চট্টগ্রামে সমুদ্র উত্তাল, আশ্রয়কেন্দ্র প্রস্তুত

নিজস্ব প্রতিবেদক :ঘূর্ণিঝড় বুলবুলের আঘাতে ক্ষয়ক্ষতি থেকে উপকূলীয় এলাকার জনসাধারণকে রক্ষা করতে চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন (চসিক) এবং জেলা প্রশাসন দুটি কন্ট্রোলরুম খুলেছে। প্রস্তুত করা হয়েছে সবগুলো আশ্রয়কেন্দ্র।
ঘূর্ণিঝড়ের প্রভাবে চট্টগ্রাম সমুদ্রবন্দরকে ৪ নম্বর সতর্কতা সংকেত দেখিয়ে যেতে বলেছে আবহাওয়া অধিদপ্তর। সমুদ্র উত্তাল থাকায় বন্দরে পণ্যখালাস বন্ধ রয়েছে।
চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসক ইলিয়াস হোসেন জানান, ঘূর্ণিঝড় মোকাবেলায় প্রস্তুত রয়েছে জেলা প্রশাসন। ইতিমধ্যে জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে কন্ট্রোল রুম খোলা হয়েছে। সবগুলো আশ্রয়কেন্দ্র প্রস্তুত রাখা হয়েছে। জনসাধারণের যে কোনো প্রয়োজনে কন্ট্রোল রুম নম্বর ০৩১-৬১১৫৪৫ ও ০১৭০০৭১৬৬৯১ যোগাযোগ করতে বলা হয়েছে।
ঘূর্ণিঝড়ের ৪ নম্বর সতর্কতা সংকেতের প্রেক্ষিতে চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনও কন্ট্রোল রুম চালু করেছে। ঘূর্ণিঝড় সংক্রান্ত যে কোনো তথ্য ও সেবার জন্য চসিকের কন্ট্রোল রুমের টেলিফোন নম্বরে (০৩১-৬৩৩৬৪৯ এবং ০৩১-৬৩০৭৩৯) যোগাযোগ করতে বলা হয়েছে।
ঘূর্ণিঝড়ের প্রভাবে চট্টগ্রামে সমুদ্র উত্তাল থাকায় চট্টগ্রাম বন্দরে বহিনোঙ্গরে অবস্থানরত সব মাদার ভেসেল থেকে পণ্য খালাস বন্ধ রাখা হয়েছে। সব লাইটার জাহাজ এবং মাছ ধরার ট্রলারসমূহ উপকূলে নোঙর করে রাখা হয়েছে।
চট্টগ্রাম লাইটার শ্রমিক ইউনিয়নের সহ-সভাপতি মো. নবী আলম জানান, ঘূর্ণিঝড়ের কারণে লাইটার জাহাজে পণ্য উঠা-নামা বন্ধ রাখা হয়েছে। জাহাজগুলো নিরাপদ আশ্রয়ে রাখা হচ্ছে।
চট্টগ্রাম বন্দর সচিব মো. ওমর ফারুক জানান, চট্টগ্রাম বন্দরকে ৪ নম্বর সতর্কতা সংকেত দেয়ায় ঘূর্ণিঝড় মোকাবেলায় জরুরি প্রস্তুতি সভা আহ্বান করা হয়েছে। ইতিমধ্যে বন্দরের নিরাপত্তায় প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়ার কার্যক্রম চলমান রয়েছে।