1. redsunbangladesh@yahoo.com : admin : Tofauil mahmaud
  2. mdbahar2348@gmail.com : Bahar Bhuiyan : Bahar Bhuiyan
  3. mdmizanm944@gmail.com : Mizan Hawlader : Mizan Hawlader
মঙ্গলবার, ২৪ নভেম্বর ২০২০, ০৩:৩৭ পূর্বাহ্ন

জাফলং সীমান্তে আবারও বেপরোয়া চোরাচালান নেতৃত্ব দিচ্ছে নতুন লাইনম্যান বাহিনী

গোয়াইনঘাট প্রতিনিধিঃ
  • প্রকাশিত : বুধবার, ২১ অক্টোবর, ২০২০
  • ৬৪ বার পড়া হয়েছে

সিলেটের গোয়াইনঘাট উপজেলার পূর্ব জাফলং ও তামাবিলের বিভিন্ন সীমান্ত দিয়ে কিছুদিন বন্ধ থাকার পর ফের আবারও হঠাৎ করে বেপরোয়া হয়ে উঠেছে চোরাচালানীরা এসবের নেতৃত্ব দিচ্ছে নতুন করে লাইনম্যান নামক চাঁদাবাজ সন্ত্রাসী বাহিনী আলিম উদ্দিন, জয়দুল ইসলাম, মন্ত্রীর লোক পরিচয়দানকারি নাজিম উদ্দিন,সৈয়দ মুনসুর আহমেদ, মেহেদী হাছান, চোরাকারবারি আকতার শান্তিনগরের।
ভারতে মটরশুঁটির পণ্যটির দাম বেড়ে যাওয়ায় বিগত কয়েক মাস ধরে মটরশুঁটির পাচার বেড়েছে বলে স্থানীয় সূত্রগুলো জানিয়েছে। তাই দেশী সম্পদ নির্বিঘ্নেই পাচার করছে চোরাকারবারিরা। নিরব ভূমিকা পালন করছে স্থানীয় প্রশাসন। এই অবৈধ পণ্য পাচারের নেতৃত্ব দিচ্ছে বিজিবির লাইনম্যান স্থানীয় শামসুল মিয়া,সোনাটিলা দিয়ে সিদ্দিক মিয়া ও ডিবি পুলিশের নামে চাঁদা আদায় করছেন, আলিম উদ্দিন, জয়দুল, সাহাজান, নাজিম উদ্দিন, সৈয়দ মুনসুর আহমেদ, মেহেদী হাছান, আকতার শান্তিনগর, এই চক্রটি।
এই বুঙ্গার লাইনে নেতৃত্ব দিয়ে জয়দুল, সাহাজান,নাজিম,সৈয়দ মুনসুর আহমেদ, মেহেদী হাছানসহ এখন সবাই আঙ্গুল ফুলে কলাগাছ। পিয়াইন নদীর লাইনম্যান আলিম উদ্দিন জাফলংয়ে তৈরি করেছে এক বিশাল সন্তাসী চাঁদাবাজ বাহিনী আলিম উদ্দিনের রয়েছে কোটি টাকার বাড়ি ও নিজস্ব প্রাইভেট গাড়ি
কিছু দিন আগে জাফলং নয়াবস্তি গ্রামের ইউসুফের পরিবারের উপর হামলার দায়ে জেলা ডিবি পুলিশের হাতে গ্রেপ্তার হয়।
গত বছর থানা পুলিশের হাতে সাহাজান নয়াবস্তি গ্রামের ইয়াবাসহ আটক হয়। সাহাজান মাদক ও মার্ডার মামলায় একাধিকবার জেল খেটে এসেছে। কিন্তু কিছুতেই তারা সীমান্ত চোরাচালানের পিছো ছাড়ছে না।
চোরাকারবারি ব্যবসা করার জন্য গুচ্ছ গ্রামে ১২৭৪ পিলারের ১০ পিট দুরে সরকারি যায়গা দখল করে বাড়ি তৈরি করেছে।
অপর জন সোনাটিলা তামাবিল স্থলবন্দর এলাকার বিজিবির ও ডিবি পুলিশের লাইনম্যান জয়দুল,ও চোরাকারবারি আকতার শান্তিনগর। সে কিছু দিন আগে ছিল সে একজন চোরাকারবারি। বর্তমানে বিজিবি ও ডিবি পুলিশের সাথে ভালো সু সম্পর্ক গড়ে ওঠে তাই নিজের চোরাকারবারি ব্যবসার নিরাপত্তার জন্য হয়ে যায় বিজিবি ও ডিবি পুলিশের লাইনম্যান। আকতার নিজের একাধিক গাড়ি দিয়ে দেশের বিভিন্ন স্থানে বুঙ্গার মাল পাচার করে থাকে। এক বছর আগেও ছিল জিরো। কিন্তু বর্তমানে কোটি কোটি টাকার মালিক জয়দুল ও আকতার মিয়া।
এই চক্রের বিরুদ্ধে মাদক ব্যবসা ও চোরাচালানের একাধীক মামলাও রয়েছে। প্রশাসনের নামে হাতিয়ে নিচ্ছে দৈনিক লক্ষ লক্ষ টাকা। সাহাজান মিয়া তার পেশাই হচ্ছে চোরাকারবারি ব্যবসা করা
তবে কিছু দিন আগে সাহাজান নয়াবস্তি গ্রামের ইউসুফ মিয়ার পরিবারের উপর হামলা করে সেই মামলায় বর্তমানে জামিনে রয়েছে। কিছু দিন পুলিশ-বিজিবি কোন সুযোগ না দেওয়ায় সে সিলেট জেলা গোয়েন্দা পুলিশের নাম ভাঙ্গিয়ে বুঙ্গাড়ীদের কাছ থেকে আদায় করছে দৈনিক হাজার হাজার টাকা আদায় করছে । জেলা গোয়েন্দা পুলিশের সুনাম ক্ষুন্ন করে এসকল অপকর্ম চালিয়ে যাচ্ছে।
স্থানীয় এলাকাবাসী জানান চোরাচালানের বিরুদ্ধে কিন্তু রহস্যজনক কারণে স্থানীয় থানা পুলিশ, ডিবি বিজিবির সদস্যরা নিরব ভূমিকা পালন করছে। ভারতীয় চোরাচালান বন্ধে ও বিজিবি-পুলিশের অবৈধ টাকার লাইনম্যানদের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য প্রশাসনের উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের নিকট আশু হস্থক্ষেপ কামনা করছেন জাফলংয়ের সচেতন মহল।

সংবাদটি শেয়ার করুন

আরো সংবাদ পড়ুন

—-সম্পাদক মন্ডলীর

সম্পাদকও প্রকাশক: তোফায়েল মাহমুদ ভূঁইয়া (বাহার
ব্যাবস্থাপনা সম্পাদক: হাজী মোঃ সাইফুল ইসলাম
সহ-সম্পাদক: কামরুল হাসান রোকন
বার্তা সম্পাদক: শরীফ আহমেদ মজুমদার
নির্বাহী সম্পাদক: মোসা:আমেনা বেগম

উপদেষ্টা মন্ডলীর

সভাপতি মোহাম্মদ ইকবাল হোসেন মজুমদার,
প্রধান উপদেষ্টা সাজ্জাদুল কবীর,
উপদেষ্টা জাকির হোসেন মজুমদার,
উপদেষ্টা এ এস এম আনার উল্লাহ বাবলু ,
উপদেষ্টা শাকিল মোল্লা,
উপদেষ্টা এম মিজানুর রহমান

Copyright © 2020 www.comillabd.com কুমিল্লাবিডি ডট কম. All rights reserved.
প্রযুক্তি সহায়তায় মাল্টিকেয়ার
error: Content is protected !!