কুমিল্লায় ১০ লাখ শিশুকে খাওয়ানো হচ্ছে ভিটামিন এ প্লাস ক্যাপসুল

শরীফ আহমেদ মজুমদার :কুমিল্লায় প্রায় ১০ লাখ শিশুকে লাল ও নীল রঙের ভিটামিন এ প্লাস ক্যাপসুল খাওয়ানো শুরু হয়েছে শনিবার (১১ জানুয়ারি) সকাল থেকে। এদিন সকাল ৮টা থেকে একযোগে কুমিল্লা সিটি কর্পোরেশনসহ জেলার ১৭টি উপজেলার ১৯২টি ইউনিয়নের ৫৭৬টি ওয়ার্ডের ৪ হাজার ৬৬৮টি অস্থায়ী ও ২৩টি স্থায়ী কেন্দ্রসহ মোট ৪ হাজার ৮৯৮টি কেন্দ্রে শিশুদের এই ভিটামিন এ প্লাস ক্যাপসুল খাওয়ানো শুরু হয়। বিকাল ৪টা পর্যন্ত ৬ মাস থেকে ৫ বছর বয়সী জেলার সকল শিশুদের এই ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে। এজন্য প্রতিটি কেন্দ্রে ২ জন করে মোট ৯ হাজার ৭৯৬ জন মাঠ কর্মী এক যোগে কাজ করছেন।
কুমিল্লা জেলা সিভিল সার্জন ডা. মো. মজিবুর রহমান এসব তথ্য জানিয়েছেন।
তিনি জানান, কুমিল্লা জেলায় মোট জনসংখ্যা রয়েছে ৬৩ লাখ ৩০ হাজার ৪৫৬ জন। এর মধ্যে ৬ থেকে ১১ মাস বয়সী নীল রঙের ভিটামিন খাওয়ানো হচ্ছে ১ লাখ ২০ হাজার ৫২০ শিশুকে। আর ১৫ থেকে ৫৯ মাস বয়সী ৮ লাখ ৬০ হাজার ৯১০ শিশুকে খাওয়ানো হচ্ছে লাল রঙয়ের ভিটামিন এ ক্যাপসুল। মোট ৯ লাখ ৮১ হাজার ৪৩০ শিশুকে এবার ভিটামিন এ প্লাস ক্যাম্পেইনের আওয়াতায় আনা হয়েছে।
ভিটামিন এ ক্যাপসুলের কোনো পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া নেই। যে কোনো গুজবে কান না দেওয়ার জন্য তিনি সবার প্রতি আহ্বান জানিয়ে ডা. মো. মজিবুর রহমান আরো জানান, ২০১৯ সালে কুমিল্লা জেলায় ভিটামিন এ প্লাস ক্যাম্পেইনে নীল ও লাল রঙের ভিটামিন ট্যাবলেট খাওয়ানোর হার ছিল শতকরা হিসেবে ৯৯ দশমিক ০৯ শতাংশ। এবারও এই লক্ষ্যমাত্রাকে সামনে রেখে কাজ করছে জেলা স্বাস্থ্য বিভাগের কর্মীরা।