লাকসাম সরকারি কলেজের সাবেক ভিপি হুমায়ুন কবির আর নেই!

আজিম উল্যাহ হানিফ:
লাকসাম নবাব ফয়জুন্নেছা সরকারি কলেজ ছাত্রলীগের ১৯৭৮-৭৯ সেশনের ভিপি হুমায়ুন কবির ১২ নভেম্বর রবিবার দুপুর ১টা ৩০ মিনিটে নাঙ্গলকোট সরকারি হাসপাতালে শেষ নি:শ্বাস ত্যাগ করেন। ইন্না… রাজেউন। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৭০ বছর। ব্যক্তি জীবনে ভিপি হুমায়ুন কবির ছিলেন চিরকুমার। নাঙ্গলকোট পৌরসভার বেতাগাঁও গ্রামের বিট্টিশ বিরোধী আন্দোলনের অন্যতম নেতা মরহুম মৌলভী সরাফত উল্লাহ সাহেবের ভাতিজা ভিপি হুমায়ুন। রাজনৈতিক পরিবারে বেড়ে উঠা এই নেতা ছাত্রজীবন থেকেই পরোপকারী ছিলেন। লোভ লালসা কখনো তাকে স্পর্শ করতে পারেনি। সারাটা জীবন তিনি মানুষের সেবা ও কাজে সময় ব্যয় করেছিলেন। মৌলভী সরাফত আলীর ছোট ভাই, বিশিষ্ট রাজনীতিবিদ বক্স আলী পন্ডিতের সাত ছেলের মধ্যে সবার কনিষ্ঠ ছিলেন ভিপি হুমায়ুন কবির। পরিবারে ২ ভাই ছিলেন বীরমুক্তিযোদ্ধা জয়নাল আবেদীন ও রফিকুল ইসলাম।
ভিপি হুমায়ুনের মৃত্যুতে নাঙ্গলকোট,লাকসাম,মনোহরগঞ্জসহ কুমিল্লায় নেমে আসে শোকের ছায়া । ভিপি হুমায়ুন কবির মৃত্যুর পূর্বে উপজেলা আওয়ামীলীগের সাবেক সিনিয়র সহ-সভাপতি ছিলেন এবং নাঙ্গলকোটের গণমানুষের নেতা সাবেক সংসদ সদস্য আলহাজ্ব জয়নাল আবেদীন ভূইয়ার ঘনিষ্ঠ ও বিশ্বস্ত সহচর ছিলেন। নাঙ্গলকোট প্রেসক্লাব প্রতিষ্ঠায় গুরুত্বপূর্ণ অবদান রেখেছেন তিনি।
রাজনীতি জীবনের বাইরে তিনি সাংবাদিকতাকে পছন্দ করতেন,তাই দীর্ঘ এক দশক ধরে
সাংবাদিকতা পেশায় কাজ করেছেন। জানা যায়,রবিবার দুপুর ১টায় তিনি পৌর এলাকার চৌগুরী গ্রামে জনৈক লোকের জানাযা দিয়ে এসে পৌরসভা ভবনের কাছে নামাজের জন্য প্রস্তুতি নেয়ার সময় হঠাৎ হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মাটিতে ঢলে পড়েন। তাৎক্ষণিকভাবে তাকে নাঙ্গলকোট সরকারি হাসপাতালে নিলে ডাক্তার মৃত ঘোষনা করেন। তখন হাসপাতালে উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান সামছুদ্দিন কালু, মেয়র আবদুল মালেক, অধ্যক্ষ ছাদেক হোসেন ভূইয়া, অধ্যক্ষ আবু ইউসুফ, রফিকুল হোসেন, জেলা পরিষদ সদস্য আবুল খায়ের ছিদ্দিক আবু, আবুল খায়ের আবু, তৌহিদুর রহমান মজুমদার, প্রেসক্লাব আহবায়ক এ এফ এম শোয়ায়েবসহ সকল রাজনৈতিক, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক ব্যক্তিবর্গ ছুটে যান।
ভিপি হুমায়ুনের প্রথম জানাযার নামাজ ১৩ নভেম্বর সোমবার সকাল ১০ টায় নাঙ্গলকোট এ আর হাইস্কুল মাঠে অনুষ্ঠিত হবে, দ্বিতীয় ও শেষ জানাযা অনুষ্ঠিত হবে সকাল ১১.৩০ মিনিটে বেতাগাঁও সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে জানাযা শেষে পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

error: Content is protected !!