1. redsunbangladesh@yahoo.com : admin : Tofauil mahmaud
  2. mdbahar2348@gmail.com : Bahar Bhuiyan : Bahar Bhuiyan
  3. mdmizanm944@gmail.com : Mizan Hawlader : Mizan Hawlader
শুক্রবার, ০৪ ডিসেম্বর ২০২০, ০১:৩৭ পূর্বাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ :
ইসরায়েলের বিরুদ্ধে জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদে পাঁচটি প্রস্তাব গৃহীত সেনাপ্রধানের যে কোনো হুমকি মোকাবিলায় প্রস্তুত থাকার নির্দেশ গত ২৪ ঘণ্টায় আরো ৩৫ জন মৃত্যু আক্রান্ত ২ হাজার ৩১৬ জন জাফলং ট্যুরিস্ট পুলিশ চট্টগ্রাম থেকে আগত এক পর্যটকে মৃত্যুর হাত থেকে বাচাঁলেন জনগণের সঙ্গে খারাপ আচরণের কোনো সুযোগ নেই….আইজিপি সচিবালয় আঙ্কারায় স্থাপিত হবে বঙ্গবন্ধু ভাস্কর্য….তথ্যমন্ত্রী সিলেটের নবনিযুক্ত কমিশনার মোহাম্মদ আহসানুল হকের সাথে চেম্বার নেতৃবৃন্দের মতবিনিময় সভা সিলেট র‌্যাব ৯ এর অভিযানে বিভিন্ন স্থান থেকে মদ-ইয়াবাসহ গ্রেপ্তার ৮ পাকিস্তান ও চীনা প্রতিরক্ষামন্ত্রীর সফরে দ্বিপক্ষীয় প্রতিরক্ষা চুক্তি শুরু হলো বিজয়ের মাস ডিসেম্বর

