আওয়ামীলীগ বন্দুকের জোরে ক্ষমতায় থাকার রোল মডেল : বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম

খুলনা প্রতিনিধি : আওয়ামীলীগ বন্দুকের জোরে ক্ষমতায় থাকার রোল মডেল মন্তব্য করে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, এ সরকার জনগনের সঙ্গে প্রতারণা-ছলচাতুরী করে অনৈতিকভাবে ক্ষমতায় টিকে আছে। বর্তমান সংসদের সমালোচনা করে তিনি বলেন, এই পার্লামেন্ট জনগনের প্রতিনিধিত্ব করে না। ১৫৩ জন বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন। সেই পার্লামেন্টে পঞ্চদশ সংশোধনী গ্রহনযোগ্য হবে না। শেখ হাসিনা ক্ষমতায় থাকলে কোনো নির্বাচন সুষ্ঠু হবে না। তিনি নির্বাচনকালীন সহায়ক সরকার গঠনের জন্য প্রয়োজনে সংবিধান সংশোধনের আহ্বান জানান। গতকাল বুধবার বেলা সাড়ে ১১টায় খুলনার টাইগার গার্ডেন মিলনায়তনে জেলা বিএনপি’র নতুন সদস্য সংগ্রহ ও নবায়ন কার্যক্রমের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন তিনি।বিএনপি মহাসচিব আরো বলেন, আওয়ামীলীগ ক্ষমতায় টিকে থাকার জন্য আরেকটি সাজানো নির্বাচনের পায়তারা করছে। নির্বাচনকালীন যদি একটি নিরপেক্ষ সরকার না থাকে তাহলে সেই নির্বাচন কখনও সুষ্ঠু ও গ্রহনযোগ্য হবে না। তিনি আরোও বলেন, নিত্যপ্রয়োজনীয় চাল-ডাল-তেল লবন ও বিদ্যুতের দাম বেড়েছে। কৃষকের সারের দাম বেড়েছে অথচ তারা তাদের পণ্যের উৎপাদিত পণ্যের মূল্য পায় না। তিনি নির্বাচন কমিশনের রোডম্যাপ বাস্তবায়নে নির্বাচনের আগে সব রাজনৈতিক দলকে একই রাস্তায় আনতে পদক্ষেপ গ্রহণের আহ্বান জানান। এই কাজে ব্যর্থ হলে পুরো দায় নির্বাচন কমিশনকে নিতে হবে বলে হুঁশিয়ারি দিয়েছেন তিনি।মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, নির্বাচন কমিশনের নিরপেক্ষতা নিয়ে প্রশ্ন থাকলেও আমরা বলেছি, একটি অবাধ সুষ্ঠু নির্বাচনের ব্যবস্থা করলে সমর্থন পাবে। সম্প্রতি নির্বাচন কমিশন একাদশ জাতীয় নির্বাচনের রোডম্যাপ ঘোষণা করেছেন। খুব ভাল কথা। কিন্তু নির্বাচন করতে হলে সকল রাজনৈতিক দলগুলোকে একই রাস্তায় নিয়ে আসতে হবে, সেই রাস্তা কোথায়? রোড’ই যখন নেই তখন ম্যাপে কী হবে? এ সময় আগে নির্বাচনের পরিবেশ তৈরি করতে ইসির প্রতি আহ্বান জানান বিএনপির মহাসচিব। তিনি বলেন, নির্বাচনী পরিবেশ তৈরি করুন। অন্যথায় নির্বাচনী রোডম্যাপ স্বার্থক হবে না। আর ব্যর্থ হলে এর দায় আপনাদের নিতে হবে।খুলনা জেলা বিএনপির সভাপতি এ্যাড: এস এম শফিকুল আলম মনার সভাপতিত্বে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান বক্তা ছিলেন কেন্দ্রীয় বিএনপি’র সাংগঠনিক সম্পাদক ও খুলনা মহানগর সভাপতি নজরুল ইসলাম মঞ্জু। বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন, বিএনপি’র কেন্দ্রীয় কমিটির তথ্য বিষয়ক সম্পাদক আজিজুল বারী হেলাল, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক অনিন্দ্র ইসলাম অমিত, সহ সাংগঠনিক সম্পাদক জয়ন্ত কুমার কুন্ডু। জেলা বিএনপির আয়োজনে এ কর্মসূচীর শুরুতে স্বাগত বক্তব্য রাখেন জেলা বিএনপি’র সাধারণ সম্পাদক আমীর এজাজ খান। অন্যান্যের মধ্যে বক্তৃতা করেন খুলনা সিটি মেয়র মনিরুজ্জামান মনি, সাবেক এমপি সৈয়দ নার্গিস আলী, বিএমএ’র সাবেক মহাসচিব প্রফেসর গাজী আব্দুল হক, সাবেক এমপি কাজী সেকেন্দার আলী ডালিম, শাহারুজ্জামান মোর্ত্তজা, বাগেরহাটা জেলা বিএনপি’র সভাপতি আলী রেজা বাবু, সাবেক এমপি মুজিবুর রহমান, ডুমুরিয়া উপজেলা চেয়ারম্যান খান আলী মুনসুর, এ্যাড: মোমরেজুল ইসলাম, আবু হোসেন বাবু, শেখ আব্দুর রশীদ, কামরুজ্জামান টুকু, আশরাফুল আলম নান্নু, জলিল খান কামাল প্রমুখ।
বিএনপি’র কেন্দ্রীয় কমিটির তথ্য বিষয়ক সম্পাদক আজিজুল বারী হেলাল বলেন, ফরহাদ মজহারের মত একজন মানুষকে অপহরন করা হয় এবং এখন তাকে মিথ্যা মামলায় ফাঁসানো চেষ্টা হচ্ছে। রামপাল তাপ বিদ্যুৎ প্রকল্প সম্পর্কে তিনি বলেন, এ প্রকল্প বাস্তবায়ন হলে সুন্দরবনের ক্ষতি করবে। সুন্দরবন যদি ধ্বংস হয়ে যায় তাহলে খুলনা বিভাগ হুমকির মুখে পড়বে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

error: Content is protected !!