বাংলাদেশিকে হত্যার পর লাশ নিয়ে গেছে বিএসএফ

লালমনিরহাটের বুড়িমারী সীমান্তে ফরিদ হোসেন শরীফ নামে এক বাংলাদেশিকে গুলি করে হত্যার পর তার মরদেহ নিয়ে গেছে ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনী (বিএসএফ)।

মঙ্গলবার দিবাগত রাতে জেলার পাটগ্রাম উপজেলার বুড়িমারী ইউনিয়নের আমবাড়ি সীমান্তের ৮৪০ নম্বর মেইন পিলার সংলগ্ন ভারতের অভ্যন্তরে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত ফরিদ ওই ইউনিয়নের উফারমারা ঠাকুরপাড়া গ্রামের শামসুল হকের ছেলে।

বিজিবি ও নিহতের পরিবার সূত্রে জানা গেছে, নিহত ফরিদসহ কয়েকজন বাংলাদেশি গরু আনতে ভারতে যায়। এ সময় ভারতের কুচবিহার জেলার বিশবাড়ী ক্যাম্পের টহলরত ৬১ বিএসএফ-এর সদস্যরা তাদের লক্ষ্য করে কয়েক রাউন্ড গুলি ছুড়লে ঘটনাস্থলেই ফরিদ মারা যায়। এ সময় তার সঙ্গে থাকা অন্যরা পালিয়ে আসে। পরে বিএসএফ সদস্যরা ফরিদের লাশ নিয়ে যায়।

বিজিবি রংপুর-৬১ ব্যাটালিয়নের পরিচালক লে. কর্নেল মেহেদী হাসান নিহত বাংলাদেশির লাশ নিয়ে যাওয়ার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, এ ব্যাপারে বিএসএফ’কে কড়া প্রতিবাদ জানিয়ে কোম্পানি কমান্ডার পর্যায়ে পতাকা বৈঠকের আহ্বান জানানো হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.