ফরহাদ মজহার রহস্যের উন্মোচন শিগগির: মোজাম্মেল

নিজস্ব প্রতিবেদক : কবি ও দার্শনিক ফরহাদ মজহারের কথিত অপহরণ রহস্য শিগগির উন্মোচন হবে বলে জানিয়েছেন মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক। তিনি বলেন, ‘বিষয়টি তদন্ত হচ্ছে। তবে আমরা যতটুকু জানি, তিনি ওইদিন সকালে এক মহিলার ফোন পেয়ে বাসা থেকে বেরিয়ে যান। পরে তিনি তার নাম পরিবর্তন করে খুলনা থেকে গফুর নামে গাড়ির টিকিট কাটেন।’
শুক্রবার সন্ধ্যায় টঙ্গীর মায়াবন কমিউনিটি সেন্টারে গাজীপুর মহানগর তাঁতী লীগ আয়োজিত সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি এসব কথা বলেন।
ফরহাদ মজহার গত সোমবার ভোরে রাজধানীর শ্যামলীর বাড়ি থেকে বের হওয়ার পর অপহৃত হন বলে থানায় অভিযোগ করে তার পরিবার। ১৮ ঘণ্টা পর যশোরে ঢাকাগামী একটি বাস থেকে তাকে উদ্ধার করে র‌্যাব ও পুলিশ। পরে তাকে আদালতে তোলা হয়। বিচারক তাকে নিজ জিম্মায় মুচলেকা নিয়ে মুক্তি দিয়েছেন।
মুক্তি পাওয়ার পরপরই ফরহাদ মজহারকে রাজধানীর বারডেম হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তিনি এখনো সাংবাদিকদের সঙ্গে সরাসরি কথা বলেননি। তার উদ্ধৃতি দিয়ে পুলিশ বিভিন্ন তথ্য দিয়েছে। বিষয়টি নিয়ে ব্যাপক আলোচনা হচ্ছে। তবে ফরহাদ মজহারের বক্তব্য না পাওয়ায় তার কথিত অপহরণের বিষয়টি এখনো রহস্যই রয়ে গেছে।
আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচন নিয়ে বিএনপির বিভিন্ন মন্তব্যের কড়া সমালোচনা করেন মুক্তিযুদ্ধ বিষয় মন্ত্রী মন্ত্রী। বলেন, ‘বিএনপি কখন কী বলে তারা নিজেরাও জানে না।’
মোজাম্মেল হক বলেন, ‘দেশে হত্যা, খুন ও গুমের রাজনীতি বিএনপিই শুরু করেছিল। তারা আহসান উল্লাহ মাস্টার, এএসএম কিবরিয়া, মাইজুদ্দিন আহমেদকে প্রকাশ্যে হত্যা করেছিল।’
মন্ত্রী বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রীর দুই সন্তান দেশের সম্মান বয়ে আনছে। আর খালেদা জিয়ার সন্তানরা চুরিতে চ্যাম্পিয়ান হয়েছে।’
মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী বলেন, ‘খালেদা জিয়া জরিমানা দিয়ে কালো টাকা বৈধ করেছেন। তাদের চুরি করে খাওয়ার অভ্যাস রয়েছে। তা আদালতে প্রমাণিত হয়েছে।’
সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটির আহ্বায়ক শাহ মো. আমানের সভাপতিত্বে ও সদস্য সচিব মো. শাহ আলমের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেন মহিলা ও শিশু বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী মেহের আফরোজ চুমকি, যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি মো. জাহিদ আহসান রাসেল।
এতে আরও বক্তব্য দেন তাঁতী লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি ইঞ্জিনিয়ার মো. শওকত আলী, সাধারণ সম্পাদক খগেন্দ্র চন্দ্র দেবনাথ, গাজীপুর জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মো. আক্তারুজ্জামান, গাজীপুর মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট আজমত উল্লা খান, সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট জাহাঙ্গীর আলম, গাজীপুর সিটি করপোরেশনের ভারপ্রাপ্ত মেয়র আসাদুর রহমান কিরন, মতিউর রহমান মতি, সাধনা দাশ গুপ্তা প্রমুখ

Leave a Reply

Your email address will not be published.

error: Content is protected !!