1. redsunbangladesh@yahoo.com : admin : Tofauil mahmaud
  2. mdbahar2348@gmail.com : Bahar Bhuiyan : Bahar Bhuiyan
  3. sharifnews24@gmail.com : sharif ahmed : sharif ahmed
মঙ্গলবার, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৯:৫৯ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ :

আলোড়ন তুলে চলে গেল শিশু আলফি

রিপোর্টারের নাম :
  • প্রকাশিত : রবিবার, ২৯ এপ্রিল, ২০১৮
  • ৪৯ বার পড়া হয়েছে

আন্তজাতিক ডেস্ক : গোটা বিশ্বে আলোড়ন তুলেছিলো যুক্তরাজ্যের ২৩ মাস বয়সি শিশু আলফি ইভান্স। তাকে নাগরিকত্ব দিয়েছিলো ইতালি সরকার। আর তার জন্য প্রার্থণা করেছিলেন পোপ ফ্রান্সিসের মতো ব্যক্তি। অথচ বিশ্বে আলোড়ন তোলা সেই শিশু আলফি সবাইকে কাঁদিয়ে পৃথিবীকে বিদায় জানিয়ে চলে গেছে।

২০১৬ সালের মে মাসে জন্মের পরপরই অসুস্থ হয়ে পড়ে আলফি ইভান্স। মস্তিষ্কের কোষের বিরল রোগে আক্রান্ত হয়ে তখনি সে কোমায় চলে যায়। তাকে অ্যালডার হে চিলড্রেন্স হাসপাতালে ভর্তি করে কৃত্রিম শ্বাসযন্ত্র লাগিয়ে রাখা হয়। এরপর থেকে সে সেখানেই ভর্তি ছিল।

লাইফ সাপোর্টে রেখে আর সুস্থ হওয়ার কোনও সম্ভাবনা নেই বলে জানান আলফির চিকিৎসকরা। তাই তারা সাপোর্ট খুলে নেয়ার সিদ্ধান্ত নেন। লাইফ সাপোর্ট বা কৃত্রিম শ্বাসযন্ত্র খুলে ফেলার পাঁচদিন পরে শিশুটি মারা গেল।

তবে ডাক্তারদের এমন সিদ্ধান্ত মানতে পারেননি আলফির বাবা মা। যুক্তরাজ্যের ওই হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের সঙ্গে আইনি লড়াইয়ে নামেন তারা।

তার বাবা টম ইভান্স ফেসবুকে লিখেছেন, ‘আমার গ্ল্যাডিয়েটর তার ঢাল নামিয়ে রেখেছে আর ডানা মেলে দিয়েছে…. সত্যিই হৃদয় ভেঙ্গে যাচ্ছে।’

মস্তিষ্কের জটিল রোগে আক্রান্ত শিশুটির চিকিৎসা নিয়ে তার বাবা মায়ের চার মাস ধরে চলা আইনি লড়াই আন্তর্জাতিক মনোযোগ কেড়েছিল। এমনকি পোপ ফ্রান্সিস শিশুটির চিকিৎসা নিয়ে ব্যক্তিগতভাবে আগ্রহ দেখিয়েছিলেন।

শিশুটির মা বাবার অভিযোগ, হাসপাতালে শিশুটির ভুল চিকিৎসা হয়েছে এবং তাকে সেখানে বন্দী করে রাখা হয়েছে। তারা চেয়েছিলেন, শিশুটিকে ইতালির একটি হাসপাতালে নিয়ে চিকিৎসা করাতে। সেই অনুমতি দেওয়ার জন্য পোপ ফ্রান্সিসও আহবান জানিয়েছিলেন। এমনকি সোমবার শিশুটিকে ইতালির নাগরিকত্ব দিয়ে ইতালির সরকার আশা প্রকাশ করে, যেন তাকে সত্ত্বর দেশটিতে নিয়ে আসা হয়।


কিন্তু যুক্তরাজ্যের চিকিৎসকদের কাগজপত্র দেখে লাইফ সাপোর্ট খুলে নেওয়ার পক্ষেই রায় দেন বিচারক। অ্যালডার হে চিলড্রেন্স হসপিটালের চিকিৎসকরা বলেছেন, শিশুটির মস্তিষ্কের কোষ মরে যাচ্ছে, এবং তাকে আরো চিকিৎসা করা শিশুটির জন্য নিষ্ঠুর ও অমানবিক হবে।

আদালতের রায়ের বিরুদ্ধে যুক্তরাজ্যের কোর্ট অব আপিল এবং ইউরোপিয়ান কোর্ট অফ হিউম্যান রাইটসেও যান আলফির বাবা টম ইভান্স আর মা কেট জেমস। তাদের এই আইনি লড়াই শুধু যুক্তরাজ্যে নয়, বিশ্বের সংবাদ মাধ্যমের শিরোনাম হয়।

কিন্তু ভবিষ্যৎ চিকিৎসায় শিশুটির কোন উপকার হবে না, চিকিৎসকদের এরকম রিপোর্ট দেখার পর আদালতে আলফির বাবা-মায়ের আবেদন নাকচ করে দেন। কোর্ট অফ আপিলও সেই সিদ্ধান্ত বহাল রাখেন আর ইউরোপিয়ান আদালত এই বিষয়ে হস্তক্ষেপ করতে অস্বীকৃতি জানায়।

এরপর সোমবার তার কৃত্রিম শ্বাসযন্ত্র খুলে ফেলেন হাসপাতালের চিকিৎসকরা। কয়েকদিন লড়াইয়ের পর শনিবার স্থানীয় সময় আড়াইটায় মারা যায় শিশুটি। আলফির বাবা-মায়ের সমর্থনে যে ‘আলফি আর্মি’ নামে শিশুটির সমর্থক গোষ্ঠী গড়ে উঠেছিল, তারা শিশুটির স্মরণে স্থানীয় একটি পার্কে কয়েকশো বেলুন উড়িয়েছে। সূত্র: বিবিসি

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

আরো সংবাদ পড়ুন

—-সম্পাদক মন্ডলীর

সম্পাদকও প্রকাশক: তোফায়েল মাহমুদ ভূঁইয়া (বাহার)
ব্যাবস্থাপনা সম্পাদক: হাজী মোঃ সাইফুল ইসলাম
সহ-সম্পাদক: কামরুল হাসান রোকন
বার্তা সম্পাদক: শরীফ আহমেদ মজুমদার
নির্বাহী সম্পাদক: মোসা:আমেনা বেগম

উপদেষ্টা মন্ডলীর

প্রধান উপদেষ্টা : ডা: জাহাঙ্গীর হোসেন ভূঁইয়া
উপদেষ্টা : জাকির হোসেন মজুমদার,
উপদেষ্টা : এ এস এম আনার উল্লাহ বাবলু ,
উপদেষ্টা : শাকিল মোল্লা,
উপদেষ্টা : অবসরপ্রাপ্ত জামিল আর্মি,

© All rights reserved © 2019 LatestNews
প্রযুক্তি সহায়তায় মাল্টিকেয়ার
error: Content is protected !!