কুমিল্লায় এক মুক্তিযোদ্ধার প্রতিবন্ধী মেয়েকে ধর্ষণ

কুমিল্লা প্রতিনিধি : কুমিল্লায় বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে হতদরিদ্র এক মুক্তিযোদ্ধার প্রতিবন্ধী মেয়েকে ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। বর্তমানে ওই যুবতী পাঁচ মাসের অন্তঃসত্ত্বা। জেলার মুরাদনগর উপজেলার ডালপা গ্রামে এ ঘটনা ঘটেছে। এদিকে প্রভাবশালী ধর্ষকের হুমকির মুখে ধর্ষিতার পরিবার গ্রাম ছেড়ে বিভিন্ন স্থানে পালিয়ে বেড়াচ্ছে বলে এলাকাবাসী জানিয়েছেন।
জানা যায়, হতদরিদ্র ওই মুক্তিযোদ্ধার ২০ বছর বয়সী প্রতিবন্ধী মেয়েকে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে একই গ্রামের প্রতারক জানু মিয়া (৫০) শারীরিক সম্পর্ক গড়ে তোলে। এতে সে অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়লে জানু মিয়াকে বিয়ের জন্য চাপ দেওয়া হয়। কিন্তু এতে সে নানা টালবাহানা করে। বিষয়টি এলাকায় জানাজানি হলে স্থানীয় ইউপি সদস্যসহ এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিরা জানু মিয়াকে সামাজিকভাবে বিষয়টি সুরাহার জন্য চাপ প্রয়োগ করেন। এতে কর্ণপাত করেনি সে। এর পর থেকে ধর্ষিতার পরিবারকে নানাভাবে হুমকি দিয়ে আসছে বলে জানিয়েছেন ভুক্তভোগী পরিবার। ইউপি সদস্য জালাল আহাম্মেদ জানান, আমরা বিষয়টি সুরাহা করার জন্য ধর্ষক জানু মিয়াকে চাপ দিলে সে আত্মগোপনে চলে যায়।
ওই মুক্তিযোদ্ধা জানান, বিচারের জন্য বিভিন্নজনের কাছে গিয়েছি; কিন্তু এ পর্যন্ত কোনো বিচার পাইনি। অভাবের সংসার। টাকার অভাবে আমি কোথাও অভিযোগও করতে পারছি না, তাই বিচারও পাচ্ছি না।এ বিষয়ে বাঙ্গরা থানার ওসি মনোয়ার হোসেন বলেন, ঘটনাটি জানতে পেরে ধর্ষিতার পরিবারকে থানায় এসে মামলা দেওয়ার জন্য অনুরোধ করেছি; কিন্তু তারা থানায় আসেননি। তবে ভিকটিমের পরিবার অভিযোগ না করলেও আমরা অভিযুক্তকে আটকের চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

error: Content is protected !!