জবাই করে হত্যা: চাঞ্চল্যকর ঘটনার রহস্য উম্মোচন করলো পিবিআই

কুমিল্লা প্রতিনিধি :
কুমিল্লার নগরীর নতুন চৌধুরীপাড়া ভাড়া বাসায় মাসুদুর রহমানকে জবাই করে হত্যা ঘটনায় রহস্য উম্মেচন করেছে পুলিশ ব্যুারো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই)। এ ঘটনায় খুনের সাথে জড়িত সাবেক ছাত্রলীগ নেতা মাহমুদুল হাসান মান্না ও জসিম উদ্দিন নামে দুইজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।
শনিবার সকাল সাড়ে ১১ টায় পিবিআই কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান কুমিল্লা জেলার পিবিআই প্রধান অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আপেল মাহমুদ। শুক্রবার (২৪ নভেম্বর) দিনভর নগরীর বিভিন্ন জায়গায় অভিযান চালিয়ে তাদের আটক করা হয়। হত্যার ঘটনায় ব্যবহৃত ছুরি, রশি, দুইটি খেলনার পিস্তলসহ নিহত মাসুদুর রহমানের ব্যবহৃত মোটার সাইকেল জব্দ করেছে। আটকৃত আসামীদের প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে হত্যাকান্ডের কথা শিকার করে।
সংবাদ সম্মেলনে কুমিল্লা জেলার পিবিআই প্রধান অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আপেল মাহমুদ জানান, খুনীরা মাস্টার মাইন্ড পরিকল্পনা করে তাকে কৌশলে হত্যা করা হয়। মাসুদ আবুল খায়ের কোম্পানীর মাকেটিং ইনচার্জ ছিল। গত ১৯ নভেম্বর বিকাল তিনটায় আগে থেকে ভাড়া নেওয়া নগরীর নতুন চৌধুরী পাড়া খালি বাসায় ডেকে নিয়ে যাওয়া হয়। মূলত তাদের উদ্দেশ্য ছিল মাসুদকে আটকে রেখে টাকা আদায় করা। কিন্তু মাসুদ তাদের চিনে ফেলায় গলাকেটে হত্যার করে। আটককৃত দুই আসামীদের বিরুদ্ধে কোতয়ালী মডেল থানায় আরো কয়েকটি মামলা রয়েছে। তবে তাদের চক্রে আরও ৩-৪ জন সদস্য রয়েছে। তাদেরও গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।
সাবেক ছাত্রলীগ নেতা মাহমুদুল হাসান মান্না (৩০) নগরীর কাপ্তান বাজার এলাকার জিয়া উদ্দিনের ছেলে। সে ৪নং কাপ্তান বাজার এলাকার ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি। তার সহযোগী জসিম উদ্দিন (৩৪) কুমিল্লা সদর উপজেলার মাঝিগাছা নন্দিরবাজার এলাকার তাহের মেম্বারের ছেলে।
উল্লেখ্য, গত ১৯ নভেম্বর রাতে কুমিল্লার নগরীর নতুন চৌধুরী পাড়ায় ভাড়াটিয়া মাসুদুর রহমানকে জবাই করে হত্যা করা হয়। মাসুদ কুমিল্লায় আবুল খায়ের গ্রুপে চাকরি করতেন। মাসুদ হত্যার ঘটনায় তার ছোট ভাই মাহফুজ মজুমদার বাদী হয়ে কুমিল্লা কোতয়ালী মডেল থানায় অজ্ঞাতদের আসামী করে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.