1. redsunbangladesh@yahoo.com : admin : Tofauil mahmaud
  2. mdbahar2348@gmail.com : Bahar Bhuiyan : Bahar Bhuiyan
  3. mdmizanm944@gmail.com : Mizan Hawlader : Mizan Hawlader
সোমবার, ১২ এপ্রিল ২০২১, ১২:১৯ অপরাহ্ন

খুলনায় অবৈধ ইঞ্জিনচালিত রিকশার ঝুঁকিপূর্ণ চলাচল

রিপোর্টারের নাম :
  • প্রকাশিত : শুক্রবার, ১৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৭
  • ৩৪ বার পড়া হয়েছে

খুলনা প্রতিনিধি : খুলনা নগরীতে ব্যাটারিচালিত রিকশা নির্বিঘ্নে চলাচল করছে। আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর চোখের সামনে দিয়ে এগুলো চলাচল করলেও কোনো ধরনের ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে না। ব্যবস্থা না নেওয়ার ফলে অবৈধ কাজটি দীর্ঘদিন ধরে অব্যাহত রয়েছে। এসব ব্যাটারিচালিত রিকশার ব্যাটারি চার্জ দিতে গিয়ে বিদ্যুৎ সঙ্কট সৃষ্টি হচ্ছে। নিষিদ্ধ ও ক্ষতিকর এই যানবাহন বন্ধে কোনো উদ্যোগ না থাকায় তা এখন বড় সঙ্কটে পরিণত হয়েছে। নিবন্ধন না দেওয়ার পরও নগরীতে যত্রতত্র চলছে ব্যাটারিচালিত রিকশা। এই ঝুঁকিপূর্ণ বাহন পুলিশের নাম ভাঙিয়ে এবং একশ্রেণির রাজনৈতিক প্রভাবশালী নেতার আশ্রয় ও প্রশ্রয়ে ক্রমেই বিস্তার লাভ করছে। প্রতিদিনই নতুন নতুন রিকশা নামছে নগরীতে।
জানা যায়, নগরীতে ১৭ হাজার রিকশার লাইসেন্স থাকলেও সময়ের পরিবর্তনে অধিকাংশ রিকশায় সামান্য সুবিধার জন্য ইঞ্জিন লাগানো হয়েছে। ফলে রিকশাগুলো চলতে গিয়ে ভারসাম্য হারিয়ে দুর্ঘটনা ঘটাচ্ছে। নগরীর বাসিন্দা অমিত কুমার বসু বলেন, পার্শ্ববর্তী দেশের কলকাতার দিকে তাকাই, তবে দেখা যাবে রিকশা নামক পরিবহণটির অস্তিত্বই নেই। সেখানে যদি এই পরিবহণ তুলে দেওয়া যায়, তবে খুলনা থেকে তা তুলে দেওয়া সম্ভব হবে না কেন?
সরেজমিন দেখা যায়, পায়ে চালিত রিকশারই এটি এক নতুন সংস্করণ ইঞ্জিন রিকশা। একটা হালকা ও ধীরগতির রিকশা ইঞ্জিনের মাধ্যমে গতি বৃদ্ধি করা হয়, তখন তা দুর্ঘটনায় পড়তে বাধ্য। কারণ বডির ভারসাম্যের সাথে সামঞ্জস্য রেখে ইঞ্জিন বসাতে হয়। বর্তমানে যে সব ইঞ্জিনচালিত রিকশা চলছে, এগুলো পুরোপুরি ভারসাম্যহীন। ফলে প্রতিনিয়ত দুর্ঘটনা ঘটছে। দ্রুত চলতে গিয়ে ভারসাম্য হারিয়ে উল্টে যাচ্ছে।
অন্যদিকে শহরের অলিগলি ও সড়কে চলাচলের কারণে যানজট আরও তীব্র হচ্ছে। এগুলোর পেছনের শক্তি ক্ষমতাসীন দলের একশ্রেণির প্রভাবশালী নেতা ও পুলিশের কিছু সদস্য যোগাচ্ছেন। তার বিভিন্ন সংগঠন দাঁড় করিয়ে করছে চাঁদাবাজি। অবৈধভাবে এসব পরিবহণের ব্যাটারি চার্জ দিতে গিয়ে একদিকে যেমন বিদ্যুতের ঘাটতি দেখা দিচ্ছে, অন্যদিকে সরকারও বিপুল অঙ্কের রাজস্ব হারাচ্ছে। তাছাড়া নগরীর অধিকাংশ দুর্ঘটনার মূল কারণ এই ব্যাটারিচালিত রিকশা। যাদের চলার গতি থাকে বেপরোয়া।
নিরাপদ সড়ক চাই (নিসচা) এর খুলনা জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক ইকবাল হোসেন বিপ্লব বলেন, নগরীর ছোট যানবাহনগুলো অভিযান চালিয়ে বৈধ লাইসেন্স ও ফিটনেস নিশ্চিত করতে হবে। কোন অবস্থাতেই ইঞ্জিনচালিত রিকশা সড়কে থাকা উচিত নয়। কারণ ইঞ্জিন লাগালে রিকশা তার ভারসাম্য হারিয়ে ফেলে।
ব্যাটারিচালিত রিকশা শ্রমিক লীগ এর সহ সভাপতি মোঃ ইরশের আলী শেখ বলেন, নগরীতে প্রশাসনের কাছে সাধারণ রিকশা চালকরা নিয়মিত হয়রানির শিকার হচ্ছে। হয়রানি থেকে মুক্তি পেতে সংগঠনটি প্রতিষ্ঠিত হয়। এর আগে বিভিন্ন সময়ে ব্যাটারিচালিত রিকশা পেলেই ট্রাফিক পুলিশ তার কেটে দিত। কিন্তু এখন দিচ্ছে না। তিনি আরো বলেন, ব্যাটারিচালিত রিকশা তীব্র গতি সম্পন্ন নয়, চাইলে কম গতিতে চালানো যায়। তবে কিছু চালক তীব্র গতিতে গাড়ি চালালে এর দায় তো সবাই নেবে না।
সহকারী পুলিশ কমিশনার (ট্রাফিক) সিদ্দিকুর রহমান বলেন, আমাদের দায়িত্ব সড়কের যানজট নিয়ন্ত্রণ করা। কিন্তু কোন গাড়ির নিবন্ধন বা বৈধতার ব্যাপারে জানবে কেসিসি। এই ব্যাপারে আমার কিছু জানার কথা নয়।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

আরো সংবাদ পড়ুন

—-সম্পাদক মন্ডলীর

সম্পাদকও প্রকাশক: তোফায়েল মাহমুদ ভূঁইয়া (বাহার
ব্যাবস্থাপনা সম্পাদক: হাজী মোঃ সাইফুল ইসলাম
সহ-সম্পাদক: কামরুল হাসান রোকন
বার্তা সম্পাদক: শরীফ আহমেদ মজুমদার
নির্বাহী সম্পাদক: মোসা:আমেনা বেগম

উপদেষ্টা মন্ডলীর

সভাপতি মোহাম্মদ ইকবাল হোসেন মজুমদার,
প্রধান উপদেষ্টা সাজ্জাদুল কবীর,
উপদেষ্টা জাকির হোসেন মজুমদার,
উপদেষ্টা এ এস এম আনার উল্লাহ বাবলু ,
উপদেষ্টা শাকিল মোল্লা,
উপদেষ্টা এম মিজানুর রহমান

Copyright © 2020 www.comillabd.com কুমিল্লাবিডি ডট কম. All rights reserved.
প্রযুক্তি সহায়তায় মাল্টিকেয়ার
error: Content is protected !!