কাতার সংকটে রেমিট্যান্স কমার আশঙ্কা অর্থনীতিবিদদের

কাতার সংকটে রেমিট্যান্স বা প্রবাসী আয় কমে যাওয়ার আশঙ্কা করছেন দেশের অর্থনীতিবিদরা। তারা বলছেন, চলমান কাতার সংকটের প্রভাব পড়তে পারে জনশক্তি রপ্তানিতে। এ ব্যাপারে সরকারের পদক্ষেপ কামনা করেন তারা।

আজ শনিবার রাজধানীর গুলশানের লেকশোর হোটেলে আয়োজিত এক বাজেট সংলাপে এমন আশঙ্কা প্রকাশ করেন তারা। সেন্টার ফর পলিসি ডায়ালগ আয়োজিত সংলাপে সঞ্চলনা করেন সংস্থাটির নির্বাহী পরিচালক ড. মোস্তাফিজুর রহমান।

বাজেট আলোচনায় সাবেক তত্ত্বাবধায়ক সরকারের উপদেষ্টা ড. আকবর আলী খান বলেন, ‘বর্তমানে আমাদের প্রবাসী আয় নেতিবাচক। তার ওপর কাতার সংকটের কারণে প্রবাসী আয় আরও কমে যেতে পারে।’

একই আশঙ্কা প্রকাশ করেন ব্যাংকার্স অ্যাসোসিয়েশনের সাবেক সভাপতি এবং মেঘনা ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক নুরুল আমীন। একই সঙ্গে তিনি বলেন, ‘বাড়তি আবগারি শুল্কের কারণে ব্যাংক আমানতে নেতিবাচক প্রভাব পড়বে। সব মিলিয়ে আগামী অর্থবছর নিয়ে আমরা শঙ্কায় রয়েছি।’

বেশ কিছুদিন ধরে রেমিট্যান্স প্রবাহ নেতিবাচক। তবে ঈদের কারণে গত মে মাসে রেমিট্যান্স প্রবাহ কিছুটা বেড়েছে। গত মাসে প্রবাসীরা ১২৬ কোটি ৭৬ লাখ ডলার রেমিট্যান্স পাঠিয়েছেন, যা ২০১৬-১৭ অর্থবছরের ১১ মাসের মধ্যে সবচেয়ে বেশি।

বাজেট আলোচনায় আরো উপস্থিত ছিলেন পরিকল্পনামন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল, অর্থ ও পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী এম এ মান্নান, সিপিডির চেয়ারম্যান রেহমান সোবহান, বিশেষ ফেলো দেবপ্রিয় ভট্টাচার্য্য প্রমুখ।

সন্ত্রাসী সংগঠনের সঙ্গে সম্পর্ক, সন্ত্রাসীদের অর্থায়ন ও আঞ্চলিক স্থিতিশীলতা নষ্টের অভিযোগ তুলে কাতারের সঙ্গে কূটনৈতিক ও ভ্রমণ সম্পর্ক ছিন্ন করেছে সৌদি আরব, আরব আমিরাত, বাহরাইন, ইয়েমেন, মিশর, লিবিয়া ও মালদ্বীপ । সৌদি আরব তার দেশের আকাশসীমা কাতারের জন্য নিষিদ্ধ ঘোষণা করেছে। আমদানিনির্ভর কাতারে খাদ্যসংকট ও খাদ্যপণ্যের দাম বাড়ার আশঙ্কা ইতিমধ্যে দেখা দিয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

error: Content is protected !!