২৫ ফুট সুড়ঙ্গ কেটে ব্যাংকের টাকা-গহনা লুট

টানা দু’দিন বন্ধ থাকার পর সোমবার ব্যাংক খুলতেই তাজ্জব হয়ে যান কর্মীরা। লকার রুমের অনেকগুলো লকার ভাঙা। আর মেঝেতে একটা বড়সড় গর্ত। কীভাবে এল এই গর্ত? গর্তের উৎস খুঁজতে গিয়েই চোখ কপালে মুম্বাই পুলিশ কর্মকর্তাদের।

পাঁচটি দোকানের নিচে দিয়ে ২৫ ফুট লম্বা সুড়ঙ্গ কেটে ব্যাংকে ঢুকে ৩০টি লকার ভেঙে ৪০ লাখ রুপির সমমূল্যের টাকা-গহনা লুট করেছে ডাকাতেরা।

শনি ও রবিবার বন্ধ থাকার পর সোমবার ব্যাংক খুলতেই ওই বিষয়টি নজরে পড়ে কর্মচারীদের। ঘটনাটি ঘটেছে নভি মুম্বাইয়ের ব্যাংক অব বরোদার জুইনগর শাখায়। পুলিশ এই ডাকাতির ঘটনার তদন্ত করছে। এখনও পর্যন্ত কেউ ধরা পড়েনি।
প্রাথমিক তদন্তের পর পুলিশ জানিয়েছে, শুক্রবার ব্যাংক বন্ধ হওয়ার পর থেকে রবিবারের মধ্যে এই ডাকাতি ঘটেছে। কারণ শনি এবং রবিবার ব্যাংক ছুটি ছিল। সোমবার ব্যাংকের লকার রুমে ঢুকে নিরাপত্তারক্ষীরা দেখেন, ২২৫টি লকারের মধ্যে ৩০টি লকার ভাঙা। গয়না এবং নগদ টাকা উধাও সেগুলো থেকে।

পুলিশ জানিয়েছে, এই সুড়ঙ্গটা ২৫ ফুট লম্বা। যারা ডাকাতি করেছে, তারা মে মাস থেকে ব্যাংকের কাছেই একটি দোকান ভাড়া নিয়ে থাকত। ব্যাংকের ওপরে নজর রাখার জন্যই তারা এই দোকানটি ভাড়া নিয়েছিল। সেই বাড়ি থেকেই সুড়ঙ্গ খুঁড়তে শুরু করে তারা। পাঁচ-পাঁচটি দোকানের নিচে দিয়ে সেই সুড়ঙ্গ গিয়ে ওঠে সোজা ব্যাংকের লকার রুমে।

পুলিশ জানিয়েছে, মাটির নিচে দিয়ে সুড়ঙ্গ কেটে, পাঁচটি দোকান পেরিয়ে ঠিক ব্যাংকের লকারে যাওয়াটা মোটেই সহজ ব্যাপার নয়। মাটির নিচের এবং একই সঙ্গে ব্যাংকের ভিতরের ম্যাপটাও তাদের কাছে পরিষ্কার হওয়া দরকার। যারা এই কাজে যুক্ত, তারা কোনও ভাবে ব্যাংকের সঙ্গে যুক্ত কি না তা-ও খতিয়ে দেখছে পুলিশ।

Leave a Reply

Your email address will not be published.