রোহিঙ্গাদের ফেরত পাঠানো হবে: গওহর রিজভী

মির্জাপুর (টাঙ্গাইল) সংবাদদাতা : প্রধানমন্ত্রীর আন্তর্জাতিক বিষয়ক উপদেষ্টা ড. গওহর রিজভী বলেছেন, বাংলাদেশে যে দশ লাখ রোহিঙ্গা এসেছে তাদের দায়িত্ব মিয়ানমারের, বাংলাদেশের নয়। মিয়ানমারের ওপর বৈশ্বিক চাপ তৈরি করে রোহিঙ্গাদের ফেরত পাঠানো হবে।

সোমবার টাঙ্গাইলের মির্জাপুরের গোড়াই শিল্পাঞ্চল এলাকার মমিন নগরে ১০ শয্যা বিশিষ্ট্য ফিরদাউস নাসির ট্রাস্ট চেরিটেবল হেলথ কমপ্লেক্স পরিদর্শনে এসে স্থানীয় সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে গওহর রিজভী এ কথা হলেন।

সকাল দশটার দিকে গওহর রেজভী হেলথ্ কমপ্লেক্সে পৌছালে সেখানে তাকে স্বাগত জানান ফিরদাউস নাসির ট্রাস্ট চেরিটেবল হেলথ্ কমপ্লেক্সের চেয়ারম্যান আলী গওহর রেজভী। এ সময় অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন মির্জাপুর উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মো. আজগর হোসেন, মির্জাপুর সার্কেলের সহকারী পুলিশ সুপার আফসার উদ্দিন খান, মির্জাপুর থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এ কে এম মিজানুল হক, ট্রাস্টের ব্যবস্থাপক এজাজ সিদ্দিকী প্রমুখ।

গওহর রেজভী বলেন, ‘কফি আনানের একটি রিপোর্ট আছে, সেখানে পরিস্কার করে বলা হয়েছে মিয়ানমারে ওদের (রোহিঙ্গা) নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে হবে। জাতিসংঘ, রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটি, আইওএমসহ কিছু আন্তর্জাতিক সংস্থা রাখাইনের নিরাপত্তার বিষয়ে সন্তোষ প্রকাশ করলেই ওরা সেখানে ফিরে যাবে।’

বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়া রোহিঙ্গাদের সংখ্যা দশ লাখ উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘আমরা তো মুক্তিযুদ্ধের সময় এক কোটিরও বেশি শরনার্থী নিয়ে ভারতে আশ্রয় নিয়ে ছিলাম। প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, যদি ষোল কোটি মানুষকে খাওয়াতে পারি, তাহলে আর দশ লাখ মানুষকে খাওয়াতে পারবো না কেন। এটা তো মানবিক ব্যাপার। এদের আশ্রয় দেয়ায় বর্হিবিশ্বে বাংলাদেশের মর্যাদা অনেক বৃদ্ধি পেয়েছে।’

সম্প্রতি জার্মানির একটি গবেষণা প্রতিষ্ঠানের প্রতিবেদনে বাংলাদেশ বিশ্বের পঞ্চম স্বৈরতান্ত্রিক দেশের তালিকায় যুক্ত হওয়ার বিষয়ে গওহর রিজভী বলেন, ‘যেখানে সংসদ রয়েছে, নির্বাচন হচ্ছে, স্বাধীন বিচার বিভাগ কাজ করছে, স্বাধীন সাংবাদিকতা রয়েছে, সেটা যদি গণতন্ত্র না হয়, তাহলে গণতন্ত্র কাকে বলে?’

Leave a Reply

Your email address will not be published.