৫০ হেক্টর বোরো ধান ব্লাষ্ট রোগে আক্রান্ত : ধান চাষীরা ক্ষতিগ্রস্থ

চুয়াডাঙ্গা সংবাদদাতা : চুয়াডাঙ্গায় বোরো ধান ব্লাষ্ট রোগের প্রাদুভাব দেখা দিয়েছে। জেলায় প্রায় ৫০ হেক্টর জমির ধানক্ষেত নেক ও হেড ব্লাষ্ট রোগে আক্রান্ত হয়েছে। বোরো ২৮ জাতের ধানে ছত্রাক জনিত ব্লাষ্ট রোগে আক্রান্ত হচ্ছে। এই রোগে ক্ষেতে ধানে চাল ভর হওয়ার আগেই গাছ শুকিয়ে হলুদ হয়ে শুকিয়ে যাচ্ছে। কৃষকরা আক্রান্ত ধান কেটে পশুর খাদ্য হিসাবে ব্যবহার করছেন।
কৃষি বিভাগ বলছে কৃষকদের কয়েকটি জাতের ধান চাষে নিরুৎসাহিত করা হচ্ছে ব্লাষ্ট ভাইরাস প্রতিরোধ করার জন্য।
চুয়াডাঙ্গার চারটি উপজেলায় চলতি বোরো মৌসুমে প্রায় ৩৮ হাজার হেক্টর জমিতে ধান চাষ করছেন। গত বছরের তুলনায় এ বছর ধানের ফলন ভাল কিন্তু বৈরি আবহাওয়ার কারণে জেলায় ধানে ব্লাষ্ট ভাইরাস রোগ দেখা দিয়েছে। হঠাৎ করে দিনের তাপমাত্রা কয়েক ডিগ্রি বেড়ে যাওয়ায় ও রাতেও আবহাওয়া প্রতিকুল থাকার কারণে সহজে বোরো ধান ছত্রাকজনিত ব্লাষ্ট ভাইরাসে আক্রান্ত হচ্ছে।
চুয়াডাঙ্গা জেলায় ৩৮ হাজার হেক্টর জমিতে এর মধ্যে সদর উপজেলায় ৭৬২০ হেক্টর, আলমডাঙ্গা উপজেলায় ১৩০০৫ হেক্টর, দামুড়হুদা উপজেলায় ১০১৫০ হেক্টর ও জীবননগর উপজেলায় ৭২২৫ হেক্টর জমিতে এ মৌসুমে বোরো ধান চাষ হয়েছে। যা লক্ষ মাত্রার চেয়ে বেশি আবাদ হয়েছে, নেক ব্লাষ্ট ছত্রাক ধানের কান্ডে আক্রান্ত হয়। কান্ড কালচে হয়ে গাছ শুকিয়ে পঁচে পড়ে যায় হেড ব্লাষ্ট ছত্রাক ধানের উপরের অংশ থেকে আক্রান্ত হতে শুরু করে। ধানের অংশ শুকিয়ে চিটা হয়ে যায়। দুর থেকে মনে হয় মাঠের ধান পেঁকে গেছে। ব্লাষ্ট আক্রান্ত ধান কেটে কৃষকরা পশুর খাদ্য হিবাসে ব্যবহার করছে কারণ ধানের মধ্য কোন চাল নেই চিটা হয়ে গেছে। জমিতে অন্য ফসল চাষের চিন্তা ও করছেন অনেক কৃষক। দুর থেকে দেখে বোঝা যাবে না ধান নষ্ট হয়েছে। কিন্তু মনে হবে মাঠের ধান পেঁকে গেছে কয়দিন পর কাটা যাবে। কাছ থেকে দেখলে বোঝা যাচ্ছে ধান শুকিয়ে চিটা হয়ে নষ্ট হয়ে গেছে।
কৃষকরা বলেন, মাঠের ধান ব্লাষ্ট রোগে আক্রান্ত হয়ে নষ্ট হচ্ছে। ওষুধ ব্যবহার করে কোন প্রতিকার পাওয়া যাচ্ছে না এ বছর অনেক লোকসান হবে চাল কিনে খেতে হবে আমাদের। সার, বীজ, কীটনাশক ধার দেনা করে ধানের আবাদ করেছিলাম। কিন্তু রোগে ধান নষ্ট হওয়ায় আমরা ধার-দিনা কিভাবে পরিশোধ করব সেই চিন্তায় আছি।
কৃষিবিদ তালহা জুবায়ের মাশরুম জানান, কৃষকদের ব্লাষ্ট প্রতিরোধ আগে থেকেই পরামর্শ দেওয়া হচ্ছে। এ বোরো মৌসুমে কৃষকদের কয়েকটি জাতের ধান চাষে নিরুৎসাহিত করা হয়েছে। বোরো ২৮ জাতের ধান ছত্রাক জনিত ব্লাষ্ট রোগে আক্রান্ত হচ্ছে ৫০ হেক্টর জমির বোরো ধান এই রোগে আক্রান্ত হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

error: Content is protected !!