ঈদুল আযহা উপলক্ষে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন অফিসার ইনচার্জ আব্দুল আহাদ ও ইন্সপেক্টর তদন্ত হিল্লোল রায়

গোয়াইনঘাট প্রতিনিধিঃ সিলেটের গোয়াইনঘাট থানার পক্ষ থেকে দেশ বিদেশে সবাইকে পবিত্র ঈদুল আযহা উপলক্ষে গোয়াইনঘাট থানার ও অফিসার ইনচার্জ মোঃ আব্দুল আহাদ ও ইন্সপেক্টর তদন্ত হিল্লোল রায় পৃথক পৃথক বার্তায় গোয়াইনঘাট উপজেলা বাসীসহ দেশ বিদেশের সবাইকে পবিত্র ঈদুল আযহার শুভেচ্ছা জানিয়েছেন।
যৌথ শুভেচ্ছা বার্তায় গোয়াইনঘাট উপজেলা বাসীসহ দেশ বিদেশে সবাইকে ঈদ মোবারক জানান, নানা বাধা বিপত্তি উতরাই পেরিয়ে বিগত দিনের চলার পথে সূখ-দূঃখ, পাওয়া না পাওয়ার ক্লান্তিকে ভুলে গিয়ে নতুনত্বের আহব্বানে সুখের স্মৃতি গুলোকে মনে আঁকড়ে ধরতে হবে। সেই সাথে সকল শ্রেনী পেশাজীবিকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে গোয়াইনঘাটের সকল সমস্যা ও সম্ভাবনা গুলোকে খোঁজে বের করে সামাধান কল্পে কাজ করতে হবে।
সেই সাথে মাদক, হেরোইন, গাজাঁ, ফেনসিডিল, ইয়াবা, ধর্ষণ গন-ধর্ষণসহ সকল প্রকার অপরাধমুক্ত সমাজ বিনির্মানে জনপ্রতিনিধিদের পাশা-পাশি সকল সামাজিক, রানৈতিক ব্যাক্তিবর্গকে নিরলসভাবে ঐক্যবদ্ধ হয়ে এগিয়ে আসতে হবে। সকলের ঐকান্তিক প্রচেষ্টা আর সহযোগিতায় একটি আলোকিত গোয়াইনঘাট তথা উন্নয়নশীল দেশ গঠন করা সম্ভব। গোয়াইনঘাট উপজেলাবাসীর সম্মিলিত প্রচেষ্টায় অপরাধমুক্ত গোয়াইনঘাট বাস্থবায়ন করা সম্বভ বলে এ দুই কর্মকর্তা আশাবাদী। পরিবর্তন পরিবর্ধন’র ধারা বাহিকতায় ঈদুল আযহা সবার জীবনে বয়ে আনুক অনাবিল সূখ শান্তি ও সমৃদ্ধি। অপর দিকে কোভিট-১৯’র বা করোনা ভাইরাস সংক্রমনের কারণে সারা বিশ্ব আজ থমকে আছে।
দেশের এ ক্লান্তি লগ্নে সরকারের বেধেঁ দেওয়া সকল আইন ও নির্দেশনা মেনে চলতে হবে। সরকারের গৃহিত সকল উদ্দ্যেগ বাস্থবায়নে সবাইকে আন্তরিকতার সহিত কাজ করলে মহামারি করোনা পরিস্থিতি মোকাবেলা করে স্বাভাবিক জীবনে ফিরে আসতে সক্ষম হবো। এছাড়াও আমাদের এ উপজেলা সীমান্তে অবস্থিত হওয়ার সুবাদে এখানে বেশ কয়েকটি পর্যটন স্পট রয়েছে।
যেখানে প্রতিবছর দেশ-বিদেশী হাজারোও পর্যটক ঘুরতে আসেন। কিন্তু চলমান সময়ে বিশ্বব্যাপী কোভিট-১৯’র বা করোনা ভাইরাস সংক্রমনের কারণে উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষ কর্তৃক কড়া নিষেধাজ্ঞা থাকায় দেশ-বিদেশী কোন পর্যটক ঈদুল আযহা উপলক্ষে ঘুরতে না আসারও অনুরোধ জানিয়েছেন। পর্যটক সমাগমের বিষয়ে এ দুই কর্মকর্তা ডেইলি গোয়াইনঘাটকে জানান, ঈদুল আযহায় সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিত করণ এবং আইনসৃংখলা পরিস্থিতি যাহতে বিগ্ন না ঘটে সে জন্য থানা পুলিশের পাশা-পাশি আইনসৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনীর বিশেষ টিম উপজেলার সর্বত্র কাজ করবে এতে কোথাও কোন অনিয়ম বা অপৃতিকর ঘটনায় কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না।