You are here
Home > খেলাধুলা > চেলসি ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের কাছে পাত্তাই পেল না

চেলসি ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের কাছে পাত্তাই পেল না

ক্রীড়া ডেস্ক: ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগ কী দুর্দান্তভাবেই না শুরু করলো ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড। মৌসুমের প্রথম ম্যাচে তাদের কাছে পাত্তাই পেলো না চেলসি। রোববার রাতে ৪-০ গোলের বড় জয় পায় ইউনাইটেড।
মার্কাস র‌্যাশফোর্ড করেন জোড়া গোল। অপর দুই গোল অঁতনি মার্সিয়াল আর অভিষিক্ত ড্যানিয়েল জেমসের।
ম্যাচের তৃতীয় মিনিটেই অবশ্য এগিয়ে যেত পারতো চেলসি। তবে ২০ মিটার দূর থেকে দলের নতুন নাম্বার নাইন ট্যামি আব্রাহামের জোরালো শট পোস্টে লাগে। একটু পর ফরাসি ডিফেন্ডার কুর্ত জুমার ভুলে বল পেয়েছিলেন তার স্বদেশি মার্সিয়াল। তবে ইউনাইটেডের এই ফরোয়ার্ডের শট ঠেকিয়ে দেন গোলরক্ষক কেপা আরিসাবালাগা।
সেবার রক্ষা পেলেও জুমার ভুলেই শেষ পর্যন্ত গোল খেতে হয় চেলসির। ডি-বক্সে তিনি ফাউল করে বসেন র‌্যাশফোর্ডকে। ১৮তম মিনিটে পেনাল্টি থেকে নিজেই শট নিয়ে স্বাগতিকদের এগিয়ে নেন ইংলিশ ফরোয়ার্ড।
বিরতির খানিক আগে আবারো চেলসিকে গোলবঞ্চিত করে পোস্ট। এবার কাছ থেকে ইতালিয়ান লেফটব্যাক এমারসনের বুলেটগতির শট বাঁ পোস্টের ওপরের দিকে লাগে।
বিরতির পর প্রথম ১০ মিনিট চাপে থাকার পর আবার সুযোগ আসে চেলসির। এবার এমারসনের জোরালো শট ফিস্ট করে ফেরান দাভিদ দে হেয়া। চাপ ধরে রেখে মুহূর্তের মধ্যে দুই গোল করে ম্যাচ নিজেদের কব্জায় নিয়ে নেয় ইউনাইটেড।
পাল্টা আক্রমণ থেকে ৬৫তম মিনিটে ডান দিক থেকে নিচু ক্রসে কাছ থেকে ভলিতে বল জালে পাঠান মার্সিয়াল। দুই মিনিট পরই নিজেদের অর্ধ থেকে পল পগবার নিখুঁতভাবে বাড়ানো বল নামিয়ে কোনাকুনি শটে জালে পাঠান র‌্যাশফোর্ড।
৮১তম মিনিটে চতুর্থ গোলেও বড় অবদান পগবার। পাল্টা আক্রমণে নিজেদের অর্ধে একবার মার্সিয়ালের সঙ্গে বল দেয়া নেয়া করে এগিয়ে ফরাসি এই মিডফিল্ডার পাস দেন ডানে থাকা জেমসকে।
একটু আগে মাঠে নামা ওয়েলসের এই ফরোয়ার্ডের শট এমারসনের পায়ে দিক পাল্টে জালে জড়ায়। চেলসির সাবেক তারকা ফ্র্যাঙ্ক ল্যাম্পার্ডের কোচ হিসেবে প্রিমিয়ার লিগের অভিষেকটা হয়ে ওঠে আরো বিষাদময়।

Top