ত্রাসের রাজত্ব কায়েম করেছে শাসকগোষ্ঠী : ফখরুল

নিজস্ব প্রতিবেদক : বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, দেশব্যাপী ত্রাসের রাজত্ব কায়েম করেছে বর্তমান শাসকগোষ্ঠী। শহর থেকে গ্রাম সর্বত্রই আওয়ামী সন্ত্রাসীদের অস্ত্রের ঝনঝনানিতে দেশবাসী এক ভীতিকর অবস্থার মধ্যে বসবাস করছে।
মঙ্গলবার এক বিবৃতিতে এ কথা বলেন মির্জা ফখরুল।
তিনি বলেন, ‘এই সরকার ক্ষমতা থেকে সরে না দাঁড়ানো পর্যন্ত এদেশের মানুষের নাগরিক স্বাধীনতা ফিরে আসবে না।’
তিনি অভিযোগ করেন, ‘মুন্সীগঞ্জ জেলাধীন লৌহজং থানার মেদেনী মন্ডল ইউনিয়ন বিএনপির কার্যালয়সহ আসবাবপত্র ভেঙে দিয়েছে আওয়ামী সন্ত্রাসীরা। এ ছাড়া সন্ত্রাসীরা ইউনিয়ন বিএনপির সাধারণ সম্পাদক মহিউদ্দিন আহমেদসহ নেতা-কর্মীদের বাড়িতে হামলা, ভয়ভীতি প্রদর্শন, এলাকায় বিএনপির রাজনীতি না করার হুমকি এবং পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে অশালীন আচরণ করেছে।’
বিএনপি নেতা সাইদুল ও ছাত্রনেতা রনিকে ব্যাপক মারধর করেছে বলেও বিবৃতিতে উল্লেখ করেন তিনি।
বিএনপি মহাসচিব বলেন, ‘বিএনপিসহ দেশের বিরোধীদলগুলোকে নিশ্চিহ্ন করার মহাপরিকল্পনার অংশ হিসেবেই কার্যালয় ও বাড়িঘরে হামলাসহ নেতা-কর্মীদেরকে ব্যাপক মারধর করেছে আওয়ামী গুণ্ডাবাহিনী।’
‘পুরো দেশে আওয়ামী একচ্ছত্র আধিপত্য বিস্তারের জন্য এবং রাষ্ট্রক্ষমতা দীর্ঘস্থায়ী করার জঘন্য মনোবৃত্তি নিয়ে এখন দেশব্যাপী ত্রাসের রাজত্ব কায়েম করেছে বর্তমান শাসকগোষ্ঠী। শহর থেকে গ্রাম সর্বত্রই আওয়ামী সন্ত্রাসীদের অস্ত্রের ঝনঝনানিতে দেশবাসী এক ভীতিকর অবস্থার মধ্যে বসবাস করছে।”
মির্জা ফখরুল বলেন, ‘মিথ্যার ফুলঝুরি দিয়ে জনগণকে বিভ্রান্ত করার পাশাপাশি হত্যা, গুম, অপহরণ, বিচার বহির্ভূত হত্যাকাণ্ড চালিয়ে দেশটাকে এখন নরকে রূপান্তরিত করেছে বর্তমান ভোটারবিহীন সরকার। মেদেনী মন্ডল ইউনিয়ন বিএনপির নেতা-কর্মীদের ওপর যে তাণ্ডবলীলা চালিয়েছে তাতে আবারও প্রমাণিত হলো আওয়ামী লীগ সন্ত্রাসনির্ভর একটি রাজনৈতিক দল।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

error: Content is protected !!