1. redsunbangladesh@yahoo.com : admin : Tofauil mahmaud
  2. mdbahar2348@gmail.com : Bahar Bhuiyan : Bahar Bhuiyan
  3. mdmizanm944@gmail.com : Mizan Hawlader : Mizan Hawlader
বৃহস্পতিবার, ২৯ অক্টোবর ২০২০, ১০:৪৯ অপরাহ্ন

যুদ্ধে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতির কথা স্বীকার করলো আর্মেনিয়া

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:
  • প্রকাশিত : বৃহস্পতিবার, ১৫ অক্টোবর, ২০২০
  • ৭ বার পড়া হয়েছে

বিতর্কিত অঞ্চল নাগোর্নো-কারাবাখের দখলকে কেন্দ্র করে আজারবাইজানের সঙ্গে হওয়া সংঘাতে আর্মেনিয়ার সেনাবাহিনীর অনেকে হতাহত হয়েছেন বলে স্বীকার করেছেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী নিকোল পাশিনইয়ান।
বুধবার টেলিভিশনে প্রচারিত হওয়া এক ভাষণে প্রধানমন্ত্রী পাশিনিয়ান বলেন, যুদ্ধে আর্মেনিয়ার অনেক মানুষ হতাহত হয়েছেন। আমি আমাদের সব ভুক্তভোগী, শহীদ, তাদের পরিবার, অভিভাবক, বিশেষ করে শহীদদের মায়েদের উদ্দেশ্যে নতজানু হয়ে সম্মান জানাই। তাদের এই ক্ষতিকে আমি ও আমার পরিবারের ব্যক্তিগত ক্ষতি হিসেবে বিবেচনা করছি।
তিনি বলেন, আমাদের সবার জানা প্রয়োজন যে আমরা একটি কঠিন পরিস্থিতি পার করছি। আমাদের জয়ী হতেই হবে। আমাদের বেঁচে থাকতেই হবে। আমাদের নিজেদের ইতিহাস তৈরি করতে হবে। আর আমরা এরইমধ্যে ইতিহাস তৈরি করছি। আমাদের বীরত্বপূর্ণ যুদ্ধের গল্প আমাদের মহাকাব্য তৈরি করেছি।
পাশিনিয়ান আরো বলেন, যুদ্ধে জনশক্তি ও উপকরণের ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হলেও আর্মেনিয়ার সেনারা এখনও নিয়ন্ত্রণ ধরে রেখেছে। প্রতিপক্ষের জনশক্তি ও উপকরণেরও বিপুল ক্ষয়ক্ষতি করেছে বলে জানান তিনি।
নাগোর্নো-কারাবাখ নিয়ে গত চার দশক ধরে এই দুই দেশ দ্বন্দ্বে লিপ্ত। নাগোর্নো-কারাবাখ আজারবাইজানের বলেই আন্তর্জাতিকভাবে স্বীকৃত। কিন্তু এটি নিয়ন্ত্রণ করে জাতিগত আর্মেনিয়ানরা। গত ২৭ সেপ্টেম্বর থেকে আবারো যুদ্ধে জাড়িয়ে পড়ে প্রতিবেশী দুই দেশ আর্মেনিয়া ও আজারবাইজান। গত কয়েক দশকের মধ্যে নাগোর্নো-কারাবাখকে নিয়ে সবচেয়ে রক্তক্ষয়ী সংঘাত এটি। এই যুদ্ধে উভয় পক্ষেরই শত শত মানুষ নিহত হয়েছেন।
চলমান এই যুদ্ধ বন্ধ করতে তুরস্ক ও রাশিয়ার নেতারা দুই দেশের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন। গত সপ্তাহে রাশিয়ার মধ্যস্থতায় দুই দেশ যুদ্ধবিরতি চুক্তিতে সম্মত হলেও দীর্ঘস্থায়ী হয়নি সেই বিরতি।
এর আগে, আশির দশকের শেষে এবং নব্বইয়ের দশকের শুরুতে এই অঞ্চলের দখলকে কেন্দ্র করে দুই দেশের মধ্যে রক্তক্ষয়ী যুদ্ধ হয়েছিলো। ১৯৯৪ সালে দুই দেশ যুদ্ধবিরতির ঘোষণা দিলেও তারা কখনোই স্থায়ীভাবে শান্তি চুক্তি করতে পারেনি।
এদিকে, আজারবাইজানের প্রেসিডেন্ট ইলহাম অ্যালিয়েভ অভিযোগ তুলেছেন, আর্মেনিয়া তাদের গ্যাস ও তেলের পাইপ লাইনে আক্রমণ করেছে। তুরস্কের প্রচার মাধ্যম হেবারতুর্ককে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, আর্মেনিয়া আমাদের পাইপলাইন আক্রমণ করে সেগুলোর নিয়ন্ত্রণ নেয়ার চেষ্টা করছে। তারা যদি সেখানকার পাইপলাইনের নিয়ন্ত্রণ নেয়ার চেষ্টা করে তাহলে এর পরিণতি গুরুতর হবে বলে জানাতে চাই আমি। সূত্র- বিবিসি

সংবাদটি শেয়ার করুন

আরো সংবাদ পড়ুন

—-সম্পাদক মন্ডলীর

সম্পাদকও প্রকাশক: তোফায়েল মাহমুদ ভূঁইয়া (বাহার
ব্যাবস্থাপনা সম্পাদক: হাজী মোঃ সাইফুল ইসলাম
সহ-সম্পাদক: কামরুল হাসান রোকন
বার্তা সম্পাদক: শরীফ আহমেদ মজুমদার
নির্বাহী সম্পাদক: মোসা:আমেনা বেগম

উপদেষ্টা মন্ডলীর

সভাপতি মোহাম্মদ ইকবাল হোসেন মজুমদার,
প্রধান উপদেষ্টা সাজ্জাদুল কবীর,
উপদেষ্টা জাকির হোসেন মজুমদার,
উপদেষ্টা এ এস এম আনার উল্লাহ বাবলু ,
উপদেষ্টা শাকিল মোল্লা,
উপদেষ্টা এম মিজানুর রহমান

Copyright © 2020 www.comillabd.com কুমিল্লাবিডি ডট কম. All rights reserved.
প্রযুক্তি সহায়তায় মাল্টিকেয়ার
error: Content is protected !!