কৃষক পরিবার থেকে ভারতের উপরাষ্ট্রপতি

রিপোর্টারের নাম :
  • প্রকাশিত : রবিবার, ৬ আগস্ট, ২০১৭
  • ১১ বার পড়া হয়েছে

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : কৃষকের পরিবারের সন্তান থেকে ভারতের উপরাষ্ট্রপতি। যাত্রাপথটা খুব একটা সহজ ছিল না। ছাত্র রাজনীতির মধ্যে দিয়ে জীবন শুরু করে বিভিন্ন ঘাত-প্রতিঘাত পেরিয়ে আজ সাফল্যের শিখরে মুপ্পাভারাপু বেঙ্কাইয়া নাইডু।শনিবার ভারতের ১৩তম উপরাষ্ট্রপতি নির্বাচিত হলেন বেঙ্কাইয়া নাইডু। ৭৮৫ সাংসদের মধ্যে এ দিন ভোট দিয়েছেন ৭৭১ জন। নাইডু পেয়েছেন ৫১৬টি ভোট। যদিও তার জেতার জন্য প্রয়োজন ছিল ৩০৮টি ভোট। আগামী ১১ আগস্ট উপরাষ্ট্রপতি হিসেবে শপথ গ্রহণ করবেন তিনি।১৯৪৯ সালে অন্ধ্রপ্রদেশের নেল্লোর জেলার চাভাতাপালেমে জন্মগ্রহণ করেন বেঙ্কাইয়া নাইডু। দশ বছর বয়সে আরএসএস-এর ভাবধারায় উদ্বুদ্ধ হন। ১৯৭২ সালে ‘জয় অন্ধ্র আন্দোলনে’ যোগদানের মধ্যে দিয়ে তার রাজ্য রাজনীতিতে উত্থান। ১৯৭৩ সালে ছাত্রনেতা হিসেবে এবিভিপি-তে যোগ দেন। পরে অন্ধ্রপ্রদেশ বিশ্ববিদ্যালয়ের সভাপতি নির্বাচিত হন। নিজেও নিম্নবিত্ত পরিবারের সন্তান। সেই কারণে কৃষক এবং আর্থিক ভাবে পিছিয়ে থাকা মানুষজনের দুর্দশা নিয়ে আন্দোলনে ঝাঁপিয়ে পড়েছিলেন তিনি। সেই সময় থেকেই সুবক্তা হিসেবে রাজনৈতিকমহলে ধীরে ধীরে পরিচিতি পেতে শুরু করেন বেঙ্কাইয়া।এরপর দেশ জুড়ে জরুরি অবস্থা বিরোধী আন্দোলনে যোগ দিয়ে জেলযাত্রা। ১৯৭৭ থেকে ১৯৮০ সাল পর্যন্ত অন্ধ্রপ্রদেশের জনতা দলের যুব মোর্চার সভাপতির দায়িত্ব সামলান। এরপর আর পিছন ফিরে তাকাতে হয়নি তাকে। রাজনৈতিক জীবনে একের পর এক মাইলফলক পেরিয়ে গিয়েছেন। প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী অটলবিহারী বাজপেয়ীর বিভিন্ন অনুষ্ঠানের ঘোষক থেকে বিধায়ক, মুখপাত্র, সাংসদ, দলের জাতীয় সাধারণ সম্পাদক, মন্ত্রিত্ব একাধিক গুরুত্বপূর্ণ পদ দায়িত্বের সঙ্গে সামলেছেন বেঙ্কাইয়া।১৯৮৮ সালে কর্নাটক থেকে রাজ্যসভার সদস্য নির্বাচিত হন। অন্ধ্রপ্রদেশ বিধানসভা থেকে পর পর দুইবার বিধায়ক নির্বাচিত হয়েছেন বেঙ্কাইয়া। ১৯৮৮ থেকে ১৯৯৩ পর্যন্ত অন্ধ্রপ্রদেশ রাজ্য বিজেপির সভাপতি ছিলেন তিনি। ১৯৯৩ সাল থেকে ২০০০ সালের সেপ্টেম্বর পর্যন্ত বিজেপি-র সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব সামলান তিনি। ১৯৯৬-২০০০ পর্যন্ত তিনি বিজেপি-র সর্বভারতীয় মুখপাত্র ছিলেন। এছাড়া, কেন্দ্র সরকারের স্বরাষ্ট্র, কৃষি, অর্থ, গ্রামোন্নয়ন, বিদেশ বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব পালন করেন তিনি। ২০০৬ সালে বিজেপির সংসদীয় বোর্ডের সদস্য নির্বাচিত হন। ২০১৬ সালে চতুর্থবারের জন্য রাজ্যসভার সদস্য মনোনীত হন বেঙ্কাইয়া।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

আরো সংবাদ পড়ুন

—-সম্পাদক মন্ডলীর

সম্পাদকও প্রকাশক: তোফায়েল মাহমুদ ভূঁইয়া (বাহার
ব্যাবস্থাপনা সম্পাদক: হাজী মোঃ সাইফুল ইসলাম
সহ-সম্পাদক: কামরুল হাসান রোকন
বার্তা সম্পাদক: শরীফ আহমেদ মজুমদার
নির্বাহী সম্পাদক: মোসা:আমেনা বেগম

উপদেষ্টা মন্ডলীর

সভাপতি মোহাম্মদ ইকবাল হোসেন মজুমদার,
প্রধান উপদেষ্টা সাজ্জাদুল কবীর,
উপদেষ্টা জাকির হোসেন মজুমদার,
উপদেষ্টা এ এস এম আনার উল্লাহ বাবলু ,
উপদেষ্টা শাকিল মোল্লা,
উপদেষ্টা এম মিজানুর রহমান

Copyright © 2020 www.comillabd.com কুমিল্লাবিডি ডট কম. All rights reserved.
প্রযুক্তি সহায়তায় মাল্টিকেয়ার
error: Content is protected !!