জামালগঞ্জে পাউবোর অহেতুক প্রকল্প বাতিলের দাবীতে কৃষকদের স্মারকলিপি

সুনামগঞ্জ: পানি উন্নয়ন বোর্ডের চলতি বছরের কাবিটা প্রকল্পে অহেতুক প্রকল্প বাতিলের দাবীতে জেলা প্রশাসক বরাবরে লিখিত ভাবে আবেদন জানিয়েছেন হাওর পাড়ের কৃষকরা।
মঙ্গলবার সন্ধ্যায় জামালগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার মাধ্যমে সুনামগঞ্জের জেলা প্রশাসক বরাবরে লিখিত আবেদনে স্বাক্ষর করেছেন হাওর বাঁচাও, জামালগঞ্জ বাঁচাও আন্দোলনের আহবায়ক গুল আহমেদ, সিনিয়র যুগ্ম আহবায়ক জহিরুল হক তালুকদার, আব্দুল আহাদ, আখতারুজ্জামান তালুকদার, সদস্য সচিব আকবর হোসেন, ভীমখালী ইউনিয়নের যুগ্ম মফিজুর রহমান, সদস্য সচিব আমিরুল হক সহ ৫০ জন কৃষক।
লিখিত আবেদনে উল্লেখ করেন, আমরা হাওর বাঁচাও, জামালগঞ্জ বাঁচাও আন্দোলনের সদস্য ও এলাকার কৃষক বটে। বিগত কয়েকদিন পূর্বে ভীমখালী ইউনিয়নের কৃষকদের নিয়ে মল্লিকপুর বাজারে হাওর সমস্যা নিয়ে একটি মতবিনিময় সভা করি। সভায় বিভিন্ন আলোচনার প্রেক্ষিতে ভীমখালী ইউনিয়ন পরিষদ কর্তৃক পানি উন্নয়ন বোর্ডের প্রস্তাবিত যে প্রকল্পগুলো মহোদয়ের কার্যালয়ে পাঠানো হয়েছে সেই প্রকল্পগুলো সম্পর্কে স্থানীয় কৃষকদের সাথে আলোচনা না করেই ইউনিয়ন পরিষদ প্রকল্প প্রস্তাব পাঠিয়েছে। সভায় উপস্থিত কৃষকগণ প্রস্তাবিত প্রকল্পের তালিকায় ১নং ক্রমিকের প্রকল্প “সন্তোষপুর হইতে উজ্জলপুর পর্যন্ত বেরীবাঁধ নির্মাণ” পানি উন্নয়ন বোর্ড কর্তৃক অনুমোদিত এই প্রকল্পটিতে হাওরের কোন জায়গায় কাজ করা হয় কৃষকগণ অবগত নন। এই প্রকল্পে উপস্থিত কৃষকগণ সংশোধনীর আপত্তি করেছেন। তারা জানান ভীমখালী ইউনিয়নের ৩ নং ওয়ার্ডের উজ্জলপুর অংশে “ইসলামপুর এলজিইডি রাস্তা হইতে উজ্জলপুর জামে মসজিদ পর্যন্ত বেরীবাঁধ নির্মাণ” এই প্রকল্পের কোন প্রয়োজন নেই। একই ভাবে ভীমখালী ইউনিয়নের ৭ ও ৯নং ওয়ার্ড অর্ন্তভুক্ত “গাজীপুর পাকা রাস্তা হতে পিয়াই নদীর খাল হয়ে মল্লিকপুর বাজারের সামনা পর্যন্ত খাল খনন” এই প্রকল্পে হাওর উন্নয়নে কোন কাজে আসবে না বলে কৃষকগণ আপত্তি জানান।
অভিযোগে হাওর পাড়ের কৃষকরা অহেতুক প্রকল্প গুলি বাতিল করার জন্য জোর আবেদন জানান। পাশাপাশি কৃষকদের স্বার্থে জরুরী ভিত্তিতে পানি নিষ্কাসনের জন্য ৭নং ওয়ার্ডে টাকুরাই বিল হতে মাতারগাও নদীর মুখ পর্যন্ত নালা পুন:খননের ও ৯নং ওয়ার্ডের মল্লিকপুর হাওরের বাইট্টলের কাড়া পুন:খননের সহ উজ্জলপুর ভাঙ্গা মেরামতের জোর দাবী জানানো হয়।
এ বিষয়ে জামালগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো: শামীম আল ইমরান বলেন, “লিখিত আবেদন পেয়েছি, ভীমখালী ইউনিয়ন পরিষদ থেকে প্রকল্প গুলির প্রস্তাব পেয়েছি, হাওর সংশ্লিষ্ট না হলে সে গুলো অনুমোদন করা হবেনা। আর কৃষকদের যে দাবী গুলো সেগুলোর ব্যাপারে সরেজমিন তদন্ত করে ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে”।

Leave a Reply

Your email address will not be published.