আ.লীগকে ‘খুনির দল’ বলায় ফখরুলের বিচার শুরু

নিজস্ব প্রতিবেদক : প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ‘খুনি’ ও আওয়ামী লীগকে ‘খুনির দল’ বলার ঘটনায় করা মানহানির মামলায় বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের বিচার শুরুর আদেশ দিয়েছে ঢাকার একটি আদালত।
রবিবার ঢাকা মহানগর হাকিম নুর নবী বিএনপির এ নেতার অব্যাহতির আবেদন নাকচ করে তার বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠনের আদেশ দেন।
শুনানির সময় মির্জা ফখরুল আদালতে উপস্থিত ছিলেন। আদালত চার্জগঠনের পর আগামী ২৩ অক্টোবর সাক্ষ্য গ্রহণের দিন ঠিক করেন।
মির্জা ফখরুলের আইনজীবী বিএনপি নেতা জয়নুল আবেদীন মেজবাহ জানান, ২০১৪ সালের ১ সেপ্টেম্বর আওয়ামী মৎস্যজীবী লীগের সহ-সভাপতি এস এম নূর-ই-আলম সিদ্দিক এই মামলা দায়ের করেন। পরে এ মামলায় মির্জা ফখরুলকে অভিযুক্ত করে পুলিশ তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল করলে ২০১৫ সালের ২২ জানুয়ারি আদালত গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেন। পরে ওই বছর ২৯ সেপ্টেম্বর তিনি আদালতে হাজির হয়ে জামিন গ্রহণ করেন।
মামলার অভিযোগে বলা হয়, গত ২৪ অগাস্ট পল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, ‘আমরা বলতে চাই, সমগ্র জাতি জানে গণতান্ত্রিক আন্দোলনে নভেম্বর থেকে জানুয়ারি মাসে শেখ হাসিনার পেটোয়া বাহিনী পাঁচ শতাধিক আন্দোলনরত নেতা-কর্মীকে র‌্যাব-পুলিশকে দিয়ে হত্যা করেছে। ৬৫ জনকে গুম করা হয়েছে। শেখ হসিনা নিজে খুনি, তার দল খুনের দল। শত শত নিরীহ তরুণের রক্তে তার হাত রঞ্জিত’।
বিএনপি নেতার এই বক্তব্য ওই দিন বিভিন্ন ইলেকট্রনিক মিডিয়ায় ও অনলাইনে এবং পরের দিন বিভিন্ন পত্রিকায় প্রকাশিত হয়। এতে ব্যক্তিগত, সামাজিক, জাতীয় ও অন্তর্জাতিকভাবে শেখ হাসিনার মানহানি হয়েছে বলে অভিযোগ করেন মামলার বাদী নূর-ই-আলম সিদ্দিক।
বিএনপি অবশ্য এই মামলাকে হয়রানিমূলক এবং মত প্রকাশের স্বাধীনতার বিরুদ্ধে হস্তক্ষেপ হিসেবে দেখছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

error: Content is protected !!