ঢাবির ‘ঘ’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা শেষ

ঢাবি প্রতিনিধি : ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ২০১৭-১৮ শিক্ষাবর্ষে ‘ঘ’ ইউনিটের অধীনে প্রথম বর্ষ সম্মান শ্রেণীতে ভর্তি পরীক্ষা শেষ হয়েছে। শুক্রবার সকাল ১০টা থেকে শুরু হওয়া এ পরীক্ষা চলে বেলা ১১টা পর্যন্ত।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে ৫৩টি ও ক্যাম্পাসের বাইরে ৩৩টি স্কুল-কলেজসহ মোট ৮৬টি কেন্দ্রে পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

এই ইউনিটে এক হাজার ৬১০টি (বিজ্ঞানে- ১ হাজার ১৪৭টি, বিজনেস স্টাডিজে- ৪১০, মানবিকে- ৫৩টি) আসনে আবেদনকারীর সংখ্যা ৯৮ হাজার ৫৪জন। ভর্তির জন্য তুমুল প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ এই পরীক্ষায় প্রতি আসনের বিপরীতে ৬১ জন শিক্ষার্থী আবেদন করেন। উচ্চমাধ্যমিকে বিজ্ঞান, ব্যবসায় শিক্ষা, মানবিকসহ প্রায় সব বিভাগের যোগ্য শিক্ষার্থীরা এই পরীক্ষায় অংশ নেন। তবে পরীক্ষায় কতজন অংশগ্রহণ করেছে এখনো তা জানা যায়নি। পরীক্ষা সুষ্ঠুভাবেই সম্পন্ন হয়েছে বলে জানা গেছে।

ঢাবি ক্যাম্পাসের বাহিরে যেসব কেন্দ্রে পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়েছে সেগুলো হলো বিশ্ববিদ্যালয়ের হাজারীবাগস্থ লেদার ইঞ্জিনিয়ারিং অ্যান্ড টেকনোলজি ইনস্টিটিউট, বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয় স্কুল ও কলেজ, শেখ বোরহানুদ্দীন পোস্ট গ্রাজুয়েট কলেজ, আনোয়ারা বেগম মুসলিম গার্লস স্কুল অ্যান্ড কলেজ, বেগম বদরুন্নেসা সরকারি মহিলা কলেজ, ড. শহীদুল্লাহ কলেজ, লালবাগ মডেল স্কুল ও কলেজ, আজিমপুর গার্লস স্কুল অ্যান্ড কলেজ, নতুন পল্টন লাইন স্কুল অ্যান্ড কলেজ, অগ্রণী স্কুল অ্যান্ড কলেজ, ইডেন মহিলা কলেজ, গার্হস্থ্য অর্থনীতি কলেজ, নীলক্ষেত হাই স্কুল, সরকারি টিচার্স ট্রেনিং কলেজ, গভর্নমেন্ট ল্যাবরেটরী হাই স্কুল, আইডিয়াল কলেজ, নিউ মডেল ডিগ্রি কলেজ, ধানমন্ডি গভর্নমেন্ট বয়েজ হাই স্কুল, মোহাম্মদপুর কেন্দ্রীয় কলেজ, মোহাম্মদপুর মডেল স্কুল অ্যান্ড কলেজ, লালমাটিয়া মহিলা কলেজ, লালমাটিয়া উচ্চ বালিকা বিদ্যালয়, শেরে বাংলানগর গভর্নমেন্ট বয়েজ হাই স্কুল, শেরে বাংলানগর গভর্নমেন্ট গার্লস হাই স্কুল, মতিঝিল সরকারি বালক উচ্চ বিদ্যালয়, মতিঝিল সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়, মতিঝিল আইডিয়াল স্কুল অ্যান্ড কলেজ, সিদ্ধেশ্বরী কলেজ, সিদ্ধেশ্বরী গার্লস কলেজ, হাবিবুল্লাহ বাহার কলেজ, উইলস লিটল ফ্লাওয়ার স্কুল অ্যান্ড কলেজ, টিকাটুলি কামরুন্নেসা গভর্নমেন্ট গার্লস হাই স্কুল, সেন্ট্রাল উইমেন্স কলেজ এবং দনিয়া কলেজ।

সুষ্ঠুভাবে পরীক্ষা পরিচালনার জন্য ছাত্র-ছাত্রীসহ সংশ্লিষ্ট সকলকে পরীক্ষার হলে মোবাইল ফোন বা টেলিযোগাযোগ করা যায় এমন কোনো ইলেক্ট্রনিক ডিভাইস/যন্ত্র নিয়ে প্রবেশ সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ করা হয়েছিল। আজও পরীক্ষা চলাকালে মোবাইল কোর্ট দায়িত্ব পালন করেছে।

পরীক্ষায় কেউ যেন জালিয়াত করতে না পারে সেজন্য কাউন্টার টেরোরিজম ইউনিটের সহায়তা নেয়া হবে বলে জানিয়েছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. আখতারুজ্জামান।

Leave a Reply

Your email address will not be published.