চুয়াডাঙ্গায় পৃথক স্থানে সড়ক দুর্ঘটনায় তিনজন নিহত

চুয়াডাঙ্গা সংবাদদাতা : চুয়াডাঙ্গায় পৃথক স্থানে সড়ক দুর্ঘটনায় তিন জনের মৃত্যু হয়েছে। মঙ্গলবার দুপুর ১ টার দিকে চুয়াডাঙ্গা-দর্শনা সড়কে দামুড়হুদা উপজেলার জয়রাপুর মজার পুকুরের প্বার্শে ট্রাক ও মোটরসাইকেলের মুখোমুখি সংঘর্ষে মোটরসাইকেল আরোহী আহসান হাবিব ওরফে তপন (৪০) নিহত হন। আহত হন তার শিশু সন্তান তৌফিক আজিজ ও তার ভায়ের ছেলে আতিকুর রহমান। মৃত্যু আহসান হাবিব জয়রামপুর চৌধুরী পাড়ার মৃত আলাউদ্দীন মিয়ার ছেলে। দুপুর দেড়টার দিকে একই উপজেলার দর্শনায় ট্রাক ও পাওয়ার ট্রলির সংঘর্ষ হয়। এতে পাওয়ার ট্রলির চালক রুহুল আমিন (৩০) ঘটনাস্থলেই মারা যান। মৃত রুহুল আমিন দর্শনার প্বার্শবর্তী উপলপুর গ্রামের মৃত আনারের ছেলে। এদিকে চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলার কাথুলি গ্রামে আলমসাধুর ধাক্কায় সুফিয়া বেগম (৭০) নামে এক বৃদ্ধার মৃত্যু হয়েছে। নিহতদের ময়না তদন্তের জন্য চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে বলে সংশ্লিষ্ট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তারা জানান।
প্রত্যক্ষদর্শী ও দামুড়হুদা মডেল থানার এসআই নাহিরুল ইসলাম জানায়, দুপুর ১টার দিকে আহসান হাবিব তপন তার ছেলে তৌফিক ও ভায়ের ছেলে আতিউরকে নিয়ে দামুড়হুদা কানন কিন্ডার গার্ডেন স্কুল থেকে নিজ বাড়ী ফেরার পথে জয়রামপুর মজার পুকুর নামক স্থানে পৌছালে বিপরিত দিক থেকে আসা দ্রুতগতিতে আসা ট্রাকের সাথে মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে আহসান হাবিব ওরফে তপন মটরসাইকেল থেকে ছিটকে পড়ে ঘটনাস্থলেই নিহত হয়। এসময় তার শিশু ছেলে তৌফিক ও ভাতিজা আহত হয়। আহতরা চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে।
দুপুর দেড়টার দিকে একই উপজেলার দর্শনায় ট্রাকের ধাক্কায় দর্শনার উজলপুর গ্রামের মৃত আনার আলীর ছেলে পাওয়ার টিলার চালক ছেলে রুহুল আমিন নিহত হয়েছেন। রুহুল আমিন বিচালি বোঝাই পাওয়ার টিলার চালিয়ে চুয়াডাঙ্গার দিকে যাওয়ার পথে দর্শনা বিদ্যুৎ অফিসের সামনে পৌছালে পিছন দিক থেকে আসা দ্রুতগামী ট্রাক পিছন থেকে ধাক্কা দিলে পাওয়ার টিলার উল্টে যায়। এসময় পাওয়ার টিলার চালক রুহুল আমিন পিচ রোডে ছিটকে পড়ে ঘটনাস্থলেই মারা যায়। অপর দিকে চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলার কাথুলি গ্রামে রাস্তাপার হতে গিয়ে আলমসাদুর ধাক্কায় সুফিয়া বেগম নামে এক বৃদ্ধার মৃত্যু হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

error: Content is protected !!