জয়কে হত্যাচেষ্টা মামলায় চার্জশিট গ্রহণের শুনানি

আদালত প্রতিবেদক : প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ছেলে সজীব ওয়াজেদ জয়কে অপহরণ ও হত্যাচেষ্টার পরিকল্পনার মামলায় সিনিয়র সাংবাদিক শফিক রেহমানের ও আমার দেশ পত্রিকার ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক মাহমুদুর রহমানসহ পাঁচজনের বিরুদ্ধে চার্জশিট গ্রহণের বিষয়ে শুনানি অনুষ্ঠিত হয়েছে।

মঙ্গলবার ঢাকা মহানগর হাকিম সরাফুজ্জামান আনছারীর আদালতে এ শুনানি অনুষ্ঠিত হয়।

শুনানিকালে মাহমুদুর রহমান আদালতে উপস্থিত ছিলেন। তবে শফিক রেহমানের পক্ষে সময় আবেদন করা হয়।

আইনজীবী সৈয়দ জয়নুল আবেদীন মেজবাহ বলেন, মাহমুদুর রহমান সাহেব আদালতে উপস্থিত ছিলেন। শফিক রহমানের পক্ষে সময় আবেদন করা হয়। শুনানি শেষে বিচারক পরে আদেশ দেবেন বলে জানিয়েছেন।

মামলার চার্জশিটভুক্ত অপর তিন আসামি জাতীয়তাবাদী সামাজিক-সাংস্কৃতিক সংস্থার (জাসাস) সহসভাপতি মোহাম্মদ উল্লাহ মামুন, তার ছেলে রিজভী আহাম্মেদ ওরফে সিজার এবং যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী ব্যবসায়ী মিজানুর রহমান ভূঁইয়া পলাতক আছেন।

এর আগে গত ২০ ফেব্রুয়ারি মামলাটিতে গোয়েন্দা পুলিশের জ্যেষ্ঠ সহকারী কমিশনার হাসান আরাফাত আদালতে উল্লিখিত পাঁচজনের বিরুদ্ধে চার্জশিট দাখিল করেন।

মামলায় বলা হয়, জাসাসের সহ-সভাপতি যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী মোহাম্মদ উল্লাহ মামুন এবং দেশে ও দেশের বাইরে অবস্থানরত বিএনপির উচ্চ পর্যায়ের নেতারা জয়কে অপহরণ ও হত্যার ষড়যন্ত্র করছে। প্রাপ্ত তথ্যসমূহ পর্যালোচনা করে সন্দেহ করা হচ্ছে যে, যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, বাংলাদেশসহ বিশ্বের যেকোনো দেশে বিএনপির উচ্চ পর্যায়ের নেতৃত্ব উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়ের জীবননাশসহ যেকোনো ধরনের ক্ষতির ষড়যন্ত্রে লিপ্ত আছেন। এই ষড়যন্ত্র বাস্তবায়নে বিএনপির হাইকমান্ড দেশ ও দেশের বাইরে থেকে অর্থায়ন করছে। ২০১৫ সালের ৪ আগস্ট ডিবির পরিদর্শক ফজলুর রহমান এ বিষয়ে পল্টন থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেন, যা পরে মামলায় রূপান্তরিত হয়।

মামলাটিতে সিনিয়র সাংবাদিক শফিক রেহমানকে গ্রেপ্তার করা হয়। পরবর্তী সময়ে তিনি উচ্চ আদালত থেকে জামিন পান। এছাড়া মাহমুদুর রহমানকে কারাগারে থাকা অবস্থায় এ মামলায় গ্রেপ্তার দেখানো হয়। পরে তিনিও এ মামলায় উচ্চ আদালত থেকে জামিন পান।

Leave a Reply

Your email address will not be published.