খুলনায় প্রিপেইড মিটারের বিদ্যুৎ কিনতে গ্রাহকদের ভোগান্তি, কর্তারা বলছেন সার্ভার সমস্যা

চৈতী জামান, খুলনা থেকে : প্রিপেইড মিটারের বিদ্যুৎ কিনতে গিয়ে ভোগান্তির শিকার হচ্ছেন খুলনার বিদ্যুৎ গ্রাহকেরা। অফিস থেকে বলা হচ্ছে সার্ভার সমস্যা।
প্রাপ্ত তথ্যে জানা যায়, ব্যক্তিগত অন্যান্য কাজ ফেলে বিদ্যুৎ কিনতে গিয়ে নগরবাসী চরমভাবে ভোগান্তির শিকার হচ্ছেন। বিদ্যুৎ বিক্রয় কাজে নিয়জিতরা বলছেন সার্ভার সমস্যা। প্রায় প্রতিনিয়ত এই সার্ভার সমস্যার অজুহাত দিয়ে বলা হচ্ছে বেলা ৩ টা বা আগামীকাল আসেন। দীর্ঘ সময় লাইনে দাড়িয়ে থেকে অত:পর জানা গেল এখন হবে না বিকালে আসতে হবে, বলছিলেন রাবেয়া বেগম। তিনি নিরালা থেকে এসেছিলেন গল্লামারী আল-আরাফাহ ব্যাংকে বিদ্যুৎ কিনতে । তিনি অভিযোগ করে বলেন, একবারের কাজ দু’বার এসে করতে হয়, তাও আবার দীর্ঘ সময় দাড়িয়ে থাকার পর আসল সত্যটা জানা যায়। তিনি আরও বলেন, সার্ভার সমস্যার কথা আগেও বলা হয়েছে। রাবেয়া বেগমের মত আরও অনেক মহিলার অভিযোগ একই। নিরালা আবাসিক এলাকা থেকে আসা অর্পা নামের অপর এক মহিলা বলেন, ঘরে দেড় মাসের বাচ্চা গরমে ছটফট করছে। বিদ্যুৎ কিনতে এসে জানতে পারলাম এখন হবে না, বিকালে আসতে হবে। বলুনতো ঘরে এত ছোট বাচ্চা রেখে কি বার বার বাইরে আসা যায়? তা ছাড়া যাওয়া আসার খরচ একবারের জায়গায় দু’বার হচ্ছে। আমরা এটাকা গচ্চা দিব কেন? আর হয়রানির শিকার হব কেন? মহিলাদের লাইন ছাড়াও পুরুষদের রয়েছে দীর্ঘ লাইন। তারাও একই অভিযোগ তুলে বলেন, অফিসের কাজের ফাঁকে এসেছি বিদ্যুৎ কিনতে। আগাম টাকা দিয়ে বিদ্যুৎ কিনব তাতেও ভোগান্তি? খুলনা মহানগরীর অন্যান্য বিক্রয় কেন্দ্রগুলোতেও একই অভিযোগ শোনা যায়। প্রত্যেকটা বিক্রয় কেন্দ্রগুলো বলছে সার্ভার সমস্যা। কেন এই সার্ভার সমস্যা? টেকনিক্যাল যন্ত্রপাতির অভাব? নাকি টেকনিশিয়ানদের প্রয়োজনীয় প্রশিক্ষনের অভাব? সংশ্লিষ্ট প্রশাসনের সেটা খতিয়ে দেখা দরকার বলে মনে করছেন ভুক্তভোগী মহল ।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

error: Content is protected !!