You are here
Home > জাতীয় > মিয়ানমার অভিমুখে লংমার্চের হুমকি চরমোনাই পীরের

মিয়ানমার অভিমুখে লংমার্চের হুমকি চরমোনাই পীরের

নিজস্ব প্রতিবেদক : মিয়ানমারে রোহিঙ্গাদের ওপর চলমান নির্যাতন বন্ধ না হলে দেশটির অভিমুখে লংমার্চের হুমকি দিয়েছেন ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের আমির সৈয়দ মুহাম্মদ রেজাউল করীম। এছাড়া আগামী ২১ সেপ্টেম্বর জাতিসংঘের বাংলাদেশের দপ্তরে স্মারকলিপি দেয়ার কর্মসূচিও ঘোষণা করেছেণ তিনি।বুধবার বায়তুল মোকাররমের উত্তর গেইটে মিয়ানমার দূতাবাস ঘেরাও কর্মসূচিতে সংক্ষিপ্ত বক্তব্যে তিনি এই হুঁশিয়ারি দেন।মিয়ানমারের রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীর ওপর চলমান গণহত্যা ও নির্যাতনের প্রতিবাদে মিয়ানমার দূতাবাস ঘেরাওয়ের জন্য সকাল দশটা থেকে বায়তুল মোকাররমের উত্তর গেইটে জড়ো হতে থাকেন দলের নেতাকর্মীরা। সাড়ে ১১র দিকে মিছিলসহ মিয়ানমার দূতাবাসের উদ্দেশ্যে রওনা করেন তারা। মিছিলটি পল্টন হয়ে বিজয়নগর, নাইটেঙ্গেল মোড় হয়ে কাকরাইলের মোড় হয়ে শান্তিনগর এলে পুলিশ বেরিকেড দেয়। দলটির আমির সেখানে কর্মসূচির সমাপ্তি ঘোষণা করে মোনাজাত করেন।পরে দলটির ইসলামী আন্দোলনের প্রেসিডিয়াম সদস্য মাওলানা সৈয়দ মোসাদ্দেক বিল্লাহ আল মাদানী, মহাসচিব ইউনুস আহমেদ, কেন্দ্রীয় নেতা এটিএম হেমায়েত উদ্দিনসহ পাঁচ সদস্যের একটি প্রতিনিধি দল মিয়ানমার দূতাবাসে স্মারকলিপি দিতে যায়।মিছিলপূর্ব সংক্ষিপ্ত সমাবেশে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের আমির বলেন, ‘যাদের মধ্যে মানবতা আছে তারা মিয়ানমারে নিষ্ঠুরতা সহ্য করবে না। আমাদের প্রধানমন্ত্রীর বিবেকও নাড়া দিয়েছে, এজন্য তাকে ধন্যবাদ জানাই।’ এসময় তিনি জাতিসংঘের সাবেক মহাসচিব কফি আনান কমিশনের সুপারিশ বাস্তবায়নের দাবি জানান।সৈয়দ মুহাম্মদ রেজাউল করীমের নেতৃত্বে মিছিলে উপস্থিত ছিলেন ইসলামী আন্দোলনের প্রেসিডিয়াম সদস্য মাওলানা সৈয়দ মোসাদ্দেক বিল্লাহ আল মাদানী, মহাসচিব মাওলানা ইউনুছ আহমাদ, অধ্যাপক আশরাফ আলী আকন, মাওলানা ইমতিয়াজ আলম প্রমুখ।

Leave a Reply

Top