1. redsunbangladesh@yahoo.com : admin : Tofauil mahmaud
  2. mdbahar2348@gmail.com : Bahar Bhuiyan : Bahar Bhuiyan
  3. sharifnews24@gmail.com : sharif ahmed : sharif ahmed
শুক্রবার, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১২:০৪ পূর্বাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ :
ব্যাংক হিসাব চাওয়া নিয়ে সাংবা‌দিক ‌নেতা‌দের উদ্বিগ্ন হওয়ার কিছু নেই….তথ‌্যমন্ত্রী সিলেটে সাংবাদিকের বিরুদ্ধে বাবরের মিথ্যা মামলার প্রতিবাদে সার্চের মানববন্ধন অনুষ্ঠিত। আফগানিস্তানে নারী শিক্ষা কুমিল্লা-৭ আসনের উপ-নির্বাচনে প্রার্থীর মনোনয়নপত্র জমা বিদেশ থেকে আপত্তিকর প্রতিবেদন প্রকাশ করলে ব্যবস্থা…তথ্যমন্ত্রী নবম-দশম শ্রেণিতে থাকছে না কোনো বিভাগ….শিক্ষামন্ত্রী নাঙ্গলকোটে ৪ ছাত্রলীগ নেতার বিরুদ্ধে মামলা প্রত্যাহারের দাবীতে মানববন্ধন ডিসেম্বরের মধ্যে ২০ কোটি ডোজ টিকা আসবে নাঙ্গলকোটে দুই স্কুলের ৪ তলা ২ ভবন টেলিকন্ফারেন্সের টেলিকন্ফারেন্সের উদ্বোধন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মোস্তফা কামাল লোটাস নাঙ্গলকোটে নববধূ ধর্ষণ স্বামীকে হত্যার অভিযোগ, আটক-১

নানা সমস্যায় জর্জরিত হরিণাকুন্ডু স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স হাসপাতালটি এখন নিজেই রোগী

রিপোর্টারের নাম :
  • প্রকাশিত : শনিবার, ৫ মে, ২০১৮
  • ৩৯ বার পড়া হয়েছে

ঝিনাইদহ সংবাদদাতা : ডাক্তার নেই কর্মচারী সংকট। পাওয়া যায় না রোগীর ওষুধ। সর্বক্ষেত্রে নেই নেই দশা ঝিনাইদহের হরিণাকুন্ডু উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের। ৩০ জন ডাক্তারের মধ্যে আছে মাত্র ৬ জন। এভাবে কি জোড়াতালি দিয়ে হাসপাতাল চলে? চিকিৎসা নিতে আসা রোগীরা অহরহ এমন প্রশ্ন করলেও কোন সমাধান নেই।
খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, ১৩ বছর আগে ২০০৫ সালের ১৭ মে চিকিৎসা সেবার মান বৃদ্ধির জন্য উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সটি ৩১ শয্যা থেকে ৫০ শয্যায় উন্নীত করা হয়। কাগজ কলমেই স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সটি ৫০ শয্যায় উন্নীত হয়েছে, কিন্তু পরিপূর্ণ সুযোগ সুবিধার বিন্দুমাত্র ছোয়া লাগেনি। হরিণাকুন্ডু উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সটিতে ৩০ জন ডাক্তারের পদ থাকলেও কর্মরত মাত্র ৬ জন চিকিৎসক। ১০ জন কনসালটেন্ট ডাক্তারের স্থলে কর্মরত আছেন মাত্র ১ জন। উপজেলার প্রায় ৪ লাখ মানুষের চিকিৎসার জন্য ৬ জন চিকিৎসক বড়ই অপ্রতুল। হিসেব মতে ৬৬ হাজার মানুষের জন্য মাত্র একজন করে চিকিৎসক নিয়োজিত। এছাড়াও হাসপাতালটির গুরুত্বপূর্ণ স্বাস্থ্য সহকারীর ২৯টি পদের বিপরীতে ২১ জন কর্মরত থাকলেও এর মধ্যে ৬ জন এস.আই.টি কোর্সে ঝিনাইদহে অধ্যয়নরত। ৫ জন পরিচ্ছন্নতা কর্মীর মধ্যে কর্মরত আছে মাত্র ২ জন। ফলে প্রতিনিয়তই উন্নত চিকিৎসা সেবা থেকে বঞ্চিত হচ্ছে মানুষ। হাসপাতালটিতে রয়েছে অবকাঠামগত সমস্যা। হাসপাতালটির সীমানা প্রাচীর ভাঙ্গা থাকায় অরক্ষিত হয়ে পড়েছে নিরাপত্তা। সামান্য বৃষ্টিতেই তলিযে যায় হাসপাতাল চত্ত্বর। ড্রেনেজ ব্যবস্থা না থাকায় বর্ষা মৌসুমে এখানে সৃষ্ট হয় জলাবদ্ধতা। এরপরও রয়েছে হাসপাতাল চত্ত্বরে সাধারণ মানুষের গরু ছাগল চরানো ও বখাটের উপদ্রব। নানা সমস্যায় জর্জরিত হাসপাতালটি এখন নিজেই রোগী। বিষয়টি নিয়ে উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডাক্তার জামিনুর রশিদ জানান, ডাক্তার সংকটসহ বিভিন্ন সমস্যার বিষয়ে বার বার উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষকে অবহিত করা হলেও ফল হয়না। মাঝে মাঝে কিছু চিকিৎসক দেওয়া হলেও কিছু দিন যেতে না যেতেই মফস্বল এলাকা হওয়ার কারণে তারাও তদবির করে বদলী হয়ে চলে যায় অন্যত্র।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

আরো সংবাদ পড়ুন

—-সম্পাদক মন্ডলীর

সম্পাদকও প্রকাশক: তোফায়েল মাহমুদ ভূঁইয়া (বাহার)
ব্যাবস্থাপনা সম্পাদক: হাজী মোঃ সাইফুল ইসলাম
সহ-সম্পাদক: কামরুল হাসান রোকন
বার্তা সম্পাদক: শরীফ আহমেদ মজুমদার
নির্বাহী সম্পাদক: মোসা:আমেনা বেগম

উপদেষ্টা মন্ডলীর

সভাপতি মোহাম্মদ ইকবাল হোসেন মজুমদার,
প্রধান উপদেষ্টা :
উপদেষ্টা : জাকির হোসেন মজুমদার,
উপদেষ্টা : এ এস এম আনার উল্লাহ বাবলু ,
উপদেষ্টা : শাকিল মোল্লা,
উপদেষ্টা : অবসরপ্রাপ্ত জামিল আর্মি,

Copyright © 2020 www.comillabd.com কুমিল্লাবিডি ডট কম. All rights reserved.
প্রযুক্তি সহায়তায় মাল্টিকেয়ার
error: Content is protected !!