1. redsunbangladesh@yahoo.com : admin : Tofauil mahmaud
  2. mdbahar2348@gmail.com : Bahar Bhuiyan : Bahar Bhuiyan
  3. mdmizanm944@gmail.com : Mizan Hawlader : Mizan Hawlader
শনিবার, ০৬ মার্চ ২০২১, ০১:০৫ অপরাহ্ন

শুল্ক প্রত্যাহারের আশায় ছয় দিন ধরে চাল খালাস বন্ধ

রিপোর্টারের নাম :
  • প্রকাশিত : মঙ্গলবার, ১৫ আগস্ট, ২০১৭
  • ২৭ বার পড়া হয়েছে

ডেস্ক রিপোর্ট : শুল্ক প্রত্যাহার-সংক্রান্ত খবরে বেনাপোল স্থলবন্দরে চাল আমদানি ও খালাস বন্ধ রেখেছেন আমদানিকারকরা। গত ছয় দিন ধরে চাল খালাস না করে এই স্থলবন্দরের ভেতর পড়ে আছে প্রায় ৩১০টি ট্রাক।দেশের বাজারে চালের দাম স্বাভাবিক রাখতে ও দ্রুত চালের মজুদ বাড়াতে চাল আমদানিতে পুরোপুরি শুল্ক প্রত্যাহারের বিষয়ে খাদ্য মন্ত্রণালয় থেকে জাতীয় রাজস্ব বোর্ডকে চিঠি দেওয়া হয়। গত ৭ আগস্ট মিডিয়ায় এমন খবর প্রকাশের পর থেকেই বিন্দর থেকে চাল খালাস বন্ধ রেখেছেন আমদানিকারকরা।চাল আমদানিতে শুল্কহার যখন ২৮ ভাগ ছিল, তখন বেনাপোল বন্দর দিয়ে চালের আমদানি প্রায় বন্ধ ছিল। গত ২০ জুন চাল আমদানিতে শুল্কহার কমিয়ে ১০ ভাগ নির্ধারণ করার পর বন্দর দিয়ে চালের আমদানি বাড়ে। বর্তমানে বন্দর দিয়ে প্রতিদিন ১০০ ট্রাক চাল আমদানি হচ্ছে।কিন্তু গত কদিন ধরে চাল আমদানি কিংবা আমদানিকৃত চাল খালাস করছেন না আমদানিকারকরা। বেনাপোল বন্দরের সিঅ্যান্ডএফ এজেন্ট আ. খালেক জানান, আমদানিকারকরা ট্রাকগুলো থেকে চাল খালাস না নিয়ে শুল্ক প্রত্যাহার-সংক্রান্ত খবরের বিষয়টি পর্যবেক্ষণ করছেন।বেনাপোল সিঅ্যান্ডএফ এজেন্টস অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি মফিজুর রহমান সজন জানান, দেশের বাজারে চালের দাম সহনীয় পর্যায়ে রাখতে সরকার চাল আমদানিতে আরোপিত শুল্ক প্রত্যাহার করে নেবে এমন আলোচনা চলছে গত কয়েক দিন ধরে। এর ওপর গত ৭ আগস্ট সোমবার এ-সংক্রান্ত খবর পত্রিকায় প্রকাশিত হওয়ায় বেনাপোল বন্দরের আমদানিকারকরা ভারত থেকে আমদানিকৃত চাল খালাস করছেন না। কারণ সরকার চাল আমদানির শুল্ক প্রত্যাহার করে নিলে তারা ব্যাপকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হবেন। বন্দরে তিন শতাধিক চালের ট্রাক আটকা পড়ে আছে।এ ছাড়া শুল্ক প্রত্যাহারের খবরে বন্দর দিয়ে চালের আমদানি কমিয়ে দিয়েছেন আমদানিকারকরা। এর ওপর আবার গত বুধবারে চাল আমদানিতে শুল্কহার ১০ ভাগ থেকে কমিয়ে ৫ ভাগ করতে মন্ত্রিসভায় সিদ্ধান্ত হয়েছে বলে খবর প্রকাশিত হয়। কিন্তু এর কোনো কাগজপত্র বা আদেশের কপি কাস্টমসে আসেনি। এতে করে আমদানিকারকরা দ্বিধায় আছেন।বর্তমানে চাল আমদানিতে যে ১০ ভাগ শুল্ক আরোপ রয়েছে, তাতে প্রতি কেজি চালে তিন থেকে সাড়ে তিন টাকা শুল্ক দিতে হচ্ছে। যদি এই ১০ ভাগ শুল্ক প্রত্যাহার করে নেয়া হয়, তাহলে দেশের বাজারে চালের দাম কিছুটা কমতে পারে।বেনাপোল বন্দরের উপ-পরিচালক রেজাউল ইসলাম জানান, আগে বেনাপোল বন্দর দিয়ে গড়ে প্রতিদিন ১০০ ট্রাক চাল আমদানি হতো এবং প্রতিদিনই সেসব চাল খালাস হয়ে যেত। কিন্তু চাল আমদানিতে আরোপিত ১০ ভাগ শুল্ক প্রত্যাহার করবে সরকার এমন খবর প্রকাশের পর গত সোমবার থেকেই এই বন্দর থেকে চাল খালাস করছেন না আমদানিকারকরা।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

আরো সংবাদ পড়ুন

—-সম্পাদক মন্ডলীর

সম্পাদকও প্রকাশক: তোফায়েল মাহমুদ ভূঁইয়া (বাহার
ব্যাবস্থাপনা সম্পাদক: হাজী মোঃ সাইফুল ইসলাম
সহ-সম্পাদক: কামরুল হাসান রোকন
বার্তা সম্পাদক: শরীফ আহমেদ মজুমদার
নির্বাহী সম্পাদক: মোসা:আমেনা বেগম

উপদেষ্টা মন্ডলীর

সভাপতি মোহাম্মদ ইকবাল হোসেন মজুমদার,
প্রধান উপদেষ্টা সাজ্জাদুল কবীর,
উপদেষ্টা জাকির হোসেন মজুমদার,
উপদেষ্টা এ এস এম আনার উল্লাহ বাবলু ,
উপদেষ্টা শাকিল মোল্লা,
উপদেষ্টা এম মিজানুর রহমান

Copyright © 2020 www.comillabd.com কুমিল্লাবিডি ডট কম. All rights reserved.
প্রযুক্তি সহায়তায় মাল্টিকেয়ার
error: Content is protected !!