বিএম কলেজের ছাত্রীনিবাসে পেয়ারা নিয়ে সংঘর্ষ, আহত ৯

নিজস্ব প্রতিনিধি : পেয়ারা পাড়াকে কেন্দ্র করে বরিশাল বিএম কলেজ ছাত্রীনিবাসে ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন ৯ জন। শুক্রবার বেলা সাড়ে ১২টায় কলেজ সংলগ্ন বনমালী ছাত্রীনিবাসের ভেতরে এ ঘটনা ঘটে।সংঘর্ষে আহতরা হলেন-ছাত্রলীগ নেত্রী মুনিরা আক্তার মনি,শারমিন আক্তার, মারিয়া হোসেন, কান্তা ইসলাম, ইসরাত জাহান, ঝুমুর, ফাতেমা, জান্নাত ও মিষ্টি। এদের মধ্যে তিনজনকে বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।প্রত্যক্ষদর্শী ছাত্রীরা জানায়, ছাত্রী নিবাসের ২ নম্বর ভবনের সামনে একটি শেড নির্মাণের জন্য সেখানে থাকা পেয়ারা গাছটি কাটার প্রস্তুতি নেয়। এ সময় কাজের ঠিকাদার জুয়েল ছাত্রীনিবাসের ছাত্রলীগ নেত্রী মুনিরার কাছে জানতে চায় পেয়ারা খাবে কি-না। তখন মুনিরাসহ কয়েকজন গাছ থেকে পেয়ারা পাড়তে গেলে অপর ছাত্রলীগ নেত্রী হেনাসহ তার অনুসারীরা পেয়ারা পাড়তে বাঁধা দেয়। পেয়ারা পাড়া নিয়ে উভয় নেত্রীর মধ্যে কথা-কাটাকাটি হয়। একপর্যায়ে হেনা ও তার অনুসারীরা লাঠি-সোটা নিয়ে হামলা করে। এ নিয়ে উভয় পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ হয়। খবর পেয়ে উপাধ্যক্ষ ও নিবাসের সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষরা এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করেন।ছাত্রলীগ নেত্রী মুনিরা আক্তার জানান, পেয়ারা পাড়ায় ছাত্রীনিবাসে অবৈধভাবে বাস করা হেনা ও তার অনুসারীরা তাদের হামলা করে বেধরকভাবে পেটায়। এ সময় ৯ ছাত্রী আহত হয়। এদের মধ্যে তিনজনকে শেবাচিম হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।উপাধ্যক্ষ স্বপন কুমার পাল জানান, পেয়ারা পাড়া নিয়ে ছাত্রীদের মধ্যে সংঘর্ষ হচ্ছে এমন খবর পেয়ে সেখানে গিয়ে পরিস্থিতি শান্ত করা হয়। এ ঘটনা তদন্তে কমিটি করা হবে এবং ওই কমিটির প্রতিবেদন পাওয়ার পর দোষীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

error: Content is protected !!