নাঙ্গলকোটে সাংবাদিকদের তথ্যে বয়স্ক ভাতার কার্ড পেল শতবর্ষী বৃদ্ধা

নাঙ্গলকোট প্রতিনিধি:
অবশেষে কুমিল্লার নাঙ্গলকোটে সাংবাদিকদের তথ্যে এক শতবর্ষী বৃদ্ধা বয়স্ক ভাতার কার্ড পেল। সে উপজেলার মৌকরা ইউপির বিষ্ণপুর গ্রামের শহীদ মুক্তিযোদ্ধার মা ও মৃত. কোরবান আলীর স্ত্রী ছুপিরা খাতুন। উপজেলা নির্বাহী অফিসার দাউদ হোসেন চৌধুরীর আদেশক্রমে ছুপিরা খাতুনকে তার নিজের বাড়ীতে গিয়ে সমাজ সেবা কর্মকর্তা মো: কামরুল হাছান (রনি) বয়স্ক ভাতার কার্ড তুলে দেন এবং আশ্বাস দেন যত দিন তিনি বেঁচে থাকবেন ততদিন তার দেখাশুনা করবেন।
জানা গেছে, গত কিছু দিন আগে ছুপিরা খাতুনের নাতী তাকে ঠোলা গাড়ী করে বিভিন্ন মানুষের কাছে ভিক্ষা করছেন। কিছুক্ষন পর কয়েকজন সাংবাদিক ঠেলা গাড়ীতে বসা শতবর্ষী ছুপিরা খাতুনকে দেখতে পায়। তার নাতিকে জিজ্ঞেস করলে সে বলে, তারা একদম অসহায় অবস্থায় রয়েছে। তার নানি অসুস্থ চিকিৎসার জন্য বাধ্য হয়ে মানুষের ধারে ধারে গুরতেছি। কি করব ভাই, গরীব বলে এখন পর্যন্ত তার নানির বয়স্ক ভাতার কার্ড হয়নি বলে তিনি জানান।
এরপর সাংবাদিকরা খোজ নিয়ে ছুপিরা খাতুনের বাড়ীতে যায়। ওই খান থেকে এসে উপজেলা নির্বাহী অফিসারকে বিষয়টি জানান। পরে ইউএনও সমাজ সেবা কর্মকর্তাকে নির্দেশ দেন তাড়াতাড়ি করে যেন শতবর্ষী বৃদ্ধাকে বয়স্ক ভাতার কার্ড প্রদান করা হয়।
এ বিষয়ে সোমবার উপজেলা সমাজ সেবা কর্মকর্তা জানান, আমাকে নির্বাহী স্যার আদেশ করেন সাংবাদিকদের কাছ থেকে তথ্যে নিয়ে শতবর্ষী বৃদ্ধাকে কার্ড দেওয়ার জন্য। তাই আমি সাংবাদিকদের নিয়ে বৃদ্ধার বাড়ীতে গিয়ে তার হাতে কার্ড তুলে দিয়েছি।
এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা দাউদ হোসেন চৌধুরী জানান, সাংবাদিকদের কাছ থেকে তথ্য পাওয়ার সাথে সাথে সমাজ সেবা কর্মকর্তাকে নির্দেশ দিয়েছি শতবর্ষী বৃদ্ধাকে কার্ড দেওয়ার জন্য। পরে সে তার বাড়ীতে গিয়ে কার্ড তুলে দিয়ে এসেছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.