ভূলইন উত্তর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক জন্য এগিয়ে আছেন আবুল বাহার

মোহাম্মদ রুবেল খানঃ বৃহত্তর ভূলইন ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাবেক সহ সভাপতি জনাব মোঃ আবুল বাহার লালমাই উপজেলার ভূলইন উত্তর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের আসন্ন ত্রি-বার্ষিক সন্মেলনে সাংগঠনিক সম্পাদক হয়ে বংগবন্ধুর সোনার বাংলা গঠনে জননেত্রী শেখ হাসিনার নিরলস সংগ্রামের সূর্যসারথি মাননীয় অর্থমন্ত্রী, কুমিল্লার গন মানুষের আস্থা ও বিশ্বাস জননেতা আ হ ম মুস্তফা কামাল এফ সি এ (লোটাস কামাল) এম পি মহোদয়ের কুমিল্লার মানুষকে নিয়ে স্বপ্ন বাস্তবায়নের একনিস্ট বেনগার্ড হিসাবে দায়িত্ব পালন করতে চান।
মরহুম অধ্যক্ষ আবুল কালাম মজুমদারের হাত ধরে জাতির পিতা বংগবন্ধুর প্রিয় সংগঠন বাংলাদেশ ছাত্রলীগে যোগ দেন। তিনি ১৯৯১ সালে সাইফুল ইসলাম শাহীন জসিম উদ্দিনএর নেতৃত্তে হাজতখোলা আঞ্চলিক শাখা ছাত্রলীগের যুগ্ন সম্পাদক।
পরবর্তিতে ইব্রাহিম মজুমদার — আমির হোসেনের নেতৃত্তে বৃহত্তর ভূলইন ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সহ সভাপতির দায়িত্ব পালন করেন।১৯৯৩-৯৪সালে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়া কলেজে ভর্তি হয়ে তিনি কলেজ শাখা (একাদশ) ছাত্রলীগের ক্রীড়া সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করেন।
১৯৯৩-৯৪ সালে অধ্যাপক আলমগীর হোসেন অপুর নেতৃত্তে কুমিল্লায় অবস্থিত সাবেক ৯নির্বাচনী এলাকার ছাত্রছাত্রী দের নিয়ে “শুভাকাঙ্ক্ষী পরিষদ, জননেতা অধ্যক্ষ আবুল কালাম মজুমদার” গঠন করেন এবং যুগ্ন আহবায়কের দায়িত্ব পালন করেন।
বিএ পড়ার জন্য পয়ালগাছা পোস্টগ্রাজুয়েট কলেজে ভর্তি হন। কলেজ ছাত্রলীগের সদস্যের দায়িত্ব পালন করেন। এবং এই কলেজ থেকে বিএ পাশ করেন।
জীবিকার টানে জনাব বাহার ১৯৯৯ সালে দক্ষিন কোরিয়ায় গমন করেন। সেখানেও জাতির পিতার আদর্শ বাস্তবায়নে কাজ করেন। তিনি সিউল বংগবন্ধু পরিষদের যুগ্ন সম্পাদক, একই সংগঠনের দক্ষিণ কোরিয়া শাখার কোষাধ্যক্ষ ছিলেন। দীর্ঘ দশ বছর পর ২০০৯ সালে দেশে ফিরে এসে জনাব বাহার কুমিল্লায় সাত্তার খান কমপ্লেক্সে ব্যাবসা শুরু করেন এবং আস্তে আস্তে আবার স্থানীয় রাজনীতির সাথে যুক্ত হন।
২০১৬ সাল থেকে জনাব বাহার ভূলইন উত্তর ইউনিয়ন আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের যুগ্ন আহবায়ক হিসাবে দায়িত্ব পালন করছেন। সৎ ও পরিচ্ছন্ন এই মুজিব আদর্শের কর্মিকে দলের নেতৃবৃন্দ যথাযথ মূল্যায়ন করবেন তিনি এই প্রত্যাশা করেন।