1. redsunbangladesh@yahoo.com : admin : Tofauil mahmaud
  2. mdbahar2348@gmail.com : Bahar Bhuiyan : Bahar Bhuiyan
  3. mdmizanm944@gmail.com : Mizan Hawlader : Mizan Hawlader
শুক্রবার, ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২১, ০৯:৫০ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ :

দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলে কয়েক যুগ ধরে একের পর এক ইউপি চেয়ারম্যান খুন

রিপোর্টারের নাম :
  • প্রকাশিত : শনিবার, ২৬ আগস্ট, ২০১৭
  • ২৩ বার পড়া হয়েছে

প্রতিনিধি খুলনা : খুলনাসহ দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলে জনপ্রতিনিধি হত্যার ঘটনা থামছে না। সর্বশেষ গতকাল শুক্রবার ভোরে নড়াইলের কালিয়া উপজেলার হামিদপুর ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) চেয়ারম্যান নাহিদ হোসেন মোল্লাকে (৫০) গুলি করে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। নিজ বাড়িতে ঘুমন্ত অবস্থায় শুক্রবার ভোরে দুর্বৃত্তরা তাকে গুলি করে। এ নিয়ে স্বাধীনতার পর এ অঞ্চলের ৭৮ ইউপি চেয়ারম্যান খুন হলেন। একের পর এক হত্যাকান্ডের ঘটনায় এই অঞ্চল এখন আতংকের জনপদে পরিণত হয়েছে। সর্বশেষ শুক্রবার রাতে ঘুমান্ত অবস্থায় কালিয়ার হামিদপুর ইউনিয়ন চেয়ারম্যান নাহিদ মোল্লা হত্যাকান্ড। গেল ২৫ মে ফুলতলার দমোদর ইউপি চেয়ারম্যান সরদার আলাউদ্দীন মিঠুসহ দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলে এ পর্যন্ত ৭৮জন ইউপি চেয়ারম্যান আতঁতায়ীর হাতে প্রাণ হারালেন। আতংকে অনেক ইউপি চেয়ারম্যান এখন নিজ এলাকার পরিবর্তে শহরে এসে বসবাস করছেন।
নিহত ইউপি চেয়ারম্যানের তালিকায় রয়েছেন খুলনার ফুলতলা উপজেলার দামোদর ইউপি চেয়ারম্যান সরদার আবু সাঈদ বাদল, কুষ্টিয়ার হাট হরিশপুর ইউপি চেয়ারম্যান মাহমুদ হোসেন সাচ্চু, কুমারখালীর কয়া ইউপি চেয়ারম্যান জামিল হোসেন বাচ্চু, খুলনার তেরখাদার সাচিয়াদহ ইউপি চেয়ারম্যান চান মিয়া শিকদার, ডুমুরিয়া সদরের আবদুল মজিদ, কবিরুল ইসলাম, মাগুরখালির অতুল সাহা, ফুলতলার দামোদর ইউপি চেয়ারম্যান সরদার আবুল কাশেম, আটরার শেখ সিরাজুল ইসলাম, শেখ আবদুর রউফ, কয়লাঘাট ইউপি চেয়ারম্যান এন্তাজ আলি, ফুলবাড়ী ইউপি চেয়ারম্যান রুহুল আমিন, রূপসার নৈহাটি ইউপি চেয়ারম্যান গোলাম ফারুক, শ্রীফলতলার আবুল হোসেন, বটিয়াঘাটার সুরখালি ইউপি চেয়ারম্যান মোস্তফা মোহাম্মদ হাবিব, শেখ জাহান আলী, দৌলতপুরের আবু গাজী, হাবিবুর রহমান, দিঘলিয়ার আবদুল গফুর, ফুলবাড়ি ইউপি চেয়ারম্যান ইমরান গাজী, বটিয়াঘাটার ভান্ডরকোট ইউনিয়নের ইউসুফ মোল্লা, আমীর আজম খান, পাইকগাছার দেলুটি ইউপি চেয়ারম্যান রবীন্দ্রনাথ মন্ডল, বাগেরহাটের জাহিদ হাসান, বুড়িরডাঙ্গা ইউপি চেয়ারম্যান পার্থ প্রতীম পিন্টু, ডেমা ইউপির আক্তার হোসেন তরফদার, কালুবাড়িয়ার ইউপি চেয়ারম্যান আতিয়ার রহমান, মোরেলগঞ্জের রামচাঁদপুর ইউপির সাবেক চেয়ারম্যান আবদুর রশিদ খাঁ, তেলিগাতি ইউপি চেয়ারম্যান খান সাদেকুল ইসলাম সাদু খাঁ, ফকিরহাটের মানসা বাহিরদিয়া ইউপি চেয়ারম্যান আতর আলী, রামপালের বাইনতলী ইউপি