচে নিন। রান্না করার আগে হাতের কাছে মূল উপকরণগুলো প্রস্তুত রাখুন। কড়াই বা ফ্রাইপ্যানে তেল ভালো করে গরম করে নিতে হবে। এবার তেলে ছেঁচা শুঁটকিগুলো দিন। সামান্য সময় ভাজুন। এবার সামান্য লবণ দিন। নেড়েচেড়ে ভাজুন। রসুন বাটা দিন। পেঁয়াজ কুচি ও কাঁচামরিচ দিন। আগুন মাঝারি আঁচে থাকবে। ভালো করে ১০ মিনিট ভাজুন। এবার মরিচ গুঁড়া ও হলুদ গুঁড়া দিন। নেড়েচেড়ে ভাজতে থাকুন। ভাজা ভাজা হলে এক কাপ পানি দিন। আগুন মাঝারি আঁচে রাখুন। ঢাকনা দিয়ে দিন। মাঝেমধ্যে নাড়িয়ে দিতে হবে। ঝোল শুকালে লবণ চেখে দেখুন। দরকার হলে লবণ দিন। এবার আগুনের আঁচ খুব কম হবে। যদি ঝাল ঝাল খেতে চান বোম্বাই মরিচের কুচি যোগ করুন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

error: Content is protected !!