জাতীয় পার্টিকে ক্ষমতায় দেখে মরতে চাই: এরশাদ

নিজস্ব প্রতিবেদক : জাতীয় পার্টি ক্ষমতায় না আসার আগে পৃথিবীতে ছেড়ে যেতে চান না জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ। তিনি বলেন, ‘আমি জাতীয় পার্টিকে ক্ষমতায় আনার পরে মরতে চাই। সব কিছু আল্লাহ ওপর নির্ভর করে।’
বৃহস্পতিবার রাজধানীর বনানীতে দলের কার্যালয়ে যশোরের ইসলামী ঐক্যজোটের নেতা হাকীম মুফ্তি ফিরোজ শাহর জাতীয় পার্টিতে যোগদান অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন তিনি। ৮৭ জন সমর্থক নিয়ে মুফ্তি ফিরোজ জাপা চেয়ারম্যানের হাতে ফুল দিয়ে দলে যোগ দেন।
১৯৩০ সালে জন্ম নেয়া এরশাদের এখন বয়স ৮৭। তার বয়সের অন্য নেতাদের তুলনায় তিনি এখনও শারীরিক দিক থেকে অনেক বেশি শক্তিশালী। শরীর টিকিয়ে রাখতে এরশাদ অনেক সচেতন। তিনি পরিমিত খাবার গ্রহণের পাশাপাশি নিয়মিত শরীর চর্চাও করে থাকেন।
এরশাদ বলেন, ‘আমি নিজেকে যুবক ভাবি। অনেকে বলে আমার বয়স ৪০ বছর। তার কারণ আমি যখন গ্রামে যাই, মহিলারা দেখতে আসে। তারা বলে উনার এতো বয়স মনে হয় না। ওইটাই প্রমাণ করতে চায় আমার বয়স হয়নি। আমি জাতীয় পার্টিকে ক্ষমতায় আনার পরে মরতে চাই। সব কিছু আল্লাহ ওপর নির্ভর করে।’
জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান বলেন, ‘আমার মনে মধ্যে শক্তি আছে। আমি সুস্থ আছি সারা দেশ চষে বেড়াচ্ছি। বার্ধক্য আমাকে স্পর্শ করেনি।’
দেশে শান্তি ও মানুষের ভাগ্য পরিবর্তনের জন্য জাতীয় পার্টিকে আবার ক্ষমতায় আনতে হবে এমনটি জানিয়ে এরশাদ বলেন, আগামী দিনে জাতীয় পার্টি ছাড়া আর কোনো রাজনৈতিক শক্তি দেশকে সুষ্ঠুভাবে পরিচালনা করতে পারবে না এমন বুঝে বিভিন্ন দল ও মতের মানুষ এখন জাতীয় পার্টির পতাকাতলে আসতে শুরু করেছেন।
দেশে বিপর্যয় নেমে এসেছে এমনটা দাবি করে জাপা চেয়ারম্যান বলেন, ‘দেশে মানুষের জীবনের কোনও নিরাপত্তা নেই। প্রতিদিন খুন-গুমের ঘটনা ঘটেই যাচ্ছে। দুর্ঘটনা ও প্রাকৃতিক দুর্যোগে মানুষ মারা যাচ্ছে। সাধারণ মানুষ অসহায়ভাবে জীবন-যাপন করছে। অথচ তাদের পাশে দাঁড়ানোর কেউ নেই।’
জাতীয় পার্টির সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ও খুলনা বিভাগীয় সমন্বয়কারী সুনীল শুভ রায়ের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আনও বক্তব্য দেন, জাতীয় পার্টির মহাসচিব এ বি এম রুহুল আমিন হাওলাদার, সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য খালেদ আখতার, পার্টির সাংগঠনিক সম্পাদক শরিফুল ইসলাম সরু চৌধুরী প্রমুখ।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

error: Content is protected !!