সুন্দরবনে কথিত বন্দুকযুদ্ধে দুই ‘বনদস্যু’ নিহত

সুন্দরবনে র‌্যাবের সঙ্গে কথিত বন্দুকযুদ্ধে দুইজন নিহত হয়েছে, যারা বনদস্যু আব্বাস বাহিনীর সদস্য বলে দাবি করছে র‌্যাব। এ সময় দেশি-বিদেশি সাতটি অস্ত্র ও ১২৪টি গুলি উদ্ধার করা হয়।

বুধবার সকালে সুন্দরবন পূর্ব বিভাগের শরণখোলা রেঞ্জের বলেশ্বর নদের কাতলার খাল এলাকায় এই বন্দুকযুদ্ধের ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন আব্বাস বাহিনীর সেকেন্ড ইন কমান্ড ইউসুফ ফকির ও সদস্য রুহুল আমিন। তবে তাদের বিস্তারিত পরিচয় জানা যায়নি।

র‌্যাব-৮ এর অধিনায়ক উইং কমান্ডার হাসান ইমন আল রাজীব জানান, প্রায় দুই সপ্তাহ ধরে সুন্দরবন ও বঙ্গোপসাগরের বিভিন্ন এলাকায় কিছু জলদস্যু ও বনদস্যু বাহিনীর সদস্যরা সংগঠিত হয়ে জেলেদের অপহরণ করে মুক্তিপণ আদায় করছিল। র‌্যাব তাদের ধরতে অভিযান অব্যাহত রাখে।

বুধবার সকাল পৌনে আটটার দিকে সুন্দরবন পূর্ব বিভাগের শরণখোলা রেঞ্জের বলেশ্বর নদের কাতলার খাল এলাকায় ডাকাতির প্রস্তুতি নেয়ার খবর পেয়ে র‌্যাব সেখানে অভিযান চালাতে যায়।

র‌্যাবের উপস্থিতি টের পেয়ে বনদস্যুরা র‌্যাবকে লক্ষ্য করে গুলি ছুড়তে থাকে। র‌্যাবও পাল্টা গুলি চালায়। প্রায় পৌনে এক ঘণ্টাব্যাপী গোলাগুলির এক পর্যায়ে বনদস্যুরা বনের ভেতরে পালিয়ে যায়। পরে র‌্যাব তল্লাশি চালিয়ে দুজনের গুলিবিদ্ধ মরদেহ উদ্ধার করে। এছাড়া ঘটনাস্থল থেকে সাতটি অস্ত্র ও ১২৪টি গুলি উদ্ধার করা হয়।

বন্দুকযুদ্ধের পর জেলেরা এসে নিহত দুজনকে বনদস্যু আব্বাস বাহিনীর সদস্য বলে শনাক্ত করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.