কুমিল্লার নাঙ্গলকোটে গরু চুরির হিড়িক

বাহার ভূঁইয়া :  কুমিল্লার নাঙ্গলকোটে গরু চুরির হিড়িক পড়েছে। প্রতিদিন বিভিন্ন গ্রামে গরু চুরির খবর পাওয়া যাচ্ছে। কৃষকরা রাতজেগে গোয়াল ঘরে গরু পাহারা দিয়েও তাদের গরু রক্ষা করতে পারছেন না। গরু হারিয়ে কৃষকরা নিঃস্ব হয়ে পড়েছেন। গত এক মাসে উপজেলার বাঙ্গড্ডা ও পেড়িয়া ইউনিয়নের বিভিন্ন গ্রাম থেকে কৃষকদের ৬/৭টি গরু চুরির খবর পাওয়া গেছে। এতে কৃষকদের প্রায় সাড়ে ৪লাখ টাকা ক্ষতি হয় বলে ক্ষতিগ্রস্তরা জানান ।
স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, গত শনিবার রাতে বাঙ্গড্ডা ইউপির নোয়াপাড়া গ্রামের কামাল হোসেনের ৬০ হাজার টাকা দামের একটি গরু চুরি হয়েছে। শুক্রবার রাতে উপজেলার কাকৈরতলা গ্রামের ফয়েজের একটি গাভী চুরি হয়। যার আনুমানিক মূল্য প্রায় ৭৫ হাজার টাকা। ওই দিন রাতে একই গ্রামের মালেকের ২টি ছাগল চুরি হয়। যার আনুমানিক মুল্য প্রায় ১৫হাজার টাকা। একইদিন রাতে মুন্সিরকলমিয়া গ্রামের আবুল খায়েরের গোয়াল ঘরে চোরের দল হানা দেয়। পরে মালিকের উপস্থিতি টের পেয়ে চোরের দল পালিয়ে যায়।
গত ৪/৫দিন পূর্বে মুন্সিরকলমিয়া চতলিয়াপাড়ার আবু তাহেরের ২টি গরু চুরি হয়। যার আনুমানিক মুল্য প্রায় ১ লাখ টাকা। গত ১০/১২দিন পূর্বে বাঙ্গড্ডা নোয়াপাড়া গ্রামের মানিক মিয়ার ১টি গরু ও করের ভোমরা গ্রামের জয়নালের ২টি গরু চুরি হয়। ৩টি গরুর আনুমানিক মূল্য প্রায় দেড় লাখ টাকা।
কাকৈরতলা গ্রামের কৃষক দ্বীন মোহাম্মদ জানান, প্রতিদিন রাতে চোরের দল কৃষকদের ঘরে হানা দিচ্ছে। শুক্রবার রাতে তার ছোট ভাই ফয়েজের বাছুরসহ একটি গাভী চুরি হয়। তিনি চুরি বন্ধে প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেন ।
এবিষয়ে শনিবার রাতে নাঙ্গলকোট থানার উপ-পরিদর্শক (এস আই) আনোয়ার হোসেন খন্দকার বলেন, চুরি বন্ধে পুলিশি কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছি। টহল পুলিশ নিয়মিত দায়িত্ব পালন করছেন।

 

error: Content is protected !!