চেয়ারম্যান হাবিবুর রহমান, যশোরের চৌগাছা উপজেলার সিংহঝুলি ইউপি চেয়ারম্যান আশরাফ হোসেন আশা, বাঘারপাড়া রায়পুর ইউপি চেয়ারম্যান ওয়াজেদ আলী, নারিকেলবাড়িয়ার জামিল মাস্টার, রায়পুর ইউপি চেয়ারম্যান কাওছার আলী, বিদ্যানন্দকাঠির আনছার মল্লিক, জামদিয়ার শেখ শফিউদ্দিন, যশোর সদরের বসুন্দিয়া ইউপি চেয়ারম্যান আবদুল মাজেদ শেখ, ঝিকরগাছা উপজেলার গঙ্গানন্দপুর ইউপি চেয়ারম্যান আবদুল জলিল, শার্শার পুটিয়াখালি ইউনিয়নের নূরুদ্দিন, বেনাপোলের আবদুল করিম, কুষ্টিয়ার ঝাউদিয়া ইউপি চেয়ারম্যান আবদুল আজিজ, আলী আকবর, খয়বর ম-ল, কয়া ইউপি চেয়ারম্যান আমু হোসেন, কুমারখালী ইউপি চেয়ারম্যান হেলাল উদ্দিন, হাটহরিদাস ইউপি চেয়ারম্যান মাহমুদ হোসেন সাচ্চু, চুয়াডাঙ্গা কালিদাসপুর ইউপি চেয়ারম্যান মেহের আলী, আলমডাঙ্গার হিজলী ইউপি চেয়ারম্যান ইবনে সাঈদ কচি, জীবননগরের আমদুলবাড়িয়া ইউপি সাবেক চেয়ারম্যান বাকবুল ইসলাম বাবুল, জামিল হোসেন বাচ্চু, নড়াইলের বিছালি ইউপি চেয়ারম্যান আবদুল মান্নান, লোহাগড়ার মল্লিকপুর ইউপি চেয়ারম্যান সিরাজুল ইসলাম, ঝিনাইদহের শ্যামপুর ইউপি চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলাম, মেহেরপুরের মহাজনপুর ইউপি চেয়ারম্যান বাহারুল ইসলাম মিলকি, ফারুক হোসেন ভূঁইয়া, সাতক্ষীরার গহর আলী ও মিজানুর রহমান।
একের পর এক চেয়ারম্যান হত্যাকান্ডের ব্যাপারে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক খুলনার এক ইউপি চেয়ারম্যান বলেন, ‘হত্যা মামলাগুলোর খুনিরা রাজনৈতিক কারণে ধরাছোঁয়ার বাইরে থেকে যাচ্ছে। আইনের শাসন সুপ্রতিষ্ঠিত না হওয়ায় হত্যাকান্ডের সংখ্যা বাড়ছে। নাহিদ মোল্লার খুনের ঘটনায় মর্মান্তিক বলে তিনি উল্লেখ করেন। তিনি বলেন, ঘুমের মধ্যেও কারো নিরাপত্তা নেই। আমরা আতঙ্কের মধ্যে বাস করছি।’
এদিকে নিহত নাহিদের চাচা ঠান্ডু মোল্লা জানান, ২০১৫ সালে খুলনা প্রেসক্লাবের পাশে নাহিদকে হত্যার উদ্দেশ্যে বোমা হামলা চালিয়েছিল সন্ত্রাসীরা। এঘটনায় খুলনা থানায় হত্যা প্রচেষ্টা মামলা চলমান রয়েছে। রাজনৈতিক প্রতিপক্ষ ও ওই ঘটনার জেরে নাহিদকে হত্যা করা হতে পারে। এদিকে দিঘলিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ মো. হাবিবুর রহমান বলেন, কে বা কারা চেয়ারম্যান নাহিদকে হত্যা করেছে এখনো তা জানা যায়নি। এছাড়া হত্যাকান্ডে জড়িত কাউকে আটকও করা হয়নি।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

আরো সংবাদ পড়ুন

—-সম্পাদক মন্ডলীর

সম্পাদকও প্রকাশক: তোফায়েল মাহমুদ ভূঁইয়া (বাহার
ব্যাবস্থাপনা সম্পাদক: হাজী মোঃ সাইফুল ইসলাম
সহ-সম্পাদক: কামরুল হাসান রোকন
বার্তা সম্পাদক: শরীফ আহমেদ মজুমদার
নির্বাহী সম্পাদক: মোসা:আমেনা বেগম

উপদেষ্টা মন্ডলীর

সভাপতি মোহাম্মদ ইকবাল হোসেন মজুমদার,
প্রধান উপদেষ্টা সাজ্জাদুল কবীর,
উপদেষ্টা জাকির হোসেন মজুমদার,
উপদেষ্টা এ এস এম আনার উল্লাহ বাবলু ,
উপদেষ্টা শাকিল মোল্লা,
উপদেষ্টা এম মিজানুর রহমান

Copyright © 2020 www.comillabd.com কুমিল্লাবিডি ডট কম. All rights reserved.
প্রযুক্তি সহায়তায় মাল্টিকেয়ার
error: Content is protected !!