1. redsunbangladesh@yahoo.com : admin : Tofauil mahmaud
  2. mdbahar2348@gmail.com : Bahar Bhuiyan : Bahar Bhuiyan
  3. mdmizanm944@gmail.com : Mizan Hawlader : Mizan Hawlader
শুক্রবার, ২২ জানুয়ারী ২০২১, ০২:৩৮ অপরাহ্ন

জেলা প্রশাসক সেলিম উদ্দিনকে ভোলা ডায়াবেটিক সমিতির বিদায়ী সংবর্ধনা

রিপোর্টারের নাম :
  • প্রকাশিত : রবিবার, ৪ মার্চ, ২০১৮
  • ১৫ বার পড়া হয়েছে

ভোলা সংবাদদাতা॥ জেলা প্রশাসক ও ভোলা ডায়াবেটিক সমিতির সভাপতি মোহাং সেলিম উদ্দিনকে বিদায়ী সংবর্ধনা প্রদান করেছে ভোলা জেলা ডায়াবেটিক সমিতি। শনিবার (৩ মার্চ) সকালে ভোলা ডায়াবেটিক হাসপাতালের সভাকক্ষে এই বিদায়ী সংবর্ধনা অনুষ্ঠিত হয়।
ভোলা ডায়াবেটিক সমিতির সহ-সভাপতি ও জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আলহাজ্ব আবদুল মমিন টুলুর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানের শুরুতে স্বাগত বক্তব্য রাখেন, ভোলা ডায়াবেটিক সমিতির সাধারন সম্পাদক আলহাজ্ব মিয়া মোহাম্মদ ইউনুস।
বিদায়ী জেলা প্রশাসক মোহাং সেলিম উদ্দিনের কর্মজীবনে উত্তরোত্তর সমৃদ্ধি কামনা করে শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন, ভোলা সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর পারভীন আখতার, সাবেক সিভিল সার্জন ডা. আবদুর মালেক, সরকারি শেখ ফজিলাতুন্নেছা মহিলা কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ প্রফেসর রুহুল আমিন জাহাঙ্গীর, জেলা বিএনপির সহ-সভাপতি আলহাজ্ব আমিনুল ইসলাম খান, প্রবীন আইনজীবী এ্যাড. মোজাম্মেল হক, দৈনিক আজকের ভোলার সম্পাদক আলহাজ্ব মু. শওকাত হোসেন, তজুমদ্দিন উপজেলার সাবেক চেয়ারম্যান মোশারেফ হোসেন দুলাল, অধ্যক্ষ এম ফারুকুর রহমান প্রমূখ।
ভোলা ডায়াবেটিক সমিতির যুগ্ম সম্পাদক মু. আবু তাহের এর সঞ্চালনায় আরো উপস্থিত ছিলেন, ভোলা বারের সিনিয়র আইনজীবি এ্যাড. সালাউদ্দিন আহমেদ, অধ্যক্ষ খালেদা খানম, খলিফাপট্টি জামে মসজিদের খতিব মাও: মজিরউদ্দিন, বিশিষ্ট ব্যবসায়ী আবদুর কাদের খোকন গোলদার, জসিমউদ্দিন মিয়া, সাবেক মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার কাজী আবদুল জাব্বার, মাও: তাজউদ্দিন ফারুকী সহ ভোলার বিশিষ্ট নাগরিকবৃন্দ।
বিদায়ী সংর্বধনায় বিদায়ী অতিথি জেলা প্রশাসক মোহাং সেলিম উদ্দিন বলেন, আমি ভোলাতে জেলা প্রশাসক হিসাবে কাজ করতে পেরে নিজেকে ধন্য মনে করছি। প্রায় দুই বছর যখন ভোলাতে ডিসি হিসেবে যোগদান করার জন্য প্রথম আসার নির্দেশ আসে, তখন আমার মন খুব খারাপ হয়েছিল। আমার মতই আমার পরিবারের সবারই মন খারাপ ছিল, কারন দ্বীপ জেলা ভোলা দেশের মুল ভূখন্ড হতে বিচ্ছিন্ন। নদী বেষ্টিত এই জেলায় আসতে হবে নদী পেরিয়ে, পাছে লঞ্চ ডুবির ভয়। এছাড়া দ্বীপাঞ্চলের মানুষ কেমন প্রকৃতির হয়। এর পরেও ভোলাতে আসলাম চাকরির নিয়ম অনুযায়ী। কিন্তু ভোলায় এসে যা দেখলাম, তা কখনো ভোলার মত নয়। আমি অনেক জেলাতেই কাজ করছি, কিন্তু ভোলার মানুষের আন্তরিক আতিথিয়েতা কখনো ভুলবো না। আজ আমার মতই আমার পরিবারের সকলেরই মন খারাপ। কিন্তু সরকারের নির্দেশ চলে যেতে হবে। আমার স্মৃতিতে ভোলা অম্লান হয়ে থাকবে।
শুভেচ্ছা বক্তব্যে বক্তরা বলেন, ১৯৮৪ সালে ভোলা জেলা হওয়ার পর থেকে অনেক জেলা প্রশাসক চাকুরি সূত্রে ভোলাতে এসেছেন, কিন্তু তাদের মধ্যে মনিরুল ইসলাম, সেকান্দর আলি মন্ডল সহ কয়েকজনকে ভোলা।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

আরো সংবাদ পড়ুন

—-সম্পাদক মন্ডলীর

সম্পাদকও প্রকাশক: তোফায়েল মাহমুদ ভূঁইয়া (বাহার
ব্যাবস্থাপনা সম্পাদক: হাজী মোঃ সাইফুল ইসলাম
সহ-সম্পাদক: কামরুল হাসান রোকন
বার্তা সম্পাদক: শরীফ আহমেদ মজুমদার
নির্বাহী সম্পাদক: মোসা:আমেনা বেগম

উপদেষ্টা মন্ডলীর

সভাপতি মোহাম্মদ ইকবাল হোসেন মজুমদার,
প্রধান উপদেষ্টা সাজ্জাদুল কবীর,
উপদেষ্টা জাকির হোসেন মজুমদার,
উপদেষ্টা এ এস এম আনার উল্লাহ বাবলু ,
উপদেষ্টা শাকিল মোল্লা,
উপদেষ্টা এম মিজানুর রহমান

Copyright © 2020 www.comillabd.com কুমিল্লাবিডি ডট কম. All rights reserved.
প্রযুক্তি সহায়তায় মাল্টিকেয়ার
error: Content is protected !!