কুমিল্লা মেডিকেল কলেজে ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষে ১০ জন আহত

কুমিল্লা প্রতিনিধি:
আধিপত্য বিস্তার নিয়ে কুমিল্লা মেডিকেলে কলেজে ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষে অন্তত ১০ জন আহত হওয়ার ঘটনা ঘটেছে। এদের মধ্যে দুজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক। এদিকে এ ঘটনায় আগামী ১১ জানুয়ারি পর্যন্ত কলেজ বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে।
শুক্রবার সকাল থেকে শিক্ষার্থীরা হল ত্যাগ করেছে।বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত আড়াইটায় মেডিকেল কলেজের শেখ রাসেল ছাত্রাবাসে এই সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।গুরুতর আহত দুজন হলেন ছাত্রলীগ কর্মী হলেন- তৌফিক আহমেদ ও ইরফানুল হক। তারা দুজনই মেডিকেল কলেজের ২৩তম ব্যাচের পঞ্চমবর্ষের শিক্ষার্থী। এর মধ্যে তৌফিক আহমেদ কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ ছাত্রলীগের প্রাক্তন সভাপতি আবদুল হান্নানের সমর্থক এবং ইরফানুল হক প্রাক্তন সভাপতি হাবিবুর রহমানের সমর্থক।দুজনই মাথায় গুরুতর আঘাত পেয়েছেন। ইরফানুলকে ঘটনার পরপরই ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়।আর তৌফিককে প্রথমে শহরের মুন হাসপাতালে ভর্তি করা হলেও শুক্রবার সকাল ১০টার দিকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়। আহত বাকি ৮জন ছাত্ররা কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।কলেজের অধ্যক্ষ মহসিন-উজ-জামান চৌধুরী বলেন, ‘ছাত্রলীগের দুই পক্ষের মধ্যে মধ্যরাতে সংঘর্ষ হয়েছে। আমরা বিষয়টি আইন প্রয়োগকারী সংস্থা ও স্থানীয় সাংসদকে জানিয়েছি। বিষয়টি নিয়ে আলোচনার জন্য কলেজের একাডেমিক কাউন্সিলের বৈঠক ডাকা হচ্ছে।
এ বিষয়ে কুমিল্লা কোতোয়ালি মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবু সালাম মিয়া বলেন, ‘ছাত্রলীগের দুই পক্ষ নিজেদের মধ্য ঝামেলা করেছে। খবর পেয়ে পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত কোনো মামলা হয়নি। অতীতেও এ দুটি পক্ষ সংঘর্ষে জড়িয়েছে।’

Leave a Reply

Your email address will not be published.