নাঙ্গলকোটে পানি উন্নয়ন বোর্ডের ঠিকাদারের বিরুদ্ধে মানববন্ধন

বাহার ভূইয়া :    কুমিল্লার নাঙ্গলকোটে পানি উন্নয়ন বোর্ডের ঠিকাদারের বিরুদ্ধে গাগৈর খাল খননের নামে কৃষকদের ব্যাপক ফসলি জমির ক্ষতি এবং বৃক্ষ নিধনের বিরুদ্ধে এলাকাবাসীর উদ্যোগে বাংগড্ডা ইউনিয়নের কাকৈরতলা বাজারের র্পুব পাশে খালের পাড়ে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করা হয়েছে । এসময় কয়েক‘শ কৃষক তাদের শত-শত হেক্টর জমির ইরি-বোরো ধান এবং বৃক্ষ রক্ষায় মানববন্ধনে অংশগ্রহণ করেন। মানববন্ধন শেষে বক্তব্য রাখেন, কাদবা গ্রামের মাঈন উদ্দিন বি,কম, আমির হোসেন, সাবেক মেম্বার মাওলানা ইউনুস। তারা বলেন, পানী উন্নয়ন বোর্ডের কর্মকর্তা ভ্যাকু মেশিন দিয়ে খাল খনন করেন। কিন্তু তারা কৃষকদের কয়েক শ, শতক জায়গার পাকা ধান মাটি দিয়ে নষ্ট করে ফেলেন। তাদেরকে বার বার নিষেধ করলেও কৃষকদের কথায় কর্নপাত করেন নাই। কৃষকরা সরকারের কাছে ক্ষতি পুরনের দাবী করেন। মানববন্ধনে আরও উপস্থিত ছিলেন, নোয়াপাড়া গ্রামের মানিক, কাদবা গ্রামের আবুল বসর সহ কয়েক কৃষক। এর আগে উপজেলার বাঙ্গড্ডা ইউনিয়নের কাদবা গ্রামের হারুন তালুকদার পানি উন্নয়ন বোর্ডে একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।
অভিযোগ সুত্রে জানা যায়, পানি উন্নয়ন বোর্ড উপজেলার বাঙ্গড্ডা ইউনিয়নের নুরপুর থেকে শুরু করে পেড়িয়া ইউনিয়নের কৈয়া পর্যন্ত গাগৈর খাল খননের উদ্যোগ নেন। ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান ভ্যাকু মেশিন দিয়ে নুরপুর থেকে ছোটস্বাঙ্গিশ্বর, বড়স্বাঙ্গিশ্বর ও নোয়াপাড়া হয়ে কাকৈরতলা পর্যন্ত খাল খনন করেন।
কিন্তু ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানটি কোন নিয়ম নীতির তোয়াক্কা না করে ভ্যাকু মেশিন দিয়ে খাল থেকে মাটি কেটে খালের দু‘পাশের কৃষকদের শত-শত হেক্টর জমির ইরি-বোরো ধানের উপর মাটি ফেলছেন এবং খালের পাড়ের কয়েক হাজার বৃক্ষ নিধন করেন। এতে করে কৃষকদের চলতি ইরি-বোরো ধানের ব্যাপক ক্ষতিসহ কয়েক হাজার বৃক্ষ নিধনের ফলে কৃষকদের লাখ-লাখ টাকার ক্ষতির সম্মূখীন হতে হচ্ছে। এতে করে কৃষকরা তাদের ইরি-বোরো ধান ধ্বংস এবং বৃক্ষ নিধনের ফলে ক্ষতির সম্মুখীন হয়ে দিশেহারা হয়ে পড়েছেন।

error: Content is protected !!