জাতীয় পার্টি একটি বড় ফ্যাক্টর আগামীতে জাপা সরকার গঠন করবে

সাবেক প্রেসিডেন্ট ও প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ দূত জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান আলহাজ্ব এইচএম এরশাদ বলেছেন, জাতীয় পার্টি একটি বড় ফ্যাক্টর। কারণ জাতীয় পার্টি দেশের সার্বিক উন্নয়ন এবং জনকল্যাণে সবসময় কাজ করে আসছে। জাতীয় পার্টি ছাড়া এদেশে কোন নির্বাচন হয় না। জাপা’র জনপ্রিয়তা এখনো সবার চেয়ে শীর্ষে। কিন্তু সরকারের অবস্থা করুণ-লাজুক এবং জনপ্রিয়তা শূন্য। প্রতি হিংসার রাজনীতিতে আমি নেই। আর এজন্যই বিগত সময়ে ক্ষমতা ছেড়ে দিয়ে জনতার জনপ্রিয় নেতা হওয়ার প্রমাণ দেখিয়েছিলাম।
রাজনীতিতে অপর কোন দল বা কাউকে বিশ্বাস করতে নেই। নিজেদের শক্তি নিজেরাই। আমাদের কোন বন্ধু নেই। আগামীতে জাতীয় পার্টি একাই নির্বাচনে অংশ নিবে ইনশাআলাহ্। গাইবান্ধার ৫টি আসনের মধ্যে ৪টিতে ইতোমধ্যেই প্রার্থী মনোনয়ন চুড়ান্ত করা হয়েছে। তাদের মধ্যে গাইবান্ধা-০৩ আসনে পার্টি চেয়ারম্যানের রাজনৈতিক উপদেষ্টা ব্যারিস্টার দিলারা খন্দকার শিল্পী, গাইবান্ধা সদর আসনে সাবেক এমপি আলহাজ্ব আব্দুর রশিদ সরকার, সুন্দরগঞ্জ আসনে ব্যারিস্টার শামীম হায়দার পাটোয়ারী ও সাঘাটা-ফুলছড়ি আসনে সাঘাটা উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যমান এ্যাড. গোলাম শহীদ রঞ্জু। এদিকে গোবিন্দগঞ্জ আসনে প্রার্থী মনোনয়নের বিষয়টি এখনো চুড়ান্ত করা হয়নি বলে তিনি জানান। গাইবান্ধার পলাশবাড়ী সদরের শিল্পী ভোজনালয় এন্ড আবাসিক ভবনের তৃতীয় তলায় জাপা কার্যালয়ে বুধবার অনুষ্ঠিত দোয়া ও ইফতার মাহফিল অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি’র বক্তব্যে এরশাদ এ কথা বলেন।
জাতীয় পার্টি উপজেলা শাখার সভাপতি রফিকুল ইসলাম বিএসসি’র সভাপতিত্বে তিনি আরো বলেন, বিএনপি’র উপর স্বয়ং আলাহ তায়ালা গজব নাজিল করেছেন। কেননা তারা শুধু দেশে সন্ত্রাস-নাশকতা ও জ্বালাও পোড়াও করেননি। তারা আমার নিষ্পাপ ছেলে-মেয়েকে বিনা কারণে জেল-জুলুম ও নির্যাতন করেছে। আমি মিলিটারী মানুষ মোটামুটি সবই বুঝি। ৫ দলীয় জোটে যোগদানের প্রতিশ্রুতিতে বিএনপি প্রথমত ৬০ এবং পরবর্তীতে ৪৮ আসন ছাড়াও আমাকে প্রেসিডেন্ট বানাবে। কিন্তু সবপ্রতিশ্রুতি তাদের ভুয়া। আর এজন্যই আল্লাহতায়ালা তাদের প্রতি উচিৎ বিচার করেছে। আওয়ামীলীগ ও বিএনপি উভয়ই জাতীয় পার্টির প্রতি অমানবিক অবিচার করেছে। জাতীয় পার্টি সরকার গঠন করলে প্রাদেশিক সরকার গঠণের মাধ্যমে দেশের সার্বিক উন্নয়ন করা হবে।
খালেদা জিয়ার ছেলে তারেক নির্বাচনে অংশ নেয়া তো দুরের কথা দেশে আসতে পারবে কিনা সন্দেহ। জাতীয় পার্টি ক্ষমতা যাওয়া কোন ব্যাপার নয়। অপরদিকে আওয়ামীলীগকে সমর্থন করে কি পেলাম। কিছুই পায়নি। তারা আমার দলকে একাধিক ভাঙ্গনের কবলে ফেলেছে। জাতীয় পার্টি বন্ধুর জন্য কারো প্রতি হাত বাড়াবে না। সকল ভেদাভেদ ভুলে আগামী সংসদ নির্বাচনে দলের নেতাকর্মীদের প্রস্তুতি গ্রহণের আহবান জানিয়েছেন।
ইফতার মাহফিলে অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, জাতীয় পার্টির প্রিসিডিয়াম সদস্য, গাইবান্ধা-৩ (পলাশবাড়ী-সাদুলাপুর) আসনের মনোনীত প্রার্থী ব্যারিস্টার দিলারা খন্দকার শিল্পী, জেলা জাপা সভাপতি সাবেক এমপি আলহাজ্ব আব্দুর রশিদ সরকার, উপজেলা জাপার সাধারণ সম্পাদক খন্দকার ওসমান গণি দুলু, যুব সংহতির সভাতি মজিবর রহমান ও ছাত্রসমাজের সাধারণ সম্পাদক এনামুল হক ছাড়াও জাপার কেন্দ্রীয় পর্যায়ের বিভিন্ন নেতৃবৃন্দ। এর আগে পলাশবাড়ী থানার অফিসার ইনচার্জ মাহবুবুল আলমের নেতৃত্বে সাবেক প্রেসিডেন্ট এরশাদকে হাউজ গার্ড সম্মান প্রদানে গার্ড-অব-অর্নার প্রদান করেন গাইবান্ধার সম্মিলিত সশস্ত্র বাহিনী। শেষে দেশের সার্বিক অগ্রগতি ও সমৃদ্ধি কামনা করে বিশেষ মোনাজাত পরিচালনা করা হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published.