1. redsunbangladesh@yahoo.com : admin : Tofauil mahmaud
  2. mdbahar2348@gmail.com : Bahar Bhuiyan : Bahar Bhuiyan
  3. mdmizanm944@gmail.com : Mizan Hawlader : Mizan Hawlader
শনিবার, ২৮ নভেম্বর ২০২০, ০৪:৫৬ অপরাহ্ন

অস্ত্রোপচারের পর মুক্তামনির রক্তক্ষরণ, ফের ওটিতে

রিপোর্টারের নাম :
  • প্রকাশিত : শনিবার, ৫ আগস্ট, ২০১৭
  • ১৩ বার পড়া হয়েছে

নিজস্ব প্রতিবেদক : বিরল রোগে আক্রান্ত সাতক্ষীরার ১০ বছরের মেয়ে মুক্তামনিকে ফের অস্ত্রোপচার কক্ষে নেয়া হয়েছে। শনিবার সকালে অস্ত্রোপচারের পর অতিরিক্ত রক্তক্ষরণ হওয়ায় তাকে আবারও অস্ত্রোপচার কক্ষে নেয়া হয়। রক্তক্ষরণ বন্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিচ্ছেন চিকিৎসকরা। তার জন্য ‘এ’ পজেটিভ রক্তের প্রয়োজন হতে পারে বলে চিকিৎসকরা জানিয়েছেন। অস্ত্রোপচারের পর বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক ইউনিটের আবাসিক সার্জন ডা. হোসেন ইমাম জানান, ‘অস্ত্রোপচারের পর আইসিইউতে নেওয়ার পর থেকেই তার অতিরিক্ত রক্তক্ষরণ হচ্ছিল। রক্তক্ষরণ বন্ধে আমরা দ্বিতীয়বারের মতো তাকে অস্ত্রোপচার কক্ষে নিয়েছি। তার জন্য রক্তের প্রয়োজন হতে পারে। আমরা আশা করছি রক্তদাতারা তার জন্য এগিয়ে আসবেন। কারণ চারজন মানুষের চারব্যাগ রক্ত থেকে এক ব্যাগ প্লাটিলেট সংগ্রহ করা হয়। সুতরাং অনেক প্লাটিলেট পেতে অনেক মানুষ দরকার।’ এর আগে সকালে শিশুটির বায়োপসি করা হয়। তাকে সকাল সাড়ে আটটায় অপারেশন থিয়েটারে নেয়া হয়। বার্ন ইউনিটের সমন্বয়কারী সামন্ত লাল সেনের নেতৃত্বে সকাল সাড়ে নয়টার দিকে তার অস্ত্রোপচার শুরু হয়। সোয়া ১০টার পর বায়োপসি শেষ হয়। পরে দলের প্রধান বার্ন ইউনিটের প্রধান সমন্বয়কারী সামন্ত লাল সেন জানিয়েছিলেন, ‘৪৮ ঘণ্টার পরে রিপোর্ট পাব। এরপর মেডিকেল বোর্ড নিয়ে বসবো। তারপর সিদ্ধান্ত জানাতে পারব।’ তার বিষয়ে জানাতে সোমবার ঢাকা মেডিকেলে সংবাদ সম্মেলন করা হবে বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকরা। কিছুদিন আগে সাতক্ষীরার দরিদ্র পরিবারের মেয়েটির বিরল এই রোগের কথা গণমাধ্যমে ওঠে আসে। এতে অনেকেই তার খোঁজখবর নিতে থাকে। এক পর্যায়ে স্থানীয় প্রশাসন নড়েচড়ে বসে। চিকিৎসার দায়িত্ব নেয় স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়। পরে তাকে সাতক্ষীরা থেকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে আনা হয়। গত ১২ জুলাই ঢাকা মেডিকেলে বার্ন ইউনিটে ভর্তি করা হয় মুক্তামনিকে। প্রাথমিকভাবে চিকিৎসকরা চারটি রোগের কথা ধারণা করলেও পরীক্ষা-নিরীক্ষার পর রোগটি লিমফেটিক ম্যালফরমেশন বলে সন্দেহ করছেন চিকিৎসকরা। এটি একটি জন্মগত রোগ (কনজিনেটাল ডিজিস)। তার পরও বিষয়টি নিশ্চিত হতেই এই বায়োপসি করা হয়।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

আরো সংবাদ পড়ুন

—-সম্পাদক মন্ডলীর

সম্পাদকও প্রকাশক: তোফায়েল মাহমুদ ভূঁইয়া (বাহার
ব্যাবস্থাপনা সম্পাদক: হাজী মোঃ সাইফুল ইসলাম
সহ-সম্পাদক: কামরুল হাসান রোকন
বার্তা সম্পাদক: শরীফ আহমেদ মজুমদার
নির্বাহী সম্পাদক: মোসা:আমেনা বেগম

উপদেষ্টা মন্ডলীর

সভাপতি মোহাম্মদ ইকবাল হোসেন মজুমদার,
প্রধান উপদেষ্টা সাজ্জাদুল কবীর,
উপদেষ্টা জাকির হোসেন মজুমদার,
উপদেষ্টা এ এস এম আনার উল্লাহ বাবলু ,
উপদেষ্টা শাকিল মোল্লা,
উপদেষ্টা এম মিজানুর রহমান

Copyright © 2020 www.comillabd.com কুমিল্লাবিডি ডট কম. All rights reserved.
প্রযুক্তি সহায়তায় মাল্টিকেয়ার
error: Content is protected !!