1. redsunbangladesh@yahoo.com : admin : Tofauil mahmaud
  2. mdbahar2348@gmail.com : Bahar Bhuiyan : Bahar Bhuiyan
  3. mdmizanm944@gmail.com : Mizan Hawlader : Mizan Hawlader
বুধবার, ১৬ জুন ২০২১, ০৪:৩৫ পূর্বাহ্ন

ইংরেজিতে কুপোকাত রাজশাহী বোর্ড!

রিপোর্টারের নাম :
  • প্রকাশিত : রবিবার, ২৩ জুলাই, ২০১৭
  • ৪৬ বার পড়া হয়েছে

নিজস্ব প্রতিনিধি : এবার এইচএসসি পরীক্ষায় ফলাফলে বিপর্যয় ঘটেছে রাজশাহীর মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষাবোর্ডে। অবশ্য গত সাত বছর ধরেই নিম্নমুখী হচ্ছে বোর্ডের ফলাফল। ২০১১ সালে যেখানে বোর্ডের গড় পাসের হার ছিল ৭৯ দশমিক ০১ শতাংশ, সেখানে এ বছর এসে তা দাঁড়িয়েছে ৭১ দশমিক ৩০ শতাংশে। সাত বছরে পাসের হার কমেছে ৭ দশমিক ৭১ শতাংশ।শিক্ষাবোর্ডর কর্মকর্তারা বলছেন, এবার সবচেয়ে বেশি ফল খারাপ হয়েছে ইংরেজিতে। ইংরেজি ভীতির করণে এবারের পরীক্ষায় সবচেয়ে বেশি শিক্ষার্থী অকৃতকার্য হয়েছে এই বিষয়েই। শিক্ষাজীবন শুরু থেকে বিদেশী এই ভাষার প্রতি শিক্ষার্থীদের ভয়ের কারণে ফল বিপর্যয় হয়েছে। তাই ইংরেজি নিয়ে ভয় কাটাতে এবার নতুনভাবে কাজ করার ব্যাপারে চিন্তা করছে বোর্ড।বোর্ডের সাত বছরের পরিসংখ্যানে দেখা যায়, ২০১১ সালে রাজশাহী শিক্ষাবোর্ডে পাসের হার ছিল- ৭৯ দশমিক ০১ শতাংশ। ২০১২ সালে ছিল ৭৮ দশমিক ৪৪ শতাংশ। এরপর ২০১৩ সালে ৭৭ দশমিক ৬৯ শতাংশ, ২০১৪ সালে ৭৮ দশমিক ৫৫ শতাংশ, ২০১৫ সালে ৭৭ দশমিক ৫৪ শতাংশ, ২০১৬ সালে ৭৫ দশমিক ৪০ শতাংশ এবং সর্বশেষ এ বছর এসে দাঁড়িয়েছে ৭১ দশমিক ৩০ শতাংশে।এবারের এইচএসসি পরীক্ষা ফল বিশ্লেষণ করে দেখা গেছে, অনুষ্ঠিত এইচএসসি পরীক্ষায় কেবল এক বিষয়েই অকৃতকার্য হয়েছে ২৭ হাজার ৪৬১ জন শিক্ষার্থী। এর মধ্যে সবচেয়ে বেশি ধস নেমেছে ইংরেজি বিষয়ে। অথচ গতবারও এক বিষয়ে অকৃতকার্য পরীক্ষার্থীর সংখ্যা ছিলেন ১৭ হাজার ১১৩ জন। যা এবার ১০ হাজার বেড়ে দাঁড়িয়েছে ২৭ হাজার ৪৬১ জনে।আগের বছর এক বিষয়ে অকৃতকার্যের হার ছিল ১৪ দশমিক ৭৮ শতাংশ। এবার তা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ২২ দশমিক ৫৪ শতাংশে। ২০১১ সালে যা ছিল ১২ দশমিক ৩৯ শতাংশ। ফলে বাড়তে বাড়তে ২০১৭ সালে এসে যে সংখ্যায় ঠেকেছে তা দেখে এবার রীতিমতো চোখ কপালে উঠেছে শিক্ষাবোর্ড কর্মকর্তাদের।রাজশাহী শিক্ষাবোর্ডের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক প্রফেসর তরুণ কুমার সরকার বলেন, এখনকার শিক্ষার্থীদের মনের মধ্যে ছাত্রজীবনের শুরুতেই ইংরেজি ভীতি ভর করছে। এক-দুই পাতা ইংরেজি মুখস্থ করে পরীক্ষার খাতায় লেখাকে তারা অনেকেই অসাধ্য ভেবে ফেলছে। এজন্য আমরা শ্রেণিকক্ষে ইরেজি বিষয়ের সব সময়ই বেশি গুরুত্ব দিতে বলি। কিন্তু অধিকাংশ শিক্ষার্থীই তা গ্রহণ করতে চায় না।তাই এখন থেকে ইংরেজি বিষয়টিকে আরও গুরুত্ব দেওয়ার জন্য শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোতে নির্দেশনা পাঠানো হবে। তবে এ জন্য শিক্ষক-শিক্ষার্থী ছাড়াও অভিভাবকদের অধিকতর উদ্যোগী হতে হবে। ইংরেজি বিষয়ে সন্তানদের মধ্যে আগ্রহ সৃষ্টি করতে পারলে ভীতি কেটে যাবে বলে মনে করেন তিনি।রাজশাহী মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষাবোর্ডে এবার পাসের হার ৭১ দশমিক ৩০ শতাংশ। জিপিএ-৫ পেয়েছে ৫ হাজার ২৯৪ জন। সব বিষয়ে পাস করেছে ৮৬ হাজার ৮৭২ জন।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

আরো সংবাদ পড়ুন

—-সম্পাদক মন্ডলীর

সম্পাদকও প্রকাশক: তোফায়েল মাহমুদ ভূঁইয়া (বাহার
ব্যাবস্থাপনা সম্পাদক: হাজী মোঃ সাইফুল ইসলাম
সহ-সম্পাদক: কামরুল হাসান রোকন
বার্তা সম্পাদক: শরীফ আহমেদ মজুমদার
নির্বাহী সম্পাদক: মোসা:আমেনা বেগম

উপদেষ্টা মন্ডলীর

সভাপতি মোহাম্মদ ইকবাল হোসেন মজুমদার,
প্রধান উপদেষ্টা সাজ্জাদুল কবীর,
উপদেষ্টা জাকির হোসেন মজুমদার,
উপদেষ্টা এ এস এম আনার উল্লাহ বাবলু ,
উপদেষ্টা শাকিল মোল্লা,
উপদেষ্টা এম মিজানুর রহমান

Copyright © 2020 www.comillabd.com কুমিল্লাবিডি ডট কম. All rights reserved.
প্রযুক্তি সহায়তায় মাল্টিকেয়ার
error: Content is protected !!