খালেদাই আপনাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেবেন, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে দুদু

নিজস্ব প্রতিবেদক : খালেদা জিয়া দেশে ফিরলে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর এমন মন্তব্যের সমালোচনা করে বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান শামসুজ্জামান দুদু বলেছেন, ‘আপনারা প্রস্তুত থাকুন খালেদা জিয়াই আপনাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেবেন। আগামী দিনের প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়া। গায়ের জোরে ভণ্ডামি করে মিথ্যা কথা বলে যারা ক্ষমতায় এসেছে তারা কী ব্যবস্থা নেবে? ব্যবস্থার জন্য আপনারা (স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী) প্রস্তুত থাকেন।’

রবিবার জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে এক মানববন্ধনে দুদু এসব কথা বলেন। বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারির প্রতিবাদে এ মানববন্ধনের আয়োজন করে জাতীয়তাবাদী দেশ বাঁচাও মানুষ বাঁচাও আন্দোলন ঢাকা মহানগর উত্তর।

শনিবার রাজধানীতে এক আলোচনায় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেছিলেন, খালেদা জিয়া দেশে ফিরলে তার বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। এই বক্তব্যের জবাবে দুদু বলেন, ‘সহায়ক সরকারের অধীনে একটি অংশগ্রহণমূলক নির্বাচনের জন্য আমরা লড়াই করছি। সেই লড়াইয়ের জন্য আমাদেরকে নেতৃত্ব দিচ্ছেন বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া। আগামী দিনের প্রধানমন্ত্রী তিনিই হবেন, ব্যবস্থা নিলে তিনিই নেবেন।’

শামসুজ্জামান দুদু বলেন, ‘বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া লন্ডনে গেছেন চিকিৎসা করতে; কিন্তু এই সরকারের প্রধানমন্ত্রী থেকে শুরু করে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বার বার সন্দেহ প্রকাশ করেছেন তিনি দেশে ফিরবেন কি না? ছোট মনেরও একটা সীমা থাকে এই সরকারের সেটাও নাই। তারা জনবিচ্ছিন্ন গণবিরোধী লুটের সরকার।’

এই সরকার খালেদা জিয়া, বিএনপি এবং ধানের শীষের সঙ্গে নির্বাচন করতে ভয় পায় দাবি করে বিএনপির এই নেতা বলেন, ‘এই সরকার স্বাভাবিক সরকার নয়, তারা সংবিধানের নামে সংবিধানকে ধ্বংস করেছে। আইনের শাসনের নামে আইনকে ধ্বংস করেছে। যার কারণে দেশে হাজার হাজার রাজনৈতিক বন্দী এখন জেলখানায় আছেন।’

দুদু বলেন, ‘স্পষ্ট কথা খালেদা জিয়া আগামী বুধবারে দেশে আসবেন। দেশে এসে দেশের গণতন্ত্র, ভোটাধিকারে ফিরিয়ে আনার জন্য বিরোধী দলের রাজনীতিতে যা যা করার দরকার তিনি তাই করবেন। তাকে সংবর্ধনা দেয়ার জন্য যে সংগ্রামের প্রস্তুতি সেটা বিএনপির নেয়া আছে। দেশে আসলে তাকে ব্যাপক সংবর্ধনা দেয়া হবে।’

বিএনপির এই ভাইস চেয়ারম্যান বলেন, ‘বাংলাদেশ নামক রাষ্ট্র হওয়ার পরে মওলানা ভাসানী এবং অন্যান্য বিরোধীদলের নেতাকর্মীরা যখন শেখ মুজিবের গণতন্ত্রবিরোধী ভূমিকার সমালোচনা করেছেন তখন তাদের ওপর আক্রমণ করা হয়েছে। যখন দুর্ভিক্ষের বিরুদ্ধে খাবারের দাবি করা হয়েছে, বেঁচে থাকার জন্য তখন শেখ মুজিবের সরকার তাদের ওপর আক্রমণ করেছে তাদের মিথ্যা মামলায় জড়িয়েছে। বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া স্বৈরাচার এরশাদের বিরুদ্ধে লড়াই করেছেন গণতন্ত্রের কথা বলেছেন, তার বিরুদ্ধে নানা মামলা দেয়া হয়েছে, হামলা করা হয়েছে। সেই ধারা অব্যাহত রেখেছে ক্ষমতাশীনরা।’

আয়োজক সংগঠনের সভাপতি মোস্তফা গাজী দুদুর সভাপতিত্বে মানববন্ধনে আরও বক্তব্য দেন, বিএনপির সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুস সালাম আজাদ, সংগঠনের কেন্দ্রীয় সভাপতি কে এম রকিবুল ইসলাম রিপন, গণসাংস্কৃতিক দলের সভাপতি এস আল মামুন প্রমুখ।

Leave a Reply

Your email address will not be